মোসাদ্দেকের মিশন ‘স্লোয়ার ও ইয়র্কার’ সামলানো

মোসাদ্দেকের মিশন 'স্লোয়ার ও ইয়র্কার' সামলানো
Vinkmag ad

আধুনিক ক্রিকেটে একজন ফিনিশারকে হতে হয়ে বেশ দক্ষ, ডেথ ওভারে প্রতিপক্ষের সেরা বোলারকে সামলে নিজ দলকে পৌঁছে দিতে হয় লক্ষ্যে। কাজটা কোনভাবেই সহজ নয়, বরং দলের খারাপ সময়েতো অতি মাত্রার চ্যালেঞ্জিংও। মিডল অর্ডার সামলাতে গিয়ে এই ভূমিকা পালন করতে গিয়ে মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত বুঝে গেছেন তার উন্নতির জায়গা কোনটি। ফলে কাজ করছেন স্লোয়ার, ইয়র্কার সামলে রান করা নিয়ে।

নিউজিল্যান্ড সফরে হাঁটুর চোটে খেলতে পেরেছেন কেবল একটি টি-টোয়েন্টি। দেশে ফিরে চোটের তীব্রতা বাড়ায় বিবেচিত হননি শ্রীলঙ্কা সফরের টেস্ট দলে। তবে চোট কাটিয়ে ডাক পেয়েছেন শ্রীলোঙ্কার বিপক্ষে ঘরের মাঠে ওয়ানডে সিরিজের প্রাথমিক স্কোয়াডে।

গতকাল (২ মে) থেকেই মিরপুরে অনুশীলন শুরু করেছে প্রাথমিক স্কোয়াডের দেশে থাকা ক্রিকেটাররা। আজ (৩ মে) অনুশীলন শেষে মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত জানালেন চোট কাটিয়ে ভালো অনুভব করছেন, নিজেকে ব্যাটিং, বোলিংয়ে আগের চেয়েও বেশি আত্মবিশ্বাসী ভাবছেন।

বিসিবির পাঠানো এক ভিডিও বার্তায় মোসাদ্দেক বলেন, ‘ইনজুরি থেকে সেরে ওঠার পর আমি ২-৩ দিন অনুশীলন করার সুযোগ পেয়েছি। এখানে (শুরু হওয়া অনুশীলন ক্যাম্প) আসার পরও দুইদিন অনুশীলন করলাম। অনেক ভালো অনুভব করছি। পায়ের যে অবস্থা ছিল সেখান থেকে অনেক উন্নতি হয়েছে। ব্যাটিং, বোলিং ও জিমও করলাম, কোনকিছুতেই সমস্যা মনে হচ্ছে না।’

‘অবশ্যই আগের থেকে অনেক বেশি আত্মবিশ্বাসী। কারণ এখন যখন আমি ব্যাটিং, বোলিং করছি। আমার মনে হচ্ছে আগের চেয়ে ভালো শেপে আছি। এই জায়গা থেকে বলবো যে আমি আগের চেয়ে বেশি আত্মবিশ্বাসী।’

দলের পরিস্থিতির কারণে ইতোমধ্যে নামের সাথে কিছুটা হলেও ফিনিশার তকমা লেগে গিয়েছে। বিশেষ করে ২০১৯ সালে আয়ারল্যান্ডে ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে তার ব্যাতে চড়েই ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হারিয়ে প্রথমবার বহুজাতিক কোন টুর্নামেন্ট জেতার পর পরিচয়ের গভীরতা বেড়েছে আরও।

ফিনিশার হিসেবে স্লোয়ার, ইয়র্কার সামলানোর কাজটা ভালোভাবে রপ্ত করছেন উল্লেখ করে মোসাদ্দেক যোগ করেন, ‘আসলে ফিনিশারের যে দায়িত্বটা থাকে, যখন ব্যাটিং করি হয়তো দলের খারাপ সময়টাতে দলকে ভালো অবস্থানে নিয়ে যাওয়া এবং ভালোভাবে ফিনিশ করা এটাই সবসময় কাজ থাকে। আর ভালো সময়েও ফিনিশ করার দায়িত্বটাও আমাদের উপর থাকে।’

‘নতুন করে কাজ করা বলতে এই সময়টাতে ইয়র্কার ও স্লোয়ার বেশি আসে আমরা জানি। আমি এটা নিয়েই কাজ করছি যে স্লোয়ার ও ইয়র্কার বলগুলো থেকে কিভাবে রান বের করতে পারবো। এর বাইরে আমি মনে করি নতুন করে কাজ করার কিছু নেই, তাই এ জায়গাটায় উন্নতি নিয়ে কাজ করছি।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

সাকিব-মুস্তাফিজদের দেশে ফেরার উপায় জানতে চেয়ে মন্ত্রণালয়ে বিসিবির চিঠি

Read Next

মুস্তাফিজের পারফরম্যান্স দেখে বড্ড খুশি সাবেক সতীর্থ

Total
9
Share