দিপুর সেঞ্চুরি, বল হাতে ফরহাদ রেজার ঝলক

প্রথম সেঞ্চুরি ম্যাচ জমিয়ে দিলেন ফরহাদ রেজা

আগেরদিন সেঞ্চুরির অপেক্ষা নিয়ে দিন শেষ করা চট্টগ্রাম বিভাগের শাহাদাত হোসেন দিপু আজ (২৩ মার্চ) দ্বিতীয় দিন সকালেই সেঞ্চুরির দেখা পান। তবে তার সেঞ্চুরির পরই থামে চট্টগ্রামের ইনিংস। নিজেরা ২৮৭ রানে অলআউট হওয়ার পর প্রতিপক্ষ রাজশাহী বিভাগকে গুটিয়ে দেন ১৫২ রানে। যেখানে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছে দুই পেসার মেহেদী হাসান রানা ও নোমান চৌধুরী। তবে শেষ বিকেল নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে ৪৩ রান তুলতেই ৫ উইকেট হারায় চট্টগ্রাম।

বঙ্গবন্ধু জাতীয় ক্রিকেট লিগের ২২ তম আসরে টায়ার-২ এর ম্যাচে রাজশাহীর শেখ কামরুজ্জামান স্টেডিয়ামে প্রথম রাউন্ডে মুখোমুখি হয়েছে চট্টগ্রাম ও রাজশাহী বিভাগ। দিনশেষে হাতে পাঁচ উইকেট নিয়ে ১৭৮ রানে এগিয়ে চট্টগ্রাম বিভাগ।

৭ উইকেটে ২৫৬ রান নিয়ে দিন শুরু করে চট্টগ্রাম। ৮৮ রানে অপরাজিত থাকা শাহাদাত হোসেন দিপু সেঞ্চুরির পর অবশ্য বেশিক্ষণ টিকেননি। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে নিজের প্রথম সেঞ্চুরি হাঁকানো ইনিংসটি টেনে নেন ১০৮ রান পর্যন্ত।

৯ ঘন্টার বেশি সময় ক্রিজে কাটিয়ে ২২৬ বলে ১১ চার ২ ছক্কায় ইনিংসটি সাজান যুব বিশ্বকাপ জয়ী দলের এই সদস্য। আউট হয়েছেন প্রতিপক্ষের সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি ফরহাদ রেজার বলে। তার বিদায়ের মধ্য দিয়েই ইনিংসের সমাপ্তি ঘটে চট্টগ্রামের। ফরহাদ রেজার ৪ উইকেট ছাড়াও রাজশাহীর হয়ে দুইটি করে উইকেট নেন আসাদুজ্জামান পায়েল ও তাইজুল ইসলাম। তৌহিদ হৃদয় ও শফিকুল ইসলামের শিকার একটি করে।

চট্টগ্রামের ২৮৭ রানের বিপরীতে রাজশাহী অলআউট হয় মাত্র ১৫২ রানে। পেসার নোমান চৌধুরী সাগরের ৪ উইকেটের সাথে মেহেদী হাসান রানার শিকার ৩ উইকেট। স্পিনার হাসান মুরাদ দুইটি ও মিডিয়াম পেসার ইফরান হোসেন নেন এক উইকেট।

রাজশাহীর হয়ে সর্বোচ্চ অপরাজিত ২৭ রান করেন ফরহাদ রেজা। এ ছাড়া সমান ২৪ রান করে আসে সাব্বির রহমান ও ফরহাদ হোসেনের ব্যাট থেকে। ২১ রান করেছেন উইকেট রক্ষক ব্যাটসম্যান প্রিতম কুমার।

১৩৫ রানে এগিয়ে থেকে নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করা চট্টগ্রাম প্রথম ইনিংসের মত শুরুতেই বিপর্যয়ে পড়ে। ফরহাদ রেজার তোপে ৪৩ রানেই নেই ৫ উইকেট। দুই ওপেনার পারভেজ হোসেন ইমন ও পিনাক ঘোষ ফিরেছেন খালি হাতে। মাহমুদুল হাসান জয় ২৬ রানে ব্যাট করলেও অধিনায়ক মুমিনুল হক (১৩) ও ইয়াসির আলি রাব্বি (৪) ফিরে গেছেন ফরহাদ রেজার বলে প্রিতম কুমারকে ক্যাচ দিয়ে। দিন শেষে চট্টগ্রাম এগিয়ে ১৭৮ রানে।

১৮ রান খরচায় রাজশাহীর হয়ে ৩ উইকেট ফরহাদ রেজার। একটি করে ভাগাভাগি করেন তাইজুল ইসলাম ও শফিকুল ইসলাম।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ (দ্বিতীয় দিন শেষে)

চট্টগ্রাম প্রথম ইনিংসঃ ২৮৭/১০ (১০১.২ ওভার) ইমন ৬, পিনাক ১৫, জয় ১১, মুমিনুল ৬, রাব্বি ৬৩, দিপু ১০৮, শুক্কুর ০, মেহেদী ৫৫, ইফরান ৮, মুরাদ ১, নোমান ০*, রেজা ২৭.২-৯-৪৪-৪, শফিকুল ২০-৩-৬৪-১, পায়েল ২১-২-৬১-২, তাইজুল ২৪-৭-৬৩-২, হৃদয় ৯-১-৪৩-১।

রাজশাহী প্রথম ইনিংসঃ ১৫২.১- (৪৪/৩ ওভার) তামিম ৫, জহরুল ১২, জুনায়েদ ৬, ফরহাদ ২৪, হৃদয় ৯, সাব্বির ২৪, প্রতম ২১, রেজা ২৭*, তাইজুল ২, শফিকুল ০, পায়েল ৪; মেহেদী ১১.৩-১-২২-৩, নোমান ১২-৪-৪৭-৪, ইফরান ১১-২-৩৪-১, মুরাদ ১০-২-৩৫-২।

চট্টগ্রাম দ্বিতীয় ইনিংসঃ ৪৩/৫ (১৯.৩ ওভার) ইমন ০, পিনাক ০, জয় ২৬*, মুমিনুল ১৩, রাব্বি ৪, মেহেদী ০; রেজা ১০-২-১৮-৩, শফিকুল ৫-২-১৪-১, তাইজুল ৪.৩-১-১১-১।

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

তামিম চান মিঠুনের জায়গা পাকা হোক

Read Next

মার্শাল আইয়ুবের সেঞ্চুরিতে চালকের আসনে ঢাকা মেট্রো

Total
2
Share