ডি ভিলিয়ার্স, কোহলিদের আদর্শ মানা শামীমের লক্ষ্য যেকোনভাবে ম্যাচ শেষ করা

জয়-শামীমের জোড়া ফিফটিতে ইমার্জিং দলের জয় 1
Vinkmag ad

যুব বিশ্বকাপ জয়ী দলের তরুণ অলরাউন্ডার শামীম হোসেন পাটোয়ারীকে সাম্প্রতিক সময় বিবেচনায় আলাদা করেই বিচার করতে হবে। বয়স ভিত্তিক থেকে ধারাবাহিক পারফরম্যান্সে নজর কাড়া শামীম আয়ারল্যান্ড উলভসের বিপক্ষে বাংলাদেশ ইমার্জিং দলের হয়ে নিজের সামর্থ্যের জানান দিচ্ছেন নতুন করে। মিডল অর্ডারে পাওয়ার হিটিং দক্ষতায় দুর্দান্ত ফিনিশার বলা যায় এই বাঁহাতিকে। সবশেষে দুই ম্যাচেই দলের জয়ে দারুণ ভূমিকা রেখেছেন ব্যাট হাতে।

আগামীকাল আয়ারল্যান্ড উলভসের বিপক্ষে চতুর্থ আনঅফিসিয়াল ম্যাচের আগে আজ এই বাঁহাতি জানালেন যেকোনভাবে ম্যাচ শেষ করে আসাই তার লক্ষ্য। এবি ডি ভিলিয়ার্স, ভিরাট কোহলিদের আদর্শ মানা এই তরুণ ব্যাটসম্যান পাওয়ার হিটিং সামর্থ্যের রহস্য জানাতে গিয়ে বললেন ভাত আর ফলমূলের মত স্বাভাবিক খাবারই খান।

চট্টগ্রামে আয়ারল্যান্ড উলভসের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচ পরিত্যক্ত হলেও ব্যাট করার সুযোগ পেয়ে শামীম অপরাজিত থেকেছেন ২৬ বলে ২২ রানে। দ্বিতীয় ম্যাচে শেষ ওভারে গড়ানো ম্যাচে বাংলাদেশ ইমার্জিং দল জয় পায় তার ৩৯ বলে অপরাজিত ৫৩ রানের ইনিংসে ভর করে। তৃতীয় ম্যাচে কঠিন সমীকরণ না হলেও তার ২৫ বলে অপরাজিত ৪৪ রানের ঝড়ো ইনিংসে ২৭ বল হাতে রেখেই জয় পায় সাইফ হাসানের দল।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by cricket97 (@cricket97bd)

পাঁচ ম্যাচ সিরিজের শেষ দুইটি মাঠে গড়াবে মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে। আগামীকাল (১২ মার্চ) সকাল সাড়ে ৯ টায় শুরু হবে চতুর্থ ম্যাচ। আজ অনুশীলন শেষে মিরপুরে সাংবাদিকদের সাথে কথা বলেন শামীম।

দল নিয়ে বলতে গিয়ে শামীম জানান, ‘প্রথমে বলবো আমাদের টিমটা অনেক ভালো। আমরা যেহেতু প্রথম দুইটা ম্যাচ জিতছি, আমরা ওদের চেয়ে এগিয়ে আছি। আমরা চাইবো কালকের ম্যাচটা জিততে। আসলে বোলিং আমাদের ভালো হচ্ছে আমাদের, আল্লাহ্‌র রহমতে। ব্যাটিংও অল গুড।’

ব্যাটিংয়ে দারুণভাবে ম্যাচ শেষ করার কারিশমা কী এমন প্রশ্নের জবাবে ২০ বছর বয়সী এই তরুণ বলেন, ‘ব্যাটিংয়ে আমার পজিশন নাম্বার সিক্স। আমি চাই যে, ফিনিশ করতে যেভাবেই হোক, আর দলকে এগিয়ে নিতে। এটাই আমার টার্গেট থাকে।’

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে তার আদর্শ সম্পর্কে বলতে গিয়ে ডি ভিলিয়ার্স, কোহলিদের সাথে সাকিব আল হাসানকেও রাখলেন, ‘(আইডল আছে কি না) হ্যাঁ অবশ্যই। বিদেশি প্লেয়ার যেমন এবি ডি ভিলিয়ার্স, ভিরাট কোহলি। আর দেশে আমাদের সাকিব ভাই।’

যুব বিশ্বকাপ জয়ী দলের এই সদস্য জানালেন জাতীয় দলের ডাক আসলেও প্রস্তুত তিনি, ‘(জাতীয় দলের ডাক এলে প্রস্তুত কি না) অবভিয়াসলি। যেহেতু আমরা এখন খেলার মধ্যে আছি। সবকিছুর প্রিপারেশন নিয়ে নেয়াটাই জরুরি।’

শামীমের ব্যাটিং ও স্পিন বলের সাথে গুরুত্বপূর্ণ জিনিস হল তার ফিল্ডিং। বর্তমানে বাংলাদেশের সেরা ফিল্ডারদের তালিকায় শীর্ষেই থাকবেন চাঁদপুরের এই ক্রিকেটার। ফিল্ডিংয়ের জন্য বিশ্ব ক্রিকেটের আইকন দক্ষিণ আফ্রিকান জন্টি রোডস অনুসরণ করেন বলেও জানান।

শামীম বলেন, ‘ফিল্ডিংয়ে আমি ছোটবেলা থেকেই জন্টি রোডসকে ফলো করি।’

পাওয়ার হিটিংয়ের জন্য বলের গতিবিধি, লেংথ বোঝা সবচেয়ে জরুরি। বিশেষ করে গায়ের জোরটা পেতে মাঠের বাইরের কাজটাও করতে হয় ঠিকঠাক। খাবার দাবার থেকে ফিটনেস সবকিছুতেই করতে হয় নিয়মমাফিক।

তরুণ এই অলরাউন্ডার জানালেন স্বাভাবিক জীবন যাপন আর খাওয়া দাওয়াতেই তার অভ্যস্ততা, ‘নরমাল লাইফস্টাইল। ওরকম এক্সট্রাঅর্ডিনারি কিছুই না। ভাত খাই, ফ্রুটস (হাসি)।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

ফটো স্টোরিঃ অনিন্দ্য সুন্দর কুইন্সটাউনে টাইগারদের অনুশীলন

Read Next

লাল বলের প্রস্তুতি ছাড়াই শ্রীলঙ্কা যাবেন তামিম-মুশফিকরা!

Total
19
Share