শ্রীলঙ্কার সফরের জন্য ‘এক্সট্রিম টিম’ গঠনের কাজ করছেন রাজ্জাকরা

শ্রীলঙ্কার সফরের জন্য 'এক্সট্রিম টিম' গঠনের কাজ করছেন রাজ্জাকরা

আগামী এপ্রিলে শ্রীলঙ্কা সফরের জন্য দেশ ছাড়বে বাংলাদেশ দল। শ্রীলঙ্কা সিরিজের দল ঘোষণার জন্য আরও কয়েক ধাপের মিটিং বাকি রয়েছে নির্বাচক, খেলোয়াড় ও বিসিবির কর্তাদের মধ্যে। এবারের ঘোষণায় আগের সব সিরিজের মতোই গুরত্ব দিয়ে সেরা একটা স্কোয়াড লঙ্কা সফরে পাঠাবে বিসিবি। আগে থেকেই ছিটকে যাওয়ায় শ্রীলঙ্কার সিরিজকে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের অংশ হিসেবে দেখছেন না নির্বাচক আব্দুর রাজ্জাক।

শ্রীলঙ্কা সফরে শুধু টেস্ট হওয়ায় নিউজিল্যান্ড সফরের দল থেকে কিছু খেলোয়াড় পরিবর্তন হবে। তবে চমক থাকবে কিনা এই দলে এই বিষয়ে এখনই কিছু বলছেন না আব্দুর রাজ্জাক।

আজ (শনিবার) মিরপুর হোম অব ক্রিকেটে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে এমনটাই বলেছেন জাতীয় ক্রিকেট দলের নতুন নির্বাচক আব্দুর রাজ্জাক।

‘শ্রীলঙ্কা সিরিজে শুধুমাত্র টেস্ট খেলা হবে তাই খুব স্বাভাবিকভাবেই কিছু খেলোয়াড় বদল হবে যেটা আপনারা সবাই জানেন। চমকের কথা বলবো না, তবে এক্সট্রিম টিম নিয়ে কাজ হচ্ছে। এখনই যে টিম দিয়ে দেয়া হবে বা টিম রেডি হয়ে গেছে এমন নয়। ন্যাশনাল টিম করতে হলে দেখা যায় কয়েকটা খেলোয়াড় নিয়ে আগে বসতে হয়। তো ঐরকম অবস্থানে আছে এখনো। পুরোপুরি সব মিটিং এখনো হয়নি। প্রেসিডেন্ট সাহেব বসবেন, আমাদের অপারেশন্সের চেয়ারম্যান বসবেন। তারপর আমরা নির্বাচকরা বসবো। এরপর আসলে দল দেয়া হবে।’

আইসিসি ওয়ার্ল্ড টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের দুটি ম্যাচ খেলতে আগামী ১২ এপ্রিল শ্রীলঙ্কায় পৌঁছাবে বাংলাদেশ দল। আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে এখন পর্যন্ত বাংলাদেশের পথচলার পুরোটাই হতাশায় ভরা। একটিতেও আসেনি জয়। দেশে কিংবা দেশের বাহিরে পরাজয়ই যেন বাংলাদেশের সঙ্গী। সবশেষ দেশের মাটিতে উইন্ডিজও বাংলাদেশকে টেস্টে হোয়াইটওয়াশ করে গেছে। স্বভাবতই টেবিলের নিচে অবস্থান করে চ্যাম্পিয়নশিপ থেকে ছিটকে গেল মুমিনুল হকের দল।

তাই শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে ম্যাচটি আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে কোন গুরত্ববহন করবে না। তবে বিসিবির নির্বাচকরা দল ঘোষণা নিয়ে বেশ সতর্ক অবস্থানেই রয়েছে। দ্বিতীয় সারির দল কিংবা দলে একেবারে নতুন খেলোয়াড় যোগ করা হবে না আসন্ন এই সফরে। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড আগে যেরকম দল ঘোষণা করেছে বিভিন্ন সিরিজে। এবারও এর ব্যতিক্রম হবে না বলেই জানালেন জাতীয় দলের নির্বাচক আব্দুর রাজ্জাক। তার মতে, ভালো একটা টেস্ট দলই শ্রীলঙ্কা সফরের জন্য বিবেচিত হবে।

‘আসলে এই সিরিজকে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের অংশ হিসেবে না দেখলেই ভালো হবে। কারণ এটার ফাইনালে আমরা খেলতে পারবো না। এমন ও হবে না যে আমরা সেকেন্ড বা থার্ড টিম হয়ে যাবো। আমাদের যেমন সিরিজগুলো হয়, এটাকে তেমন ভাবলেই ভালো হবে। আমি এটা বলছি আপনাদের জন্য। নরমালি আমরা যে টেস্ট সিরিজগুলো যেভাবে খেলি, এটাকেও আমরা সেভাবেই নিচ্ছি। ভালোও করতে হবে, একইসঙ্গে দলের যেন সুবিধা হয় এবং অনেকগুলো নতুন খেলোয়াড় এনে যে এক্সপেরিমেন্ট করা হবে এমনটাও নয়।’

উল্লেখ্য, ১৭ ও ১৮ এপ্রিল অনুষ্ঠিত হবে দুই দিনের প্রস্তুতি ম্যাচটি। এরপর ২১ এপ্রিল প্রথম টেস্ট মাঠে গড়াবে। দ্বিতীয় টেস্ট শুরু হবে ২৯ এপ্রিল থেকে। দুটি টেস্টই অনুষ্ঠিত হবে ক্যান্ডির পাল্লেকেলে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে।

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

সাকিব-মাশরাফির মন্তব্য, বেশি গুরুত্ব না দিতে বলছেন সুজন

Read Next

মুশফিকের উইকেট কিপিং নিয়ে খালেদ মাহমুদ সুজনের ভাবনা

Total
31
Share