অভিষেকের পরই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে নিষিদ্ধ ওলি রবিনসন

অভিষেকের পরই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে নিষিদ্ধ ওলি রবিনসন

টেস্ট অভিষেকের দিনই আট বছর আগে করা ওলি রবিনসনের একাধিক বৈষম্যমূলক টুইট ভাইরাল হয়। বর্ণ বাদ এবং লিঙ্গ বৈষম্যমূলক টুইটের জেরে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে নিষিদ্ধ হলেন ওলি রবিনসন। তাঁর পুরনো টুইটের কারণে তদন্ত শুরু করে ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড। আর লর্ডস টেস্টের পরেই ইসিবি’র (দ্য ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড) পক্ষ হতে জানিয়ে দেওয়া হল তদন্ত চলাকালীন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের বাহিরে থাকবেন রবিনসন।

লর্ডস টেস্টে ইংল্যান্ডের জার্সিতে আন্তর্জাতিক মঞ্চে অভিষেকেই ওলি রবিনসন নজর কেড়ে নিয়েছেন বল হাতে। প্রথম ইনিংসে চার উইকেট। দ্বিতীয় ইনিংসে তাঁর দখলে তিন উইকেট। এমন দুর্দান্ত অভিষেকের পরই নির্বাসনে কাটাতে হবে তাঁকে। এক বিবৃতি দিয়ে ওলি রবিসনকে সাসপেন্ড করার তথ্য নিশ্চিত করেছে ইংল্যান্ড ও ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড (ইসিবি)।

নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে নিজের টেস্ট অভিষেকে বল হাতে নজর কাড়লেও, দ্বিতীয় টেস্টের দলে থাকবেন না তিনি। আগামী ১০ জুন থেকে নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে শুরু হতে চলা দ্বিতীয় টেস্টের জন্য তাঁর নাম বিবেচনা করা হবে না বলে জানিয়েছে ইংল্যান্ড ও ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড (ইসিবি)। স্বাভাবিকভাবেই জাতীয় দল ছেড়ে রবিনসনকে তাঁর কাউন্টি ক্লাব সাসেক্সে ফিরে যাওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

দীর্ঘদিন আগে সোশ্যাল মিডিয়ায় তাঁর করা বর্ণবিদ্বেষী মন্তব্য হঠাৎই ভাইরাল হয়েছে। এরপরেই নড়েচড়ে বসেছে ইসিবি। ২০১২, ২০১৩ ভাইরাল হওয়া টুইটগুলি রবিনসন যখন করেছিলেন তখন তাঁর বয়স ছিল ১৮-১৯। যদিও ইতিমধ্যেই নিজের ভুল স্বীকার করে ক্ষমা চেয়ে নিয়েছেন রবিনসন, তবে শাস্তি এড়াতে পারলেন না।

কারণ যে কোন ধরণের বৈষম্যতার বিরুদ্ধেই ইসিবির জিরো টলারেন্স নীতি এবং এই ধরণের ব্যবহারের বিরুদ্ধে একাধিক শাস্তির ব্যবস্থাও রয়েছে তাঁদের।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

কোহলির সঙ্গে সরফরাজের মিল খুঁজে পেলেন ফাফ

Read Next

নাটকীয় ম্যাচে শেষ হাসি হাসল ব্রাদার্স ইউনিয়ন

Total
16
Share