ফজলে রাব্বির ক্যারিয়ার সেরা ইনিংস, হারের বৃত্তে ঘুরপাক পারটেক্সের

ফজলে রাব্বির ক্যারিয়ার সেরা ইনিংস, হারের বৃত্তে ঘুরপাক পারটেক্সের

হারের বৃত্ত থেকে বেরোতে পারেনি পারটেক্স স্পোর্টিং ক্লাব। টানা ৮ ম্যাচে হেরে চলমান বঙ্গবন্ধ ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগে (ডিপিএলে) এখনো পর্যন্ত পায়নি জয়ের স্বাদ। মিরপুরে রোববার প্রাইম দোলেশ্বরের কাছে তারা হেরেছে ৫ উইকেটে।

৮ ম্যাচে ৫ জয়ে পয়েন্ট টেবিলের দ্বিতীয় অবস্থানে প্রাইম দোলেশ্বর। আবাহনী সমান ম্যাচে সমান জয় পেলেও বৃষ্টির কারণে দোলেশ্বরের একটি ম্যাচ পরিত্যক্ত হয়, যেখানে যোগ হয় বাড়তি এক পয়েন্ট।

ওপেনার মোহাম্মদ হাসানুজ্জামানের দারুণ শুরুতেও এদিন বড় সংগ্রহ পায়নি পারটেক্স স্পোর্টিং ক্লাব। ৭ উইকেটে স্কোরবোর্ডে যোগ হয় ১৩৪ রান। যা ফজলের রাব্বির ক্যারিয়ার সেরা টি-টোয়েন্টি ইনিংসে ৫ উইকেট হাতে রেখেই তাড়া করে প্রাইম দোলেশ্বর।

টস হেরে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই ওপেনার আব্বাস মুসাকে (৫) হারায় পারটেক্স স্পোর্টিং ক্লাব। তবে আরেক ওপেনার মোহাম্মদ হাসানুজ্জামান খেলেছেন ২৯ বলে ৪৪ রানের ঝড়ো ইনিংস। পাওয়ার প্লেতে ১ উইকেটে স্কোরবোর্ডে ৫০ রান।

তবে এমন শুরু ধরে রাখতে পারেনি পারটেক্স। ৪ চার ৩ ছক্কায় ৪৪ রান করে হাসানুজ্জামান বিদায় নেন তৃতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে। অধিনায়ক তাসামুল হক খেলেছেন ২৭ বলে ২২ রানের টি-টোয়েন্টির সাথে বেমানান ইনিংস।

শেষদিকে মইন খানের ২৩ বলে ১ চার ৩ ছক্কায় ৩৩ রানের ইনিংসে ৭ উইকেটে ১৩৪ রানে থামে পারটেক্স। প্রাইম দোলেশ্বরের হয়ে সর্বোচ্চ দুইটি উইকেট অধিনায়ক ফরহাদ রেজার। শামীম পাটোয়ারী, এনামুল হক জুনিয়র, কামরুল ইসলাম রাব্বি, রাইহান উদ্দিন ও রেজাউল রহমান রেজা নেন একটি করে উইকেট।

লক্ষ্য তাড়ায় নেমে বাজে শুরু প্রাইম দোলেশ্বরেরও। ইনিংসের প্রথম ওভারেই ওপেনার আসিফ আহমেদকে খালি হাতে ফেরান পেসার জয়নুল ইসলাম। পরের ওভারেই আরেক ওপেনার ইমরান উজ্জামানকে (১) ফেরান পেসার শাহাদাত হোসেন।

১ রানে ২ উইকেট হারানো প্রাইম দোলেশ্বরকে পথ দেখান সাইফ হাসান ও ফজলে রাব্বি। দুজনে জুটিতে যোগ করে ৭১ রান। ২৬ বলে ধীরগতির ২০ রানের ইনিংস খেলে আউট হন সাইফ। মার্শাল আইয়ুবও (১৫ বলে ১৬) ফিরেছেন দ্রুত, বোল্ড হয়েছেন মেহরাব হোসেন জোশির বলে।

তবে ফিফটি তুলে নেওয়া ফজলে রাব্বির ব্যাটে জয়ের অথে অস্বস্তির দেখা পায়নি প্রাইম দোলেশ্বর। যদিও ১৯তম ওভারে ফিরেছেন শাহাদাত হোসেনের দ্বতীয় শিকার হয়ে। ততক্ষণে দল জয় থেকে মাত্র ১১ রান দূরে। আউট হওয়ার আগে স্বীকৃত টি-টোয়েন্টিতে নিজের তৃতীয় ফিফটি তুলে নেন।

৪১ বলে ফিফটি ছুঁয়ে ফিরেছেন ৫৭ বলে ৭ চার ৩ ছক্কায় ৭১ রানের ক্যারিয়ার সেরা ইনিংস খেলে। শেষ পর্যন্ত শামীম পাটোয়ারী ও ফরহাদ রেজার (৬*)ব্যাটে ৪ বল ও ৫ উইকেট হাতে রেখেই জয় পায় প্রাইম দোলেশ্বর। জয়সূচক ছক্কা হাঁকানো শামীম অপরাজিত ছিলেন ৯ বলে ১৪ রানে।

পারটেক্সের হয়ে ৪ ওভারে ১ মেডেনসহ ২০ রান খরচায় শাহাদাতের শিকার ২ উইকেট। ৭১ রানের ইনিংসে ম্যাচ সেরার পুরষ্কার উঠলো ফজলে রাব্বির হাতে।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

পারটেক্স স্পোর্টিং ক্লাব ১৩৪/৭ (২০), মুসা ৫, হাসানুজ্জামান ৪৪, জয়রাজ ১২, তাসামুল ২২, ধীমান ৭, মইন ৩৩, রাজিবুল ৫, মেহরাব ২*, জয়নুল ০*; এনামুল জুনিয়র ৪-০-২৪-১, শামীম ১-০-৫-১, ফরহাদ ৪-০-১৮-২, রাব্বি ৪-০-৪৭-১, রায়হান ৩-০-২৪-১, রাজা ৪-০-১৬-১

প্রাইম দোলেশ্বর স্পোর্টিং ক্লাব ১৩৬/৫ (১৯.২), ইমরান ১, আসিফ ০, সাইফ ২০, রাব্বি ৭১, মার্শাল ১৬, শামীম ১৪*, ফরহাদ ৬*; জয়নুল ৩.২-০-২৩-১, শাহাদাত ৪-১-২০-২, মেহরাব ৩-০-৩৩-১, মইন ৪-০-২৩-১

ফলাফলঃ প্রাইম দোলেশ্বর স্পোর্টিং ক্লাব ৫ উইকেটে জয়ী

ম্যাচসেরাঃ ফজলে মাহমুদ রাব্বি (প্রাইম দোলেশ্বর স্পোর্টিং ক্লাব)।

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

আড়াইদিনেই ম্যাচ জিতল দক্ষিণ আফ্রিকা

Read Next

আবাহনীর পর ওল্ড ডিওএইচএসকেও হারাল মোহামেডান

Total
1
Share