লোয়ার মিডলে সফল রিয়াদ অভিজ্ঞতা ভাগ করেন ব্যর্থদের সাথেও

লোয়ার মিডলে সফল রিয়াদ অভিজ্ঞতা ভাগ করেন ব্যর্থদের সাথেও

লোয়ার মিডলে বাংলাদেশের অন্যতম ভরসার নাম মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। দলের বিপদে হাল ধরা কিংবা শেষদিকে দ্রুতগতিতে কিছু বাড়তি রান যোগ করার কাজটা বেশ দারুণভাবেই করছেন। চলতি শ্রীলঙ্কা সিরিজেও মুশফিকুর রহিমের সাথে জুটি বেঁধে দলকে পথ দেখিয়েছেন। তবে লোয়ার মিডলে খেলা তরুণদের কাছ থেকে প্রত্যাশিত ফল পাচ্ছেনা বাংলাদেশ। রিয়াদ বলছেন নিজের সফল হওয়ার পন্থা ভাগাভাগি করেন তরুণদের সাথেও।

লোয়ার মিডলে রিয়াদ ছাড়া ধারাবাহিকভাবে সফল হতে পারছেন না আফিফ হোসেন, মোসাদ্দেখ হোসেন সৈকত, মেহেদী হাসান মিরাজরা। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে চলমান সিরিজে এক ইনিংসে সুযোগ পেয়ে মোসাদ্দেকের রান ১০, আফিফের ৩৭ (২৭* ও ১০), এক ইনিংস ব্যাট করে মিরাজ ফিরেছেন খালি হাতে।

যেখানে দলের বিপদে রিয়াদ প্রথম ম্যাচে ৫৪ ও দ্বিতীয় ম্যাচে ৪১ রানের ইনিংস খেলেন। আগামীকাল (২৮ মে) তৃতীয় ও শেষ ম্যাচের আগে রিয়াদের জন্য প্রশ্ন তার নিজের সফল হওয়ার পন্থা কি ভাগাভাগি করেন তরুণদের সাথে? কিংবা তরুণরাও কি পরামর্শের জন্য তার কাছে আসেন কিনা?

মিরপুরে সাংবাদিকদের রিয়াদ বলেন,

‘আমার মনে হয় যেহেতু আমি লেট মিডল অর্ডারে ব্যাটিং করি অনেক সময় আমার ৩০-৪০ ও আনকাউন্টেবল হয়ে যায়। বাট আমি যেটা বললাম যে আমাকে পরিস্থিতি বুঝে ব্যাটিং করতে হয়। তো দলের জন্য সঠিক সময়ে যে অবদান রাখতে হয় ওটাই আমার লক্ষ্য থাকে এবং হ্যাভিং সেইড দ্যাট অন্যান্য প্লেয়ারদের সাথেও আমার কথা হয়। আফিফ আছে যারা লেইট মিডল অর্ডারে ব্যাটিং করছে তারা বেশ সামর্থ্যবান।’

‘ওদেরে সঙ্গে প্রায় সময়ই কথা হয়। আমার অভিজ্ঞতা ভাগাভাগি করতে আমি পছন্দ করি। তাদের ভাবনাগুলোও আমার দিক থেকে চিন্তা করি। এবং কিভাবে লেইট মিডল অর্ডারে ব্যাটিং করব, তাদের ভুমিকাটা কি হবে, আমরা যেন সেরা আউটপুটটা দলের জন্য দিতে পারি এটা সব সময় আমরা খেয়াল করি এবং চেষ্টা করি। হয়ত বা অনেক সময় আমরা ঠিকভাবে দিতে পারি অনেক সময় পারি না বাট ইচ্ছেটা সব সময়ই আছে।’

এদিকে ব্যাট হাতে সাকিব আল হাসান সিরিজে নিজের ছায়া হয়েই আছেন। ২ ম্যাচে তার রান ১৫ (০ ও ১৫)। সাকিবের চেনা রূপে ফেরার ব্যাপারে শঙ্কিত নন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।

রিয়াদ বলেন,

‘সাকিব নিয়ে বলার কিছু নাই। সে তার খেলা সম্পর্কে ভালো জানে। ও জানে কখন কি করা প্রয়োজন। একটা ছেলে ১০-১২ বছর ধরে নাম্বার ওয়ান অলরাউন্ডার হয়ে আছে এটা কোন জোক না। ও জানে ওর ব্যাটিং কখন করা প্রয়োজন, কখন কতটুকু ব্যাটিং করলে ওর জন্য ভাল হবে। হয়ত বা প্রথম ম্যাচে ভাল একটা শুরু পেয়েছিল কিন্তু কাজে লাগাতে পারেনি। কিন্তু আমি খুবই নিশ্চিত যে কালকের ম্যাচে ভাল ইনিংস খেলবে।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

ক্যারিয়ার সেরা ফিটনেস লেভেলে আছেন রিয়াদ, সাফল্য পেতে যেভাবে নেন প্রস্তুতি

Read Next

সব ভালো দিয়ে শেষ করতে চায় বাংলাদেশ

Total
9
Share