ক্যান্ডি টেস্টের ফল নিয়ে বাস্তবতাই তুলে ধরলেন তাইজুল

ক্যান্ডি টেস্টের ফল নিয়ে বাস্তবতাই তুলে ধরলেন তাইজুল

ক্যান্ডি টেস্ট এখন যেখানে দাঁড়িয়ে আছে সেখান থেকে ড্র’ই হতে পারে সম্ভাব্য ফল। তৃতীয় দিন শেষে এখনো ৩১২ রানে এগিয়ে থাকা বাংলাদেশকে জয় পেতে হলে আগামী দুই দিনে লঙ্কানদের ১৭ উইকেটে তুলে নিতে হবে। সবমিলিয়ে বাস্তবতা বলছে এমন স্পোর্টিং উইকেটে জয় পেতে অবিশ্বাস্য কিছুই করতে হবে টাইগার বোলারদের। স্পিনার তাইজুল ইসলামও সেটি মানছেন, তবে বাকি দুইদিন জয়ের জন্যই খেলতে নামবেন বলেও জানান।

প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশ ৭ উইকেটে ৫৪১ রান তুলে ইনিংস ঘোষণা করে। জবাবে নিজেদের প্রথম ইনিংসে ৩ উইকেটে ২২৯ রানে তৃতীয় দিন শেষ করলো শ্রীলঙ্কা। এখনো ৩১২ রানে পিছিয়ে থাকলেও উইকেট বিবেচনায় লঙ্কানরাও সহজে হাল ছাড়বেনা বলাই যায়। ৮৫ রানে অপরাজিত আছেন অধিনায়ক দিমুথ করুনারত্নে।

ম্যাচের বর্তমান পরিস্থিতিতে জয় কতটা সম্ভব বলে মনে করে বাংলাদেশ এমন প্রশ্নে ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে টাইগার স্পিনার তাইজুল ইসলাম বলেন, ‘সত্যি কথা বলতে এখন যে পরিস্থিতিতে আছে, আমাদের জেতার মতো পরিস্থিতিতে গেলে বিশেষ করে এই উইকেটে বিশেষ সাহায্য নাই, স্পিনার বা পেসার যার জন্যই বলেন।’

‘আমাদের ডিসিপ্লিনের মধ্যে থেকে আমাদের কাজ করতে হবে। এবং আমরা যদি তা করতে পারি, রান চেক দিয়ে, সব কিছু মিলিয়ে, তাড়াতাড়ি একটু ইউজ করতে পারলে আমরা জেতার জায়গায় যেতে পারব।’

তৃতীয় দিনে এসেও পাল্লেকেলের উইকেটে বোলারদের সাহায্য করার মত কিছুই ছিলনা। ব্যাটিং বান্ধব এমন উইকেটে শৃঙ্খলা বজায় রেখে বল করাটাই হতে পারে তাইজুলের মতে অন্যতম পন্থা। জয়ের জন্য খেলতে গিয়ে ম্যাচ থেকে কখনোই যেন ছিটকে যেতে নাহয় সেদিকেও নজর থাকবে টাইগারদের।

তাইজুল বলেন, ‘উইকেট ভালো, অনেক ভালো। আমি প্রথমেই বলছি আমাদের কালকেও প্ল্যান থাকবে ফিল্ডিং প্রোটেকশন নিয়ে ডিসিপ্লিনড উপায়ে বোলিং করা। আমরা হয়ত জেতার জন্যই খেলব, কিন্তু কোনো সময় যেন আমাদের থেকে যেন হাতছাড়া না হয়।’

পেসারদের সহায়তা করবে এমন ভাবনা থেকেই উইকেটে বাড়তি ঘাস রাখা হয়েছিল। কিন্তু পেসারদের তেমন সহায়তা না করলেও তৃতীয় দিনে স্পিনারদের কিছুটা হলেও সাহায্য করার কথা ছিল। কিন্তু তেমন কোনো সাহায্য পাননি বলে জানান ২০ ওভার বল করে ৫৬ রান খরচায় ১ উইকেট তুলে নেয়া বাঁহাতি স্পিনার তাইজুল।

তার মতে এমন উইকেটে শৃঙ্খলা বজায় রেখে বল করার বিকল্প নেই, ‘যেখানে রাফ আছে ওখানে যে শার্প টার্ন করে যে দ্রুত ভেতরে বা বাইরে যাবে তেমন না, স্পিনারদের জন্য খুব ফাস্ট উইকেট না, স্লো ধরণের যে খুব শার্প টার্ন করবে না। আমাদের প্ল্যান ব্যাটসম্যান বুঝে ডিসিপ্লিনড ওয়েতে বল করতে হবে।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

পাকিস্তানকে প্রথমবারের মত টি-টোয়েন্টিতে হারাল জিম্বাবুয়ে

Read Next

দুই বিতর্কিত রিভিউ নিয়ে যা বললেন তাইজুল

Total
1
Share