চেন্নাইকে হেসেখেলে হারাল দিল্লি

চেন্নাইকে হেসেখেলে হারাল দিল্লি

শিখর ধাওয়ান এবং পৃথ্বী শ-এর ব্যাটে চড়ে অধিনায়ক হিসাবে শুভ সূচনা করলেন রিশাব পান্ট। ১৪তম আইপিএলের ২য় ম্যাচে মাহেন্দ্র সিং ধোনির চেন্নাই সুপার কিংসকে ৭ উইকেটে হারিয়েছে পান্টের দিল্লি ক্যাপিটালস।

১৮৯ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে ম্যাচের মোমেন্টাম গড়ে দেন ধাওয়ান এবং পৃথ্বী। এ দুইজন উদ্বোধনী জুটিতে ১৩৮ রান করে ম্যাচ নিজেদের হাতের মুঠোয় নিয়ে নেন।

গত আইপিএলের মত এবারও নিজেদের ১ম ম্যাচে চমৎকার ব্যাটিং করেন ধাওয়ান। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজেও ব্যাটিংয়ে ছিলেন সপ্রতিভ। উইকেটের চারপাশে দৃষ্টিনন্দন বাউন্ডারি হাঁকিয়েছেন তিনি। ৫৪ বলে ১০ চার ও ২ ছয়ে ৮৫ রান করে আউট হন। শার্দুল ঠাকুরের বলে লেগ বিফোরের ফাঁদে পড়ার সময় দল জয় থেকে মাত্র ২২ রান দূরে ছিল। এর আগে ফিল্ডিংয়েও নিয়েছেন ৩টি মূল্যবান ক্যাচ।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by cricket97 (@cricket97bd)

অন্যদিকে গত আইপিএলে মোটেও ভালো সময় যায়নি পৃথ্বীর। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটেও পাননি রানের দেখা। তবে সৈয়দ মুশতাক আলী ট্রফি এবং বিজয় হাজারে ট্রফিতে রানের ফল্গুধারা ছুটিয়েছেন। সে সুবাদে ওপেনিংয়ে সুযোগ পেয়ে কোচ রিকি পন্টিংয়ের আস্থার প্রতিদান দেন। চেন্নাইয়ের বোলারদের তুলোধুনো করে মাত্র ৩৮ বলে ৯ চার ও ৩ ছয়ে ৭২ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলেন তিনি।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by cricket97 (@cricket97bd)

শেষদিকে অধিনায়ক পান্ট জয়সূচক বাউন্ডারি এনে দিয়ে ৮ বল বাকি থাকতে দিল্লিকে লক্ষ্যে পৌঁছান। পান্ট অপরাজিত থাকেন ১৫ রানে। চেন্নাইয়ের পক্ষে শার্দুল ২টি এবং ডোয়াইন ব্রাভো ১টি উইকেট নেন।

এর আগে রানপ্রসবা উইকেটে টসে হেরে ব্যাটিংয়ে নামে ধোনির চেন্নাই। শুরুতে দুই ওপেনারকে হারিয়ে ধাক্কা খায় তারা। উমেশ যাদব এবং ইশান্ত শর্মাকে টেক্কা দিয়ে একাদশে সুযোগ পাওয়া আবেশ খানের বলে কোন রান না করে বিদায় নেন দক্ষিণ আফ্রিকার সাবেক অধিনায়ক ফাফ ডু প্লেসিস। পরের ওভারে রুতুরাজ গায়কোয়াড়কে বিদায় করেন ক্রিস ওকস।

তবে ২ বছর পর আইপিএলে ব্যাট হাতে নামা সুরেশ রায়না ও মইন আলির ব্যাটে চড়ে বড় সংগ্রহের দিকে এগিয়ে যেতে থাকে চেন্নাই। ৫৪ রান করে দুর্ভাগ্যজনকভাবে রান আউটের শিকার হন রায়না। রায়নার ব্যাট হাসলেও হাসেনি ধোনির ব্যাট। ২ বল পরে কোন রান না করে আবেশ খানের বলে বোল্ড হন ধোনি। শেষদিকে স্যাম কারেন ও রবীন্দ্র জাদেজার ঝড়ো গতির ব্যাটিংয়ে ৭ উইকেটে ১৮৮ রান করে চেন্নাই।

স্যাম কারেন মাত্র ১৫ বলে ৩৪ রান করে আউট হলেও জাদেজা ২৬ রান করে অপরাজিত থাকেন। দিল্লির পক্ষে আবেশ খান ও ওকস ২টি করে উইকেট নেন।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by cricket97 (@cricket97bd)

ম্যাচ সেরা নির্বাচিত হন শিখর ধাওয়ান।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

চেন্নাই সুপার কিংসঃ ১৮৮/৭ (২০), রুতুরাজ ৫, ডু প্লেসিস ০, মইন ৩৬, রায়না ৫৪, রায়ডু ২৩, জাদেজা ২৬*, ধোনি ০, স্যাম কারেন ৩৪; ওকস ৩-০-১৮-২, আবেশ ৪-০-২৩-২, অশ্বিন ৪-০-৪৭-১, টম কারেন ৪-০-৪০-১, অমিত মিশ্র ৩-০-২৭-০, স্টয়নিস ২-০-২৬-০

দিল্লি ক্যাপিটালসঃ ১৯০/৩ (১৮.৪), পৃথ্বী ৭২, ধাওয়ান ৮৫, পান্ট ১৫*, স্টয়নিস ১৪, হেটমেয়ার ০*; দিপক চাহার ৪-০-৩৬-০, স্যাম কারেন ২-০-২৪-০, শার্দুল ৩.৪-০-৫৩-২, জাদেজা ২-০-১৬-০, মইন ৩-০-৩৩-০, ব্রাভো ৪-০-২৮-১

ফলাফলঃ দিল্লি ক্যাপিটালস ৭ উইকেটে জয়ী

ম্যাচ সেরাঃ শিখর ধাওয়ান (দিল্লি ক্যাপিটালস)।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

রিজওয়ানের ব্যাটে পাকিস্তানের শততম টি-টোয়েন্টি জয়

Read Next

ম্যাচ হারের পর বড় অঙ্কের জরিমানা গুনলেন ধোনি

Total
1
Share