টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে থাকছে রিজার্ভ ডে

টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে থাকছে রিজার্ভ ডে

আইসিসি (দ্য ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল) আজ (২৮ মে) আইসিসি ওয়ার্ল্ড টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ফাইনালের প্লেয়িং কন্ডিশন প্রকাশ করেছে। জুনে সাউদাম্পটনের হ্যাম্পশায়ার বোলে ফাইনালে লড়বে ভারত ও নিউজিল্যান্ড।

প্লেয়িং কন্ডিশনে নিশ্চিত করা হয়েছে যে যদি ম্যাচ ড্র বা টাই হয় তাহলে দুই দলকে যৌথ চ্যাম্পিয়ন ঘোষণা করা হবে। ম্যাচের জন্য রাখা হয়েছে রিজার্ভ ডে। ফাইনাল ম্যাচের পাঁচ দিনে কোন কারণে খেলা না হলে সেই সময় পুষিয়ে নেওয়া হবে রিজার্ভ ডে তে।

১৮ থেকে ২২ জুন মাঠে গড়াবে ফাইনাল, ২৩ জুন রাখা হয়েছে রিজার্ভ ডে হিসাবে। যৌথ বিজয়ী ও রিজার্ভ ডে রাখার সিদ্ধান্ত অবশ্য এসেছিল ২০১৮ সালের জুনে, আইসিসি ওয়ার্ল্ড টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ফাইনাল শুরু হবার আগে।

রিজার্ভ ডে রাখা হয়েছে পাঁচ দিনের পুর্নাঙ্গ সময়ের খেলা (৪৫০ ওভার) নিশ্চিত করতে। রিজার্ভ ডে তখনই আমলে নেওয়া হবে যদি পুরো সময়ের খেলা ৫ দিনে শেষ না করা যায়। ৫ দিনের পুর্নাঙ্গ সময়ের খেলা শেষ হবার পরে ফল না আসলে ড্র হবে ম্যাচ, রিজার্ভ ডে তে গড়াবে না।

ম্যাচে সময় নষ্ট হচ্ছে কিনা সেটা আইসিসি ম্যাচ রেফারি নিয়মিত অংশগ্রহণকারী দুই দল ও মিডিয়াকে জানাবে। রিজার্ভ ডে ব্যবহার করা হবে কি হবে না সেটা নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত আসবে ৫ম দিনের শেষ ঘন্টায়।

খেলাটি হবে গ্রেড ১ এর ডিউক বল দিয়ে।

টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে আরো কিছু নিয়ম সংযুক্ত হবে যা কার্যকর হচ্ছে আজকের বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা ৩য় ওয়ানডে থেকেই।

শর্ট রান- তৃতীয় আম্পায়ার অন ফিল্ড আম্পায়ারের দেওয়া প্রতিটি শর্ট রান রিভিউ করবে। এবং পরবর্তী বল হবার আগে অন ফিল্ড আম্পায়ারের সঙ্গে যোগাযোগ করবে।

প্লেয়ার রিভিউ- ফিল্ডিং অধিনায়ক বা আউট হওয়া ব্যাটসম্যান লেগ বিফোর উইকেটের বিপক্ষে রিভিউ নেবার আগে আম্পায়ারের সাথে আলোচনা করে নিশ্চিত হতে পারবে যে বল খেলার জন্য ব্যাটসম্যান অ্যাটেম্পট করেছিলেন কিনা।

ডিআরএস রিভিউ- লেগ বিফোর উইকেট রিভিউ এর ক্ষেত্রে উইকেট জোন স্টাম্পের সর্বোচ্চ অবস্থান অব্দি বাড়ানো হয়েছে। এতে করে হাইট ও ওয়াইড দুই ক্ষেত্রেই একইর রকম আম্পায়ার্স কল মার্জিন থাকছে।

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

৩ অভিষিক্ত ক্রিকেটার নিয়ে আগে ব্যাটিংয়ে শ্রীলঙ্কা

Read Next

টাইগারদের বড় লক্ষ্য ছুঁড়ে দিল শ্রীলঙ্কা

Total
1
Share