অনেক ভেবে সিদ্ধান্তে পৌঁছেছেন স্মিথ

অনেক ভেবে সিদ্ধান্তে পৌঁছেছেন স্মিথ

‘স্যান্ডপেপার গেট’ কেলেঙ্কারিতে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে এক বছরের নিষেধাজ্ঞা পেয়েছিলেন, কিন্তু অধিনায়কত্ব থেকে স্টিভেন স্মিথ নিষিদ্ধ ছিলেন বাড়তি এক বছর। গত বছর নেতৃত্বের জন্যও উন্মুক্ত হলেন। যেকোনো পর্যায়ের ক্রিকেটে অধিনায়কত্ব করতে আর বাধা নেই বিশ্বের অন্যতম সেরা এই ব্যাটসম্যানের। ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (সিএ) চাইলে ফের অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক হতে রাজি স্মিথ।

বল টেম্পারিং কাণ্ড না ঘটলে হয়তো এখনও অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক থাকতেন স্মিত। প্রাক্তন অধিনায়ক স্টিভ স্মিথ এখনও সব ফরম্যাটে নিজের দেশকে আবার নেতৃত্ব দেওয়ার সুযোগের প্রত্যাশা করছেন।

সম্প্রতি অস্ট্রেলিয়ার শীর্ষস্থানীয় গণমাধ্যম ‘নিউজ কর্প’কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে অস্ট্রেলিয়ার প্রাক্তন অধিনায়ক স্টিভ স্মিথ জানিয়েছেন, পুনরায় দলের দায়িত্ব নিতে প্রস্তুত।

স্মিথ বলেছেন,

‘আমি এই বিষয়ে চিন্তাভাবনা করার জন্যে প্রচুর সময় পেয়েছি এবং আমি একটা সিদ্ধান্তেও পৌঁছেছি। সেটা হল ফের অধিনায়কত্বের সুযোগ যদি আমার কাছে আসে তাহলে আমি সেই সুযোগ নিতে উৎসাহী।’

ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া চাইলে তাই ফের অধিনায়ক করতে পারবে স্মিথকে। ঘরোয়া সব পর্যায়ের ক্রিকেটেও অধিনায়কত্বের ভার নিতে পারবেন বিশ্বের অন্যতম সেরা এই ব্যাটসম্যান। যদিও ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া এই বিষয়ে এখনও কোন আগ্রহ দেখায়নি।

তবে স্মিথের কথায়,

‘এটা সম্পূর্ণভাবে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার ব্যাপার যে ওরা কী চায়। ওরাই বিচার করবে দলের জন্য কোনটা উপযুক্ত। তবে হ্যাঁ এটা নিশ্চিত যে আমি অস্ট্রেলিয়া জাতীয় দলের অধিনায়ক হওয়ার ব্যাপারে আগ্রহী।’

টানা তিন বছর সাফল্যের সঙ্গে অজিদের নেতৃত্ব দিয়েছিলেন স্মিথ। কিন্তু ২০১৮ সালের দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে কালিমা লেগে যায় তার গায়ে। এই দুঃসহ স্মৃতি এখনও ভুলতে পারছেন না স্মিথ। তবে এর থেকেও যে শিখছেন তিনি,

‘আমি জানি না দেশকে আর নেতৃত্ব দিতে পারব কীনা তবে কেপটাউনের ঘটনা আমার জীবনে ভোলার নয়। এখনও ওই ঘটনার কথা ভীষণভাবে মনে পড়ে। সময় গড়িয়ে চলেছে আর আমিও ওই ঘটনার মধ্যে দিয়ে মানুষ হিসেবে অনেক কিছুই উপলব্ধি করেছি। আমার মনে হয় সুযোগ পেলে আমি নিজেকে আরও ভালো জায়গায় নিয়ে যেতে সক্ষম।’

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

বিকেএসপিতে দেড় দিনেই ম্যাচ হারল বরিশাল

Read Next

বৃষ্টির বাগড়া দেবার দিনেও নিউজিল্যান্ডের বড় সংগ্রহ

Total
3
Share