গেইলের লক্ষ্য ৩ নম্বর বিশ্বকাপ, খেলতে রাজি যেকোন পজিশনে

featured photo1 26
Vinkmag ad

পাকিস্তান সুপার লিগের এবারের মৌসুমের মাঝপথে ছিলেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের মারকুটে ব্যাটসম্যান ক্রিস গেইল। দুই বছর পর জাতীয় দলে ডাক পেয়ে এখন নিজ দেশে তিনি।

গত কয়েক বছরে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের সবচেয়ে আকর্ষণীয় নাম ক্রিস গেইল। সোমবার তিনি জানান, জাতীয় দলকে দেওয়ার মত এখনও অনেক কিছুই আছে তার।

‘আমি আসলে ক্রিকেট থেকে দূরে সরে যেতে চেয়েছিলাম। তবে সবাই বলতে লাগলো আমি যেন খেলা না ছাড়ি। যতদিন সম্ভব হয়, আমি যেন ক্রিকেটে নিমগ্ন থাকি,’ শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সিরিজের আগে সোমবার জানান গেইল।

‘তাই আমি সিদ্ধান্ত নেই আমাকে খেলে যেতে হবে। আমি পথ থেকে পিছপা হতে চাচ্ছিলাম না। ফ্র‍্যাঞ্চাইজি ক্রিকেট খেলছি এবং লোকেদের যতটুকু সম্ভব আনন্দিত করছি। বিশ্বের সব জায়গার ক্রিকেটে ক্রিস গেইল রাজত্ব করবে।’

‘যখন আমি তাদের পক্ষ থেকে সাড়া পাই এবং জিজ্ঞেস করে আমার আগ্রহ আছে কীনা, আমি বলেছিলাম আমি ওয়েস্ট ইন্ডিজের জন্য খেলতে চাই। যেখানে আমার প্রাণ রয়েছে। এই সময়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ক্রিকেটের বাইরে আমি অন্যকিছু ভাবছি না। তাই আমি পাকিস্তান থেকে নিজ দেশে ফিরে এসেছি এবং বিশ্বকাপে নিজ দলের জন্য প্রস্তুত করতে চাচ্ছি। আশা করি আমরা একতাবদ্ধ হয়ে দলগতভাবে খেলবো এবং বিশ্বকাপ জয় করবো।’

২০১৯ সালের বিশ্বকাপের পর গেইলের ভবিষ্যৎ নিয়ে শঙ্কা জেগেছিল। সে বছর অক্টোবরে ভারতের সাথে সিরিজের পর আর দেশের হয়ে খেলতে দেখা যায়নি ৪১ বছর বয়সী গেইলকে। এরপর বিভিন্ন ফ্র‍্যাঞ্চাইজি টুর্নামেন্টে সময় দিচ্ছেন তিনি। ৪৫ বছর বয়স পর্যন্ত খেলার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন তিনি।

‘৪১ বছর বয়সে এসে শারীরিকের থেকে মানসিকভাবে নিজেকে প্রস্তুত করতে হচ্ছে বেশি। মনের দিক থেকে এটাই আসলে বড় শক্তি। মন চাচ্ছে এখনও আমি ক্রিকেট খেলে দর্শকদের যেন আনন্দ দেয়। এটাই আমাকে খেলার প্রতি আরও আগ্রহ বাড়াচ্ছে। যদি আমার মন আর সায় না দেয়, তাহলে আমি নিজেকে বড় প্রশ্নের সম্মুখীন করবো। কিন্তু এখন আমি খেলার জন্য মানসিকভাবে প্রস্তুত,’ গেইল বলেন।

২০১২ এবং ২০১৬ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপজয়ী ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য ছিলেন গেইল। অক্টোবর-নভেম্বরে ভারতে তৃতীয়বারের মত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জয়ের ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন তিনি।

‘শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সিরিজ জিতে আমি আবারও জাতীয় দলে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে চাই। । তবে সবচেয়ে বড় বিজ্ঞাপন যদি আমার কাছে ৩টি বিশ্বকাপ ট্রফি থাকে। এ কারণে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জয়ের জন্য আমি নিজেকে মনস্থির করেছি। সামনে আমাদের কিছু সিরিজও রয়েছে। আসন্ন সিরিজগুলোতে যতটুকু সম্ভব ভালো করার চেষ্টা থাকবে আমাদের।’

ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলে আন্দ্রে ফ্লেচার, লেন্ডল সিমন্স, এভিন লুইস, গেইলসহ মোটা চারজন ওপেনার রয়েছে। গত বছর পাঞ্জাব কিংসে ৩ নাম্বারে ব্যাট করে সফল হয়েছিলেন গেইল। তিনি জানান ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলের প্রয়োজনের স্বার্থে তিনি যেকোন পজিশনে ব্যাট করতে প্রস্তুত।

‘আমাকে ৩ নাম্বারের জন্য দক্ষ ব্যাটসম্যান ভাবা হচ্ছে। আসলে কিংসের কোচ অনিল কুম্বলে আমাকে ৩ নাম্বার পজিশনে খেলতে বলেছিল। কেননা ওপেনিংয়ে লোকেশ রাহুল ও মায়াঙ্ক আগারওয়াল দুর্দান্ত ফর্মে ছিল।’

‘আমার কাছে এটা কোন বিষয় নয়। স্পিন আমি ভালো খেলি। তবে একজন ওপেনার হিসেবে ফাস্ট বোলারদের সবচেয়ে ভালো খেলি আমি। জাতীয় দলে আমি যেকোন পজিশনে ব্যাট করতে রাজি। যদি ওপেনিং হয়, আমি প্রস্তুত। নাম্বার ৩ কিংবা ৫ হোক, আমি আছি। আমি যেমন ৩ নাম্বার পজিশনে সেরা, তেমন ৫ নাম্বার পজিশনেও সেরা ব্যাটসম্যান।’

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

এফটিপি সাইকেলে আইসিসি ও বিসিসিআই একমত

Read Next

ওয়ার্নার স্বীকার করলেন তাড়াহুড়ো করে ভুল করেছেন

Total
40
Share