রেকর্ড সংগ্রহের দিন নেপালের শিরোপা জয়

c97 4 26

ত্রিদেশীয় টুর্নামেন্টের ফাইনালে নিজেদের টি-টোয়েন্টির ইতিহাসে সর্বাধিক রান তুলে জিতল নেপাল। নেদারল্যান্ডসের বিরুদ্ধে ৩ উইকেট হারিয়ে ২৩৮ রান সংগ্রহ করে স্বাগতিকরা। ব্যাটসম্যানদের পর বোলারদের দাপটে মাত্র ৯৬ রানেই গুটিয়ে দেয় নেদারল্যান্ডসকে। আর তাতেই ১৪২ রানের ঐতিহাসিক জয়ে শিরোপা জিতল নেপাল।

তিন জাতির টি-টোয়েন্টি সিরিজে নিজেদের তিন ম্যাচের একটিতেও জয় না পেয়ে বাদ পড়ে যায় মালয়েশিয়া। ফাইনালে মুখোমুখি হয় স্বাগতিক নেপাল এবং নেদারল্যান্ডস। কীর্তিপুরের ত্রিভুবন বিশ্ববিদ্যালয় আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস জিতে নেপালকে আগে ব্যাট করতে পাঠায় নেদারল্যান্ডস অধিনায়ক পিটার সিলার।

ব্যাট করতে নেমে নেদারল্যান্ডস বোলারদের তুলোধুনো করে ছাড়েন নেপালি ব্যাটসম্যানরা। উদ্বোধনী জুটিতে আসে ৩০ রান। তবে ব্যক্তিগত ১৬ রানে ফিরে যান আসিফ শেখ। এরপর অধিনায়ক গায়নেন্দ্র মাল্লাকে নিয়ে রানের গতি বাড়াতে থাকেন কুশল বার্টেল। দলীয় ৮৭ রানে ৩৩ রানের ইনিংসে থামেন অধিনায়ক মাল্লা।

এরমধ্যেই অর্ধশত রান পূর্ণ করেন ওপেনার কুশল বার্টেল। দারুণ খেলতে থাকা বার্টেলকে ফেরান সেবাস্তিয়ান ব্র‍্যাট। প্যাভিলিয়নে ফেরার আগে বার্টেলের ব্যাট থেকে আসে ৭৭ রানের ইনিংস। ৮ চার ও ৩ ছক্কায় সাজানো তাঁর এই ইনিংস।

এরপর ঝড়ো ব্যাটিং করে দলীয় সংগ্রহ ২০০ ছাড়িয়ে নেন দিপেন্দ্র সিং ও কুশল মাল্লা। ৫ ছয় ও ২ চারের সাহায্যে ২৪ বলে পঞ্চাশ রান করেন কুশল মাল্লা। তবে দিপেন্দ্র সিং আইরের ফিফটি হয়নি ২ রানের জন্যে। মাত্র ১৮ বলে ৫ চার ও ৩ ছক্কায় ৪৮ রানে অপরাজিত থামেন দিপেন্দ্র। নির্ধারিত ২০ ওভারে তিন উইকেট হারিয়ে নেপাল তোলে ২৩৮ রান। যা তাঁদের টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের ইতিহাসে সর্বোচ্চ সংগ্রহ।

নেপালের ২৩৮ রানের জবাবে ৯৬ রানেই শেষ হয়ে যায় নেদারল্যান্ডসের ইনিংস। ওপেনার ম্যাক্স ও’ডাউডের ২০, অধিনায়ক পিটার সিলারের ১৩ ও সেবাস্তিয়ান ব্র্যাটের অপরাজিত ২৬ রানের ইনিংস ছাড়া আর কেউই দুই অংকের ঘরে পৌঁছাতে পারেনি। করণ কেসি, স্বন্দীপ লামিচানেদের বোলিং তোপে পড়ে নির্ধারিত ওভারের আগেই শেষ হয়ে যায় নেদারল্যান্ডসের ইনিংস।

১৭.২ ওভারে সবকটি উইকেট হারিয়ে নেদারল্যান্ডস স্কোরবোর্ডে জমা করে মাত্র ৯৬ রান। আর তাতেই ১৪২ রানের বড় জয়ে শিরোপা জিতে স্বাগতিক নেপাল।

ফাইনালে বল হাতে নেপালের হয়ে তিন ওভারে ১১ রান খরচায় ৩ উইকেট দখলে নেন করণ কেসি। আর তাতেই ম্যাচ সেরা ক্রিকেটার নির্বাচিত হয়েছেন করণ।

এছাড়া স্বন্দীপ লামিচানে ও কামাল আইরে শিকার করেন ২টি করে উইকেট। অবিনাশ বোহরার নেন ১ উইকেট।

পুরো টুর্নামেন্ট জুড়ে ব্যাট হাতে অনবদ্য পারফর্ম করা নেপালের ওপেনার কুশল বার্টেল জিতলেন টুর্নামেন্ট সেরার পুরষ্কার। পাঁচ ম্যাচ মিলিয়ে তাঁর ব্যাট থেকে আসে মোট ২৭৮ রান (৬২, ৬১*, ৬২, ১৬, ৭৭)।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

নেপালঃ ২৩৮/৩ (২০ ওভার) বার্টেল ৭৭, আসিফ ১৬, গায়নেন্দ্র ৩৩, কুশল মাল্লা ৫০*, দিপেন্দ্র ৪৮*; ফিলিপে ২/৪৩, সেবাস্তিয়ান ১/২৮

নেদারল্যান্ডসঃ ৯৬/১০ (১৭.২ ওভার) ম্যাক্স ২০, সিলার ১৩, সেবাস্তিয়ান ২৬; করণ ৩/১১, কামাল ২/২২, লামিচানে ২/২৬, অবিনাশ ১/২০

ফলাফলঃ নেপাল ১৪২ রানে জয়ী

ম্যাচ সেরাঃ করণ কেসি (নেপাল)

টুর্নামেন্ট সেরাঃ কুশল বার্টেল (নেপাল)।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে পয়েন্ট খরা ঘুচল বাংলাদেশের

Read Next

তামিমের মত ব্যাটিং করলে ‘১১’ সেঞ্চুরি হত না মুমিনুলের

Total
19
Share