স্বাগতিক ভারতই, তবে মধ্যপ্রাচ্যেও ভেন্যু খুঁজছে আইসিসি

ভারতে সেরা টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আয়োজন হবেঃ সৌরভ

চলতি বছরে আছে আইসিসি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ, আছে ১ম ওয়ার্ল্ড টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনাল। ২০২২ সালে আরেকটি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ, ২০২৩ সালে ক্রিকেট বিশ্বকাপ। আইসিসি ইভেন্টের ছড়াছড়ি। ১ জুন ২০২৪ থেকে ২০৩১ সালের আইসিসি ইভেন্টের বৃত্তান্তও প্রকাশ করেছে আইসিসি।

পড়ুনঃ বিশ্বকাপ ও টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে বাড়ছে দল, ফিরছে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি

এসব আইসিসি টুর্নামেন্টে (পুরুষ, নারী ও যুবাদের) স্বাগতিক নির্ধারণ করার প্রক্রিয়া চূড়ান্ত করে ফেলেছে আইসিসি। পুরুষ ক্রিকেটারদের ইভেন্টগুলোর স্বাগতিক চূড়ান্ত হবে সেপ্টেম্বরে। স্বাগতিক খোজার প্রক্রিয়া অবশ্য শুরু হবে চলতি মাস থেকেই।

নারীদের ও অনূর্ধ্ব-১৯ দলের ইভেন্টগুলোর স্বাগতিক খোঁজার প্রক্রিয়া শুরু হবে নভেম্বরে। যেখানে অনেক সদস্য দেশের সামনে প্রথমবারের মতো স্বাগতিক হবার সুযোগ আসবে।

২০২১ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ মাঠে গড়ানোর আর খুব বেশি সময় বাকি নেই। হোস্ট হিসাবে ভারতের নাম চূড়ান্ত থাকলেও কোন দেশে টি-টোয়েন্টির বিশ্ব আসর মাঠে গড়াবে তা এখনও নিশ্চিত না। চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে চলতি মাসের শেষের দিকে।

ম্যানেজমেন্টকে আইসিসি বোর্ড অনুরোধ করেছে অন্য দেশে এটি আয়োজন করার জন্য প্রস্তুতি নিয়ে রাখতে। চলমান কোভিড বাস্তবতায় ভারতে আয়োজন করা না গেলে সংযুক্ত আরব আমিরাত ও মধ্যপ্রাচ্যের আরএক দেশে হবে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ।

আইসিসি ইভেন্ট শিডিউল ও স্বাগতিক নির্ধারণ ইস্যুতে আইসিসির ভারপ্রাপ্ত প্রধান নির্বাহী জিওফ এলার্ডিস বলেন, ‘স্বাগতিক নির্বাচনে আমাদের পরবর্তিত প্রক্রিয়া আমাদেরকে ফ্লেক্সিবিলিটি দিবে খেলাটাকে আরো জনপ্রিয় করতে ও নতুন সমর্থক তৈরিতে। পুরুষদের ইভেন্ট আয়োজনে যেসব যোগ্যতা লাগে তা কেবল কয়েকটা দেশের আছে বলে আমাদের নির্বাচনী প্রক্রিয়া গন্ডিবদ্ধ হয়ে যায়। তবে আমাদের কিছু সদস্য দেশ নারী ও যুবাদের ইভেন্ট আয়োজনে আগ্রহ দেখিয়েছে যা আমাদের সুসংগঠিত ও উঠতি দেশগুলোতে ইভেন্ট আয়োজনের সুযোগ তৈরি করে দিয়েছে।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

বিশ্বকাপ ও টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে বাড়ছে দল, ফিরছে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি

Read Next

গাপটিলের দক্ষতা শিখতে চাইছেন বাবর

Total
1
Share