উইকেট দেখে তাইজুল বলছেন বিপদে পড়বেনা বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা

দুই বিতর্কিত রিভিউ নিয়ে যা বললেন তাইজুল
Vinkmag ad

দ্বিতীয় দিন শেষেও শ্রীলঙ্কার স্কোরবোর্ডে ৬ উইকেটে ৪৬৯ রান। পাল্লেকেলের উইকেটে বোলারদের জন্য এই টেস্টেও খুব একটা সহায়তা নেই বলছেন বাংলাদেশের বাঁহাতি স্পিনার তাইজুল ইসলাম। সময়ের সাথে সাথে উইকেটের চরিত্র হয়তো বদলাবে। তবে তাইজুল মনে করেন বাংলাদেশি ব্যাটসম্যানদের খুব বেশি পরীক্ষা নেয়ার মত উইকেটের পরিবর্তনের সম্ভাবনা কমই।

প্রথম টেস্ট রান বন্যা উপহার দিয়েছিল পাল্লেকেলের উইকেট। পঞ্চম দিনেও বোলারদের জন্য ছিল না কোন সাহায্য। ম্যাচ শেষে তাই নামের পাশে ডিমেরিট পয়েন্ট যোগ হয়েছিল ক্যান্ডির পাহাড়ে ঘেরা মাঠের উইকেটের।

দ্বিতীয় টেস্টে ভিন্ন চিত্রের আশা করেছিল দুই দলই। অন্তত প্রথম দুই দিনে সে আশায় গুড়ে বালিই বলতে হয়। প্রথম দিন ৯০ ওভারে উইকেট পড়েছে একটি, আজ দ্বিতীয় দিনে এক পর্যায়ে অবশ্য নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারিয়েছিল লঙ্কানরা। আগেরদিন ১ উইকেটে ২৯১ রান তোলা শ্রীলঙ্কা আজ ৩৮২ রানে হারায় ৬ উইকেট। সেখান থেকে নিরোশান ডিকওয়েলা ও রমেশ মেন্ডিশের ৮৭ রানের জুটি।

আজ লঙ্কানদের হারানো ৫ উইকেটের তিনটি পেসার তাসকিন আহমেদের। যেখানে উইকেটের চাইতে তার নিবেদনই বেশি ভূমিকা রেখেছে লঙ্কানদের সাঝঘরের পথ দেখাতে। এখনো পর্যন্ত লঙ্কান ইনিংসের ১৫৫.৫ ওভারের ৭২ ওভারই করেছে দুই স্পিনার তাইজুল ইসলাম (৩৮) ও মেহেদি হাসান মিরাজ (৩৪)। তবে দুজনের ভাগে জুটেছে কেবল একটি করে উইকেট।

দ্বিতীয় দিন শেষে তাইজুল জানালেন উইকেটে সেরকম টার্ন নেই, ফলে তৃতীয় দিনের মাঝামাঝি সময়ে ব্যাট করতে যাওয়া বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদের জন্য কাজটা কঠিন হবে না।

ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে তাইজুল বলেন, ‘না (ম্যাচের মাঝামাঝি সময়ে স্পিন সামলানো কঠিন হবে না)। এখানে প্রত্যেক বলে টার্ন হচ্ছে না, এখনই বোঝা কঠিন যে মাঝপর্যায়ে গিয়ে কেমন উইকেট হবে। তো আমি আশা করি যে খুব একটা খারাপ উইকেট হবে না।’

‘ওই রকম কোনো ফাটল নেই (উইকেটে)। এখন হয়তবা টার্ন করছে এখন মাঝেমধ্যে টার্ন করছে, এটা তো এমন না যে প্রতি বলে বলে টার্ন করবে। হয়ত বলের জন্য টার্ন করছে, অথবা হয়ত কিছু কিছু জায়গায় উইকেট অন্য রকম থাকতেও পারে, এটা কনফার্ম না যে অবস্থাটা কী, কিন্তু উইকেট দেখতে এখনও অনেক ভালো।’

পেসার, স্পিনার কারও জন্যই কোন সাহায্য নেই এমন উইকেটে আগুন ঝরাচ্ছেন তাসকিন আহমেদ, আবু জায়েদ রাহি, শরিফুল ইসলামরা। পেসারদের মধ্যে সর্বোচ্চ ৩২.৫ ওভার তাসকিনের, শরিফুল ২৯ ও রাহি ২২ ওভার বল করেছেন।

পেসারদের এমন সাহায্য দারুণ ভূমিকা রেখেছে স্পিনারদের জন্য বলছেন তাইজুল, ‘সর্বোপরি চিন্তা করলে সবাই ভালো বোলিং করছে, রান চেক বোলিং করছে। আর তাসকিন অনেক বেশি ভালো বোলিং করেছে, যেটার জন্য আসলে আমাদের স্পিনারদের রান চেক বোলিং করাটা সহজ হয়েছে।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

তাসকিনের অগ্নিঝরা বোলিংয়ের দিনে সুযোগ মিসের মহড়া

Read Next

ক্যাচ মিসের মহড়া শেষে যা বললেন তাইজুল

Total
28
Share