প্লেয়ারদের ঐ সুইচ অফ হয়ে গেছেঃ সুজন

প্লেয়ারদের ঐ সুইচ অফ হয়ে গেছেঃ সুজন

ফর্ম ইজ টেম্পোরারি, বাট ক্লাস ইজ পার্মানেন্ট’, বাংলাদেশ দলকে নিয়ে খালেদ মাহমুদ সুজনের বক্তব্য। সত্যিকার অর্থেই বর্তমান সময়ে বাংলাদেশ দল খুব একটা ফর্মে নেই। ফর্মে নেই বলেই নিউজিল্যান্ড সফরটা সুখকর হয়নি বাংলাদেশের। সুজনের দৃঢ় বিশ্বাস, শ্রীলঙ্কায় যেয়ে সেখানকার চেনা মাঠে টেস্টে সাফল্য পাবে টাইগাররা।

খালেদ মাহমুদ সুজন মনে করেন বাংলাদেশ দলে ম্যাচ উইনারের অভাব নেই। দলটিতে এমন কিছু খেলোয়াড় আছেন, যারা নিজেদের দিনে ম্যাচের গতিপথ পাল্টে দিতে পারেন। খালেদ মাহমুদ সুজনের ভাষায় দেশের ক্রিকেটারদের সুইচ অফ হয়ে গেছে। সুইচ অন হলেই টাইগাররা ফিরবে চেনা ছন্দে। সুজনের কথায়,

‘এখন সুইচ অন-অফের যুগ তো, আমার মনে হয় প্লেয়ারদের ঐ সুইচ অফ হয়ে গেছে। এখন আবার সুইচ অন করতে হবে।’

নিজেদের মান অনুযায়ী খেলতে পারছেন না বলেই সমস্যার সমাধান খুঁজে বেড়াচ্ছে বাংলাদেশ দল। সাফল্যের জন্য মানসিক প্রস্তুতির ওপর গুরুত্ব দিচ্ছেন খালেদ মাহমুদ সুজন।

‘আমি মনে করি, এটা শুধুমাত্র ক্রিকেট ট্রেনিং করলেন বা না করলেন নিয়ে নয়, ইটস অল এবাউট মেন্টাল। মেন্টালি যদি আপনি ফিট, যদি আপনি মেন্টাল প্রেশার নিতে পারেন তাহলে আপনার ব্যাসিক তো জানাই আছে, আপনি জানেন কিভাবে খেলতে হয়। তাই মেন্টালি প্রস্তুত থাকতে হবে এবং যেখানে যাবো খেলতে সেখানে যে কন্ডিশনে হবে তা জানে ছেলেরা।’

শ্রীলঙ্কার মাঠ বাংলাদেশ দলের কাছে বেশ পরিচিতই। ২০০১ সাল থেকে ২০১৭ পর্যন্ত শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে তাঁদের মাঠে মোট ১২টি টেস্টে লড়াইয়ে নামে বাংলাদেশ। পথচলার পুরোটাই হতাশায় ভরা টাইগারদের। ১০ পরাজয়ের বিপরীতে বাংলাদেশ জিতেছে কেবল একটিতে, ড্রও ১টি।

এরপরও নিজেদের দল নিয়ে আত্মবিশ্বাসী খালেদ মাহমুদ সুজন। দ্রুতই ফর্মে ফিরবে বাংলাদেশ,

‘শ্রীলঙ্কাতে এর আগেও ছেলেরা ক্রিকেট খেলেছে। তাই আমার মনে হয় ঐগুলো মাথায় রাখলে খুব একটা প্রবলেম হবে না যে আমরা অফফর্ম। ফর্ম ইজ টেম্পোরারি, এটা আজকে আছে, কালকে নেই।’

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

সাকিব-তামিমের বিকল্পদের উপর আস্থা আছে সুজনের

Read Next

মেয়াদ বাড়ছে চম্পাকার, বাড়ছে কাজের পরিধিও

Total
24
Share