দুই বছরের মধ্যেই জাতীয় দলে আসতে যাচ্ছেন আকবর, তানভীররা?

আকবর আলি শামীম হোসেন তানজিম হাসান সাকিব বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯
Vinkmag ad

হাই পারফরম্যান্স (এইচপি) ইউনিটকে জাতীয় দলের ক্রিকেটার তৈরির মঞ্চ হিসেবে বলা হয়ে থাকে। এইচপির এবারের ক্যাম্পে আছে যুব বিশ্বকাপ জয়ী দলের বেশিরভাগ সদস্য। করোনার কঠিন সময় শেষে ইতোমধ্যে সরব হয়েছে এইচপির কার্যক্রম। বর্তমানে আয়ারল্যান্ড উলভসের বিপক্ষে চলছে সিরিজ। প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু জানালেন কয়েকজন ক্রিকেটারকে গড়ে তোলা হচ্ছে আগামী এক-দুই বছরের মধ্যে জাতীয় দলের ভাবনায়।

যুব বিশ্বকাপ জয়ী দলের সদস্য ছাড়াও এইচপিতে জায়গা পেয়েছে বেশ কয়েকজন তরুণ প্রতিভাবান ক্রিকেটার। ইতোমধ্যে জাতীয় দলে খেলেছে এমন দুই একজনকেও রাখা হয়েছে টেকনিক্যালি আরও পোক্ত করতে।

বাংলাদেশ ইমার্জিং নামে এইচপির ক্রিকেটাররা আয়ারল্যান্ড উলভসের বিপক্ষে খেলছে পূর্ণাঙ্গ সিরিজ। একমাত্র চারদিনের ম্যাচ শেষে শুরু হয়েছে পাঁচ ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজ,আছে দুইটি টি-টোয়েন্টিও। ম্যাচ চলাকালীন আয়ারল্যান্ড উলভসের এক ক্রিকেটার করোনা পজিটিভ হওয়াতে অবশ্য পরিত্যাক্ত হয়েছে প্রথম ওয়ানডে।

চারদিনের ম্যাচ সহ প্রথম তিনটি ওয়ানডে চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে। ইতোমধ্যে চারদিনের ম্যাচ ও পরিত্যাক্ত হওয়া প্রথম ওয়ানডেটি মাঠে বসেই দেখেছেন প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু। বাঁহাতি স্পিনার তানভীর ইসলামের ১৩ উইকেট শিকারে চারদিনের ম্যাচটি আড়াই দিনেই জিতে নেয় বাংলাদেশ ইমার্জিং দল।

আজ (৫ মার্চ) রাজধানীর লা মেরিডিয়ান হোটেলে চলমান মোহামেডান ক্লাবের নির্বাচনে ভোট দিতে গিয়ে সাংবাদিকদের মিনহাজুল আবেদিন নান্নু জানান কয়েকজন ক্রিকেটারকে তৈরি করা হচ্ছে জাতীয় দলের ভাবনাতেই।

তিনি বলেন, ‘আমরা একটা চারদিনের ম্যাচ খেলেছি ওদের নিয়ে। গত এক বছর আমরা এইচপির ক্যাম্প, ম্যাচ আয়োজন সেভাবে করতে পারিনি। খুবই অল্প সময়ের মধ্যে দলটা তৈরি করা হয়েছে। চারদিনের ম্যাচে ওরা বেশ ভালো ক্রিকেট খেলেছে। খুব ভালো কিছু পারফর্মার আমরা ওখানে পেয়েছি।’

‘আমাদের এইচপির কার্যক্রম হল আগামীদিনের জন্য খেলোয়াড় তৈরি করা। সে হিসেবেই আমরা এগিয়ে যাচ্ছি। আয়ারল্যান্ডের সাথে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি আছে। লাল বলের খেলা শেষ এখন সাদা বলে খেলা। এখান থেকে আমরা কিছু প্লেয়ারকে এমনভাবে তৈরি করছি যাতে এক থেকে দুই বছরের মধ্যে জাতীয় দলের জন্য বিবেচিত হতে পারে।’

এদিকে কন্ডিশনের কারণে নিউজিল্যান্ডে জাতীয় দলের জন্য ভালো করা কঠিন হবে বলেও মত এই নির্বাচকের, ‘নিউজিল্যান্ডের কন্ডিশন অনেক কঠিন এটা অবশ্যই আপনাদের মাথায় রাখতে হবে। নিউজিল্যান্ডে ভালো ক্রিকেট খেলা খুবই কঠিন। তবে সবাই যদি সেরাটা দিতে পারে আমরা আশাবাদী।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

গিলক্রিস্টের কমপ্লিমেন্ট, আপ্লুত রিশাব পান্ট

Read Next

মুক্তির অপেক্ষায় থাকা হাবিবুল বাশারের কণ্ঠে উচ্ছ্বাস

Total
5
Share