‘আপনি পৃথিবীর সেরা কোচকে পেতে পারেন, তবে…’

ইকবাল প্রেস

শেষ হওয়া ওয়ানডে সিরিজে সব মিলিয়ে নিউজিল্যান্ডের সামনে দাঁড়াতেই পারল না বাংলাদেশ। নিউজিল্যান্ডের মাঠে জয় যেন বাংলাদেশের কাছে আকাশের চাঁদ। সহজভাবে বললে, প্রায় অসম্ভব। বাংলাদেশ অধিনায়ক তামিমের কণ্ঠেও আবার ঝরলো হতাশা। ব্যাটিং অর্ডারের ব্যর্থতা এসেছে আবারও সামনে। তামিমের মতে, খেলোয়াড়রা এভাবে খেলতে থাকলে পৃথিবীর সেরা কোচ এনেও কোন কাজে আসবে না।

কিউই সফরে প্রথম ম্যাচে ১৩১ রানে অলআউট হওয়ার পর দ্বিতীয় ম্যাচে লড়াই জমিয়েছিল বাংলাদেশ দল। আগের ম্যাচ বিবেচনায় চিত্র কিছুটা বদলেছিল। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে তাঁদের মাঠে প্রথম জয়ের সুযোগও তৈরি হয়েছিল। কিন্তু হাত ফসকে বেরিয়ে গেল একের পর এক ক্যাচ; সঙ্গে এই ম্যাচটিও। ক্রিকেটারদের এমন ব্যর্থতা পুরো সিরিজ জুড়েই। শেষ ওয়ানডেতে ব্যাটিংয়ে নেমে প্রথম দশ ওভারেই খেলা প্রায় শেষ হয়ে গেছে বাংলাদেশের। তামিমের কণ্ঠে,

‘আমার ধারণা প্রথম ম্যাচ থেকে দ্বিতীয় ম্যাচে আমরা বেশ ভালোই শিক্ষা নিয়েছিলাম। আমরা জানতাম যে, বল হাতে প্রথম ১০ ওভারে আমরা বেশ কঠিন কিছুর সম্মুখীন হবো। যখন আপনি প্রথম ১০ ওভারেই ৩-৪ উইকেট হারিয়ে ফেলবেন তখন বুঝতে হবে খেলাটা সেখানেই অর্ধেক শেষ। যা আমরা দ্বিতীয় ম্যাচে হতে দেইনি। কিন্তু তৃতীয় ম্যাচে আমরা একই ভুলের পুনরাবৃত্তি করেছি। আপনি জানেন যে, আপনাকে শেখানোর জন্য আপনি পৃথিবীর সেরা কোচকে পেতে পারেন, তবে দিনশেষে খেলোয়াড়দের বুঝতে হবে যে, কখন কি করতে হবে, কি করা যাবে না। সমস্যাটা মূলত বিদেশের মাটিতে। দেশের বাইরে আমরা ধারাবাহিক নই।’

উন্নতি নয়, নিউজিল্যান্ডে তামিমের দল গিয়েছে ম্যাচ জিততে। এমন বক্তব্য ডানেডিনের প্রথম ওয়ানডেতে হারের পরও বলেছিলেন বাংলাদেশ অধিনায়ক। আজ সিরিজ হারের পরও তামিমের কণ্ঠে একই। সুপার লিগের পয়েন্টের ওপর ভিত্তি করেই ২০২৩ সালের বিশ্বকাপে সুযোগ পাবে দলগুলো। তাই নিউজিল্যান্ড সিরিজে হোয়াইটওয়াশ হয়ে পাঁচে নেমেছে টাইগাররা। দলের কিংবা ব্যক্তিগত কোন পারফরম্যান্সই প্রভাব ফেলতে পারেনি কিউই সফরে।

‘দলগত বা ব্যক্তিগতভাবে কোনভাবেই আমরা ধারাবাহিক নই। আমি মনে করি এটাই ইস্যু এবং এখান থেকে উত্তরণের পথ খুঁজতে হবে। আমি যেমনটা সংবাদ সম্মেলন বা প্রেজেন্টেশনে বলেছিলাম যে, সবার কথা জানিনা, তবে আমি ব্যক্তিগতভাবে মনে করি, এখানে আমরা নিজেদের ক্রিকেটের উন্নতি করতে আসিনি, আমরা এসেছি ম্যাচ জিততে। এটা শুধুমাত্র কোন দ্বিপক্ষীয় সিরিজ নয় যেখানে আপনি এসব নিয়ে ভাববেন। এটা পয়েন্টের উপর নির্ভর করছে। আপনি জিতলে আপনি পয়েন্ট পাবেন যা আপনাকে বাছাইপর্ব উতরাতে সাহায্য করবে। তবে যেভাবে আমরা খেলেছি তা খুবই হতাশাজনক ছিল।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

সাকিব-মাশরাফিদের সঙ্গে ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সাক্ষাৎ

Read Next

যেকারণে টি-টোয়েন্টি সিরিজে বাংলাদেশের সুযোগ দেখছেন তামিম

Total
1
Share