সাকিবকে নিয়ে মোহামেডানের ভার্চুয়াল শুনানি, সতর্কতাতেই ইতি টানলো সিসিডিএম

অধিনায়ক হয়েই মোহামেডানের শিরোপা আক্ষেপ দূর করতে চান সাকিব

সাকিব আল হাসানের অনুশীলনে বায়ো-বাবল লঙ্ঘন ইস্যুতে মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবকে কারণ দর্শানো নোটিশ দিয়েছিল বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) ও ক্রিকেট কমিটি অব ঢাকা মেট্রোপলিস (সিসিডিএম)। তার প্রেক্ষিতেই মঙ্গলবার ভার্চুয়াল শুনানি অনুষ্ঠিত হয়। যেখানে মোহামেডান কর্তৃপক্ষ নিজেদের দিক থেকে দুঃখ প্রকাশ করে, উপস্থিত ছিলেন সাকিবও। টুর্নামেন্টের বাকি অংশে এমন কিছু যাতে আর না ঘটে তা নিয়ে শক্ত অবস্থানে সিসিডিএম।

মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবের অধিনায়ক সাকিব আল হাসান গত ৪ জুন মিরপুরে ঐচ্ছিক অনুশীলন করেন। দলটির কোচ ও সাপোর্ট স্টাফরাও সঙ্গ দেন তাকে, কিন্তু বায়ো-বাবল ভেঙে ঐ অনুশীলনে দেখা যায় একজন বহিরাগতকে। ছিল তার একাডেমির মাসকোর কয়েকজন নেট বোলারও। যদিও তারা করোনা পরীক্ষা সাপেক্ষেই প্রবেশ করেন। কিন্তু নিজেকে সাকিব ভক্ত দাবি করা ঐ বহিরাগতই বিষয়টিকে জটিল করে তোলে।

গণমাধ্যমের ক্যামেরা হয়ে এই দৃশ্য নজরে আসে সিসিডিএমের। পরদিনই তারা সংবাদ বিজ্ঞপ্তির বরাত দিয়ে জানিয়েছে বিষয়টিকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে তদন্ত শুরু করেছে। কারণ দর্শানো নোটিশ দেওয়া হয় মোহামেডানকে। মঙ্গলবার সেটিরই ভার্চুয়াল শুনানি অনুষ্ঠিত হয়।

বুধবার বিসিবির পাঠানো এক ভিডিও বার্তায় সিসিডিএম চেয়ারম্যান কাজী ইনাম এ প্রসঙ্গে বলেন, ‘গতকাল ৮ জুন আমরা বিসিবি ও সিসিডিএম থেকে একটি হিয়ারিংয়ের আয়োজন করেছি। আপনারা অবগত আছেন সিসিডিএমের অধীনে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ আয়োজিত হচ্ছে, সেখানে মোহামেডানের অনুশীলনে বায়োবাবল ভেঙেছে।’

‘আমাদের বিসিবি পরিচালক জালাল ইউনুস, বিসিবি প্রধান নির্বাহী, সিসিডিএমের সদস্য সচিব ও মোহামেডানের টপ ম্যানেজম্যান্ট ও সাকিব আল হাসান উপস্থিত ছিলেন। অপ্র্যতাশিত ভাবে যেটা ভঙ্গ হয়েছে এটা নিয়ে তারাও সতর্ক, তারা দুঃখ প্রকাশ করেছে।’

এদিকে ভবিষ্যতে আরও সতর্ক হতে মোহামেডানকে ফের চিঠি দেওয়া হবে বলেও জানান কাজী ইনাম। অন্যান্য দলগুলো সাথেও বায়ো-বাবল সুরক্ষা নিশ্চিতে নতুন করে আলোচনা করেছে সিসিডিএম।

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

অথচ অ্যান্ডারসন ভেবেছিলেন তিনি যথেষ্ট যোগ্য নন

Read Next

ভারতের শ্রীলঙ্কা সফরের সূচি প্রকাশ

Total
1
Share