১১ ঘন্টা ব্যাট করেও ক্লান্তি উপভোগ করলেন করুনারত্নে

১১ ঘন্টা ব্যাট করেও ক্লান্ত হননি করুনারত্নে
Vinkmag ad

বাংলাদেশের বিপক্ষে সদ্য সমাপ্ত ক্যন্ডি টেস্টে ক্যারিয়ার সেরা ইনিংসের দেখা পেয়েছেন লঙ্কান দলপতি দিমুথ করুনারত্নে। ১১ তম টেস্ট সেঞ্চুরিকে রূপ দিয়েছেন প্রথম ডাবল সেঞ্চুরিতে, থেমেছেন ২৪৪ রানে। আউট হয়েছেন দল ইনিংস ঘোষণা করবে বলে তাড়াহুড়ো করতে গিয়ে। নাহয় অনবরত ব্যাট করে যেতেন পঞ্চম দিনও, বলছেন লঙ্কান দলপতি।

তৃতীয় দিন লাঞ্চের আগে ৭ উইকেটে ৫৪১ রান তুলে ইনিংস ঘোষণা করে বাংলাদেশ। নিজেদের প্রথম ইনিংসে ব্যাট করতে নামা লঙ্কান দুই ওপেনার লাহিরু থিরিমান্নে ও দিমুথ করুনারত্নে লাঞ্চের আগে ব্যাট করার সুযোগ পান ৮ ওভার। ঐ দিন অন্য প্রান্তে থিরিমান্নে ও অ্যাঞ্জেলা ম্যাথুসকে হারালেও ৮৫ রানে অপরাজিত থেকে দিন শেষ করেন করুনারত্নে।

চতুর্থ দিন টাইগার বোলারদের হতাশা উপহার দিয়ে কোন উইকেটই হারায়নি লঙ্কানরা। করুনারত্নে ক্যারিয়ারের ১১ তম সেঞ্চুরি তুলে নিয়ে ছুঁয়ে ফেলেন দেড়শো রান। সময়ের সাথে সাথে দেড়শোকে রূপ দেন ক্যারিয়ারের প্রথম ডাবল সেঞ্চুরিতে। ২৪৭ বলে সেঞ্চুরি, ৩১০ বলে দেড়শো ও ৩৮৭ বলে পৌঁছান ডাবল সেঞ্চুরিতে। পেছনে ফেলেন ২০১৭ সালে পাকিস্তানের বিপক্ষে আফসোসে পোড়া ক্যারিয়ার সেরা ১৯৬ রানকে।

ডাবল তুলেই থামেননি লঙ্কান অধিনায়ক। ধনঞ্জয়া ডি সিলভার সাথে ৩৪৫ রানের রেকর্ড জুটিতে নিজেও গড়েছেন ব্যক্তিগত রেকর্ড। তৃতীয় দিন দুই সেশনের বেশি সময় ও চতুর্থ দিন পুরো তিন সেশনে (যদিও আলোক স্বল্পতায় চতুর্থ দিন শেষ সেশনে কয়েক ওভার কম হয়েছিল) ব্যাট করে অপরাজিত ছিলেন ২৩৬ রানে।

পঞ্চম দিনের লাঞ্চের আগেই বাংলাদেশক ব্যাট করার সুযোগ দিতে গিয়ে কিছুটা তাড়াহুড়ো করেন করুনারত্নে। তাতে খুইয়েছেন নিজের উইকেট, তাসকিন আহমেদের বলে আউট হওয়ার আগে নামের পাশে ২৪৪। যা কোন শ্রীলঙ্কান অধিনায়কের তৃতীয় সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত রানের ইনিংস। প্রায় ১১ ঘন্টা (১০ ঘন্টা ৫৬ মিনিট) ক্রিজে টিকে ৪৩৭ বলে ২৬ চারে ইনিংসটি সাজান করুনারত্নে। লঙ্কান দলপতি ড্র হওয়া ম্যাচ শেষে জানিয়েছেন ক্লান্ত হলেও উপভোগ করেছেন ব্যাটিং। তাড়াহুড়ো না থাকলে পঞ্চম দিন পুরোটা সময় ব্যাট করলেও অবসাদ ভর করতোনা।

করুনারত্নে বলেন, ‘আপনি যখন কোনো টেস্ট খেলবেন আপনাকে মানসিকভাবে প্রস্তুত থাকতে হবে যে ফিল্ডিং হোক ব্যাটিং হোক আপনাকে পাঁচ দিন মাঠে থাকতে হবে। কউএকদিন ফিল্ডিং করলে হ্যাঁ আপনার শরীর সেটা টের পাবে। কিন্তু আপনি যখন ব্যাট করার সুযোগ এর পুরোটা আপনার লুফে নেয়া উচিত।’

‘যখন আমি একটা ভালো শুরু পেলাম সত্যি আমি এখানে লম্বা সময় ব্যাট করতে চেয়েছি। বিশেষ করে যখন তারা (বাংলাদেশ) বড় সংগ্রহ পেয়ে গেল। আমি সেটা করার সামর্থ্য রাখি। আমি ক্লান্ত হয়েছি, কিন্তু সত্যি আমি বেশ উপভোগ করেছি এটা। আপনি যখন এটা উপভোগ করবেন কোনোভাবেই ক্লান্তি অনুভব করবেন না। পঞ্চম দিন আমরা যখন একটা ভালো সংগ্রহ দাঁড় করেছি তখন ইনিংস ঘোষণা করতে চেয়েছি। কিন্তু আমরা যদি এমনটা না চাইতাম আমি পুরোদিন ব্যাত করতে পারতাম।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

অস্ট্রেলিয়াকে দিয়েই বিশ্বকাপ প্রস্তুতি শুরু করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ

Read Next

পরের টেস্টে ভিন্ন কিছু অপেক্ষা করছে বলছেন খালেদ মাহমুদ

Total
1
Share