শ্রীলঙ্কা সিরিজেই আফিফদের কাছ থেকে পারফরম্যান্স চান ডোমিঙ্গো

শ্রীলঙ্কা সিরিজেই আফিফদের কাছ থেকে পারফরম্যান্স চান ডোমিঙ্গো

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজ এমনিতে গুরুত্বপূর্ণ বাংলাদেশের জন্য। ওয়ার্ল্ড কাপ সুপার লিগ বলে পূর্ণ ৩০ পয়েন্ট অর্জন করাটা থাকছে লক্ষ্য হিসেবে। তবে কোচ রাসেল ডোমিঙ্গো সিরিজটিকে দেখছেন তরুণদের পারফর্ম করার মঞ্চ হিসেবে। নিউজিল্যান্ড সিরিজে বেসিকে ঘাটতি থাকলেও আসন্ন এই সিরিজে সেটা কাটিয়ে উঠবে বাংলাদেশ বিশ্বাস ডোমিঙ্গোর।

সিরিজের প্রথম ম্যাচ মাথে গড়াবে আগামীকাল (২৩ মে) মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে। তার আগে আজ ম্যাচ পূর্ববর্তী দিনে ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে কথা বলেন টাইগার কোচ রাসেল ডোমিঙ্গো।

সিরিজে লঙ্কানরা তরুণদের বাজিয়ে দেখতে চায় ২০২৩ বিশ্বকাপ সামনে রেখে। বাংলাদেশ সফরের স্কোয়াড থেকে বাদ দেয়া হয় নিয়মিত ওয়ানডে অধিনায়ক দিমুথ করুনারত্নে, দীনেশ চন্দিমাল, অ্যাঞ্জেলা ম্যাথুসের মত সিনিয়রদের। বাংলাদেশের এমন কোনো পরিকল্পনা আছে কিনা জানতে চাইলে ডোমিঙ্গো জানান তরুণদের সুযোগ দেয়ার পক্ষে তিনি।

তার মতে, ‘আমাদের মুশফিক, রিয়াদ, তামিম ও সাকিবের মত অভিজ্ঞ ক্রিকেটার আছে। তরুণ খেলোয়াড়রাও উঠে আসছে যাদের সুযোগ দেওয়া প্রয়োজন। আফিফের মত খেলোয়াড়রা এই সিরিজে দলে ভূমিকা রাখতে পারে। দলে চোটের সমস্যা থাকতে পারে, কেউ পারফর্ম করতে না পারে। তখন তরুণদের পারফর্ম করতে হবে।’

ওয়ানডে ফরম্যাটে বেসিক ঠিক রাখাটাই সাফল্য পাওয়ার পথে মূল ভূমিকা রাখে। ফলে বেসিক ঠিক রাখাতেই বাড়তি মনযোগ দিতে চায় রাসেল ডোমিঙ্গো।

তিনি যোগ করেন, ‘আমাদের বেসিক ভালো করতে হবে। সাম্প্রতিক সময়ে ওয়ানডেতে আমাদের বেসিক ভালো হচ্ছে না। তবে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ভালো খেলেছিল। আমরা বেসিকে মনোযোগ দিতে চাই। খুব জটিল করে ভাবার কিছু নেই। বেসিক ঠিক রাখলেই হবে। এই ফরম্যাটে এটুকু করতে পারলেই সাফল্য সম্ভব।’

সিরিজে বেশিরভাগ কোচিং স্টাফকেই পাচ্ছেনা বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা। পারিবারিক কারণে নেই পেস বোলিং কোচ ওটিস গিবসন ও ফিল্ডিং কোচ রায়ান কুক। নিয়মিত স্পিন কোচ ড্যানিয়েল ভেট্টোরি কোভিড পরিস্থিতির কারণে নেই লম্বা সময় ধরে, তার অবর্তমানে কাজ করা বিসিবি কোচ সোহেল ইসলামও পারিবারিক কারণে শ্রীলঙ্কা সিরিজ থেকে ছুটিতে। এমন অবস্থায় অবশ্য দলের ক্রিকেটারদের সমস্যা হচ্ছেনা বলেছেন প্রধান কোচ ডোমিঙ্গো।

তিনি বলেন, ‘মোটেও না। ছেলেরা অনেকদিন ধরে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলছে, তারা জানে কীভাবে কী করতে হয়। পুরো কোচিং প্যানেল নেই এটা স্বস্তিকর নয়। তবে আমার সাথে বাবুল ও তালহা আছে (বিসিবি কোচ মিজানুর রহমান বাবুল ও তালহা জুবায়ের), অনেক সহায়তা করছে দলকে। মাঠে অধিনায়কই সব সিদ্ধান্ত নেয়। তাই কোচদের অনুপস্থিতি প্রভাব ফেলবে না।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

তামিমের সঙ্গী লিটনই, আফিফের সাথে লড়াই মোসাদ্দেকের

Read Next

সাইফউদ্দিনের ব্যাকআপ হিসেবে শহিদুলকে ভাবছেন ডোমিঙ্গো

Total
1
Share