করোনার প্রভাবে ইসিবির ক্ষতি ১৬.১ মিলিয়ন পাউন্ড

করোনার প্রভাবে ইসিবির ক্ষতি ১৬.১ মিলিয়ন পাউন্ড

দ্য ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড (ইসিবি) তাদের গত আর্থিক বছরের রিপোর্ট প্রকাশ করেছে। এই আর্থিক বছরে তাদের ক্ষতি হয়েছে ১৬.১ মিলিয়ন পাউন্ড। করোনা ভাইরাসের প্রভাবে ইসিবির ক্যাশ রিজার্ভ ২.২ মিলিয়ন পাউন্ড হ্রাস পেয়েছে।

২০২০ সালের জুলাই থেকে সেপ্টেম্বরের মধ্যে ইংল্যান্ড তাদের ঘরের মাঠে ওয়েস্ট ইন্ডিজ, আয়ারল্যান্ড, পাকিস্তান ও অস্ট্রেলিয়াকে আতিথ্য দিয়েছে। ইংল্যান্ডের পুরুষ দল খেলেছে তিন ভিন্ন ফরম্যাটেই। অন্যদিক ইংলিশ নারীরা ৫ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ নারী দলের বিপক্ষে। সব খেলাই হয়েছে ক্লোজ ডোরে, দর্শক ছাড়া।

ইসিবির প্রধান ফিন্যান্সিয়াল অফিসার স্কট স্মিথ জানান, ‘এটা একটা চ্যালেঞ্জিং বছর ছিল। তবে মহামারীর শুরুতে আমরা সঠিক সিদ্ধান্ত নিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট মাঠে গড়িয়ে আর্থিক অবস্থা আরও খারাপ হওয়ার হাত থেকে বাঁচাতে পেরেছি।’

‘সামনের বছরগুলোতেও অনিশ্চয়তা আছে। তবে আমরা আশাবাদী এক ক্রিকেট ভরা গ্রীষ্মের। দর্শক আগামী সপ্তাহ থেকে ফিরতে শুরু করবে। আমরা আমাদের রেভিনিউ রক্ষা করতে পারছি যা আমাদের খেলার উন্নতির জন্য ইনভেস্ট করতে হবে।’

ইংল্যান্ড পুরুষ দল এই গ্রীষ্মে ফরম্যাট ভেদে নিউজিল্যান্ড, শ্রীলঙ্কা ও পাকিস্তানের মুখোমুখি হবে। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ শুরু হবে ২ জুন থেকে।

জুনে ভারত ও নিউজিল্যান্ড নারী দলের বিপক্ষে খেলবে ইংল্যান্ড নারী দল।

উল্লেখ্য, ১৬.১ মিলিয়ন পাউন্ড ক্ষতির আগের বছর ইসিবির লাভ হয়েছিল ৬.৫ মিলিয়ন পাউন্ড। ২০১৬ সালে ইসিবির ক্যাশ রিজার্ভ ছিল ৭০ মিলিয়ন পাউন্ড।

গেল বছর দ্য হান্ড্রেড এর স্থগিত হওয়া ও আন্তুরজাতিক সিরিজের জন্য বায়ো বাবল তৈরি করার কারণে ইসিবির রেভিনিউ ২১ মিলিয়ন পাউন্ড কমে ২০৭ মিলিয়ন পাউন্ডে এসে ঠেকেছে।

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

পিএসএল নয়, ডিপিএলে খেলবেন সাকিব

Read Next

অবসরের ঘোষণা দিলেন বিজে ওয়াটলিং

Total
12
Share