দেশে ফিরেই ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে তামিম-মুশফিকরা

দেশে ফিরেই ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে তামিম-মুশফিকরা

শ্রীলঙ্কা সফর শেষে দেশে ফেরা বাংলাদেশ জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের থাকতে হচ্ছে ১৪ দিনের বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টাইনে। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে হোম সিরিজ বিবেচনায় নিয়ে কোয়ারেন্টাইনের এই সময়টাও অবশ্য কমানো যায় কিনা সেটার চেষ্টা করছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

সাম্প্রতিক সময় দেশের করোনা পরিস্থিতি খারাপের দিকে যাওয়াতে সরকার বেশ কিছু কঠোর বিধি নিষেধ আরোপ করে। যার মধ্যে বিদেশ ফেরতদের বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টাইন অন্যতম। ‘সি’ ক্যাটাগরিতে পড়া শ্রীলঙ্কা ফেরত বাংলাদেশ দলের জন্য নিয়মানুসারে সময়টা ১৪ দিন।

আজ (৪ মে) দুপুর ৩ টা ২৫ মিনিটে হজরত শাহ জালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে টাইগার ক্রিকেটারদের বহনকারী চাটার্ড বিমানটি। সেখান থেকে সরকারী নিয়মানুসারে দলের খেলোয়াড় ও সাপোর্ট স্টাফরা নিজ নিজ বাসায় চলে যান। থাকতে হচ্ছে হোম কোয়ারেন্টাইনে।

‘ক্রিকেট৯৭’ কে বিসিবির প্রধান চিকিৎসক দেবাশীস চৌধুরী বলেন, ‘গত ৩০ তারিখ একটি সরকারী প্রজ্ঞাপন জারি হয়। প্রজ্ঞাপন অনুসারে সি ক্যাটাগরিতে পড়ে এমন বিদেশ ফেরতদের জন্য ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইন বাধ্যতামূলক। আমাদের ক্রিকেটাররা শ্রীলঙ্কা থেকে ফেরায় সি ক্যাটাগরিতে পড়েছে এবং হোম কোয়ারেন্টাইন তাদের জন্য বাধ্যতামূলক হয়েছে।’

তবে চলতি মাসের ১৬ তারিখ তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজ খেলতে বাংলাদেশে আসার কথা শ্রীলঙ্কার। তাদের ক্ষেত্রেও কোয়ারেন্টাইন জটিলতা থাকছে। এদিকে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে থাকার ফলে শ্রীলঙ্কা সিরিজের আগে প্রস্তুতিতে ঘাততি থাকবে বাংলাদেশেরও। ফলে ২৩ মে থেকে শুরু হওয়া সিরিজ সামনে রেখে সরকারের সাথে আলাপ আলোচনা চালিয়ে চাচ্ছে বিসিবি। যাতে করে কোয়ারেন্টাইনের এয়াদ কমানো যায়।

দেবাশীস চৌধুরী বলেন, ‘ওরা (ক্রিকেটাররা) এসেছে, এখন কোয়ারেন্টাইন শুরু করুক, বিশ্রামে থাকুক কয়দিন। আমরা এর মধ্যে আলাপ আলোওচনা চালিয়ে যাচ্ছি, যেহেতু আমাদের দরকার। এটাতো আসলে বিসিবির সিদ্ধান্ত না, সরকারের সিদ্ধান্ত। আমরা আমাদের আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছি।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

করোনা পজিটিভ ঋদ্ধিমান সাহা ও অমিত মিশ্র

Read Next

হতাশ ডোমিঙ্গোকে ‘এক্সাইটেড’ করেছে যা

Total
3
Share