টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে ডিপিএল, থাকবে জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা

বঙ্গবন্ধু ডিপিএল ২০১৯-২০
Vinkmag ad

ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের (ডিপিএল) গত আসর স্থগিত হয় মাত্র এক রাউন্ড মাঠে গড়ানোর পরই। এক বছর পেরিয়ে যাওয়ার পথে হলেও স্থগিত হওয়া এই টুর্নামেন্টটি আয়োজনের ফাঁকা সময়ই বের করতে পারছেনা বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। চলতি মাসে জাতীয় লিগ দিয়ে ঘরোয়া ক্রিকেট ফেরানোর সাথে সাথে ডিপিএল নিয়েও ভাবনা বোর্ডের। মে-জুন মাসে টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে হলেও বিসিবি শেষ করতে চায় ঐতিহ্যবাহী এই ঘরোয়া টুর্নামেন্টটি।

দেশের ক্রিকেটারদের আয়ের বড় উৎস ডিপিএল। জাতীয় দলের ক্রিকেটাররাও এই টুর্নামেন্টের মূল আকর্ষণ। বর্তমানে নিউজিল্যান্ড সফরে থাকা বাংলাদেশ দল দেশে ফিরেই এপ্রিলে উড়াল দিবে শ্রীলঙ্কার উদ্দেশ্যে। মে মাসের শেষদিকে বাংলাদেশে আসবে শ্রীলঙ্কা।

ফলে জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করে ডিপিএল আয়োজনের ফাঁকা সময় বের করা বেশ কঠিন হয়ে পড়েছে। এদিকে দলগুলোর সাথে আগেই চুক্তিবদ্ধ হওয়াতে টুর্নামেন্টের মাঝপথে জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের পরিবর্তে অন্য কোন খেলোয়াড় অন্তর্ভূক্ত করাও ঝামেলার প্রক্রিয়া হবে ক্লাবগুলোর। তাই ক্লাবের মতামত আমলে নিয়ে ক্রিকেট কমিটি অব ঢাকা মেট্রোপলিস (সিসিডিএম) চায় জাতীয় দলের খেলোয়াড়দের নিয়েই গত আসরের ডিপিএল চালু করতে।

গতকাল (৯ মার্চ) ক্রিকেট কমিটি অফ ঢাকা মেট্রোপলিশের (সিসিডিএম) সভাপতি কাজী ইনাম আহমেদ রাজধানীর ধানমন্ডিতে নিজের কার্যালয়ে সাংবাদিকদের বলেন, ‘ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে আবার সকল জাতীয় দলের খেলোয়াড়েরা খেলছে। জাতীয় দলের খেলোয়াড়েরা যারা খেলছে তাদের কিন্তু এখন আবার আন্তর্জাতিক কমিটমেন্টে আছে। তাদেরকে বাদ দিয়েও কিন্তু টুর্নামেন্টটা করা কঠিন।’

‘তাদেরকে বাদ দিলে এমনও ১-২ টা দল আছে যাদের একাদশই হবে না। তাহলে সে কি অন্য দল থেকে খেলোয়াড় নেবে? টুর্নামেন্টের মাঝখানে তো আমরা দল বদল করতে পারছি না।’

‘সবকিছু বিবেচনা করে আমরা একটা বা দুইটা উইন্ডো বের করার চেষ্টা করছি। দুর্ভাগ্যক্রমে মে-জুন মাসের আগে আমরা সেটা করতে পারছি না। যেহেতু আমরা জানি আন্তর্জাতিক ক্যালেন্ডারে আমাদের কি আছে। মে-জুন মাসে আমরা যদি মিনিমাম একটা উইন্ডো বের করতে পারি ২৫-৩০ দিনের চেষ্টা করছি।’

খেলোয়াড়দের স্বার্থ চিন্তা করে যেকোনভাবে টুর্নামেন্ট আয়োজন করতে বদ্ধ পরিককর সিসিডিএম। প্রয়োজনে ওয়ানডে ফরম্যাটের টুর্নামেন্ট আয়োজন হবে টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে। আগামী শনি কিংবা রোববার ক্লাবের সাথে আলোচনা শেষেই এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্তে আসবে সিসিডিএম।

কাজী ইনাম বলেন, ‘আমারা খেলোয়াড়দের কথা চিন্তা করে যেভাবে হোক আমরা টুর্নামেন্টটা আয়োজন করতে চাই। এমনও যদি দরকার হয় ফরম্যাট বদলে আলাদা ফরম্যাটে করতে হয়। যেখানে আমাদের প্রিমিয়ার লিগ ওয়ানডে টুর্নামেন্ট, যদি টি-টোয়েন্টিও করতে হয় তাহলে ক্লাবদের সঙ্গে আলাপ করে দেখব। ক্লাবগুলোর সঙ্গে সামনের শনিবার কিংবা রবিবার মিটিং করবো।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

পয়েন্ট কাটাই কাল হল অজিদের, হতাশ ল্যাঙ্গার

Read Next

পারিশ্রমিক ইস্যুতে ছাড় দিতেও রাজি ক্রিকেটাররা

Total
7
Share