রানের পাহাড় গড়ার পথে বাংলাদেশ

রানের পাহাড় গড়ার পথে বাংলাদেশ

ক্যান্ডি টেস্টের প্রথমদিন দারুণভাবে শেষ করা বাংলাদেশ দ্বিতীয় দিন প্রথম সেশনও পুরোপুরি নিজেদের করে নিল। যতটা সম্ভব ইনিংস লম্বা করতে চাওয়া নাজমুল হোসেন শান্ত ইতোমধ্যে সেঞ্চুরিকে রূপ দিয়েছেন ১৫০ পেরোনো ইনিংসে। মুমিনুল হক পেলেন দেশের বাইরে প্রথম সেঞ্চুরির দেখা।

দুজনের জুটিতে আজ প্রথম সেশনেও উইকেট শূন্য লঙ্কা বোলাররা। সেশনে ৭৬ রান তোলা বাংলাদেশের লাঞ্চের আগে সংগ্রহ ২ উইকেটে ৩৭৮।

১২৬ রানে শান্ত ও ৬৪ রানে অপরাজিত থেকে দিন শুরু করেন মুমিনুল হক। দিনের দ্বিতীয় ওভারেই মুমিনুলকে রান আউটের সুযোগ মিস করে লঙ্কানরা। সুযোগ ঠিকঠাক কাজে লাগাতে পারলে ৬৪ রানেই থামতে হত টাইগার কাপ্তানের। পরে ব্যক্তিগত ৬৮ রানেও ধনঞ্জয়া ডি সিলভার বলে দ্বিতীয় স্লিপে অল্পের জন্য বেঁচে যান। লাহিরু থিরিমান্নের খানিক সামনে পড়ে বল।

এর বাইরে আর কোন সুযোগ তৈরি না করে শান্ত-মুমিনুল জুটি এগোতে থাকে রেকর্ডের দিকে। দুজনের অবিচ্ছেদ্য ২২৬ রানের জুটি বর্তমানে তৃতীয় উইকেট জুটিতে বাংলাদেশের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রানের জুটি। সামনে কেবল ২০১৮ সালে গল টেস্টে মুশফিকুর রহিম ও মুমিনুল হকের গড়া ২৩৬ রান।

আগের দিন সংবাদ সম্মেলনে শান্ত জানিয়েছেন ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরির ইনিংসকে লম্বা করতে চান যতটা সম্ভব পারেন। বল দেখে শুনে বুঝে খেলা বাঁহাতি এই ওপেনার লাঞ্চের আগেই পেরোন দেড়শো। অপরাজিত আছেন ৩৬০ বলে ১৫ চার ১ ছক্কায় ১৫৫ রানে।

তার আগেই ক্যারিয়ারের ১১ তম ও দেশের বাইরে প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরির দেখা পান মুমিনুল হক। দিনের ১১তম ওভারে ধনঞ্জয়া ডি সিলভার অফ স্টাম্পের খানিক বাইরের বলকে কাট শটে ব্যাকওয়ার্ড পয়েন্ট দিয়ে চার মেরে সেঞ্চুরিতে পৌঁছান মুমিনুল হক। দেশের হয়ে সর্বোচ্চ টেস্ট সেঞ্চুরির মালিক ব্যবধানটা বাড়িয়ে নিলেন দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা তামিম ইকবালের (৯) সাথে। ২২৪ বলে ৯ চারে সেঞ্চুরিতে পৌঁছানো মুমিনুল লাঞ্চের আগে অপরাজিত আছেন ২৪৬ বলে ১০৭ রান নিয়ে।

সংক্ষিপ্ত স্কোর (২য় দিন, লাঞ্চ বিরতি পর্যন্ত):

বাংলাদেশ ৩৭৮/২ (১১৮), তামিম ৯০, সাইফ ০, শান্ত ১৫৫*, মুমিনুল ১০৭*; বিশ্ব ২৪-৪-৭৫-২।

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

ম্যাচ হারের পর জরিমানা গুনলেন মরগান

Read Next

সতীর্থের মাঝে আগামীর অলরাউন্ডার দেখছেন রাশিদ

Total
15
Share