তামিমদের জন্য সোহানের বার্তা

তামিমদের জন্য সোহানের বার্তা
Vinkmag ad

৩ টেস্ট, ২ ওয়ানডে ও ৯ টি-টোয়েন্টির ছোট্ট আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ার নুরুল হাসান সোহানের। যার অনেকটা জুড়েই আছে নিউজিল্যান্ড। ২০১৭ সালে নিউজিল্যান্ড সফরেই হয়েছে টেস্ট ও ওয়ানডে অভিষেক। অভিষেক টেস্ট সহ ওয়ানডে ম্যাচ দুইটিই কিউইদের বিপক্ষে, ৯ টি-টোয়েন্টির সর্বশেষ তিনটিও একই সফরে। ফলে নিউজিল্যান্ড কন্ডিশন সম্পর্কে ভালোই ধারণা এই উইকেট রক্ষক ব্যাটসম্যানের। বর্তমানে নিউজিল্যান্ডে কোয়ারেন্টাইনে থাকা বাংলাদেশ দলের জন্য বার্তা দিলেন দেশ থেকেই।

অভিষেক টেস্টে প্রথম ইনিংসে সোহানের ব্যাট থেকে আসে ৪৭ রান। তবে বিরুদ্ধ কন্ডিশনে ক্রিজে টিকেছিলেন অনেক লম্বা সময়। ১৭৩ মিনিট ক্রিজে টিকে ৯৮ বলে খেলেছেন ইনিংসটি। দুই ওয়ানডেতেও ৭ ও ৮ নম্বর পজিশনে নেমে খেলেছেন যথাক্রমে ২৪ ও ৪৪ রানের ইনিংস।

এর আগে নিউজিল্যান্ড সফরে কোন জয়ের দেখা না পাওয়া বাংলাদেশ এবার বদ্ধপরিকর অধরা জয় পেতে। এবার দলে সুযোগ না পেলেও নিজের অভিজ্ঞতা থেকে ব্যাটসম্যানদের জন্য পরামর্শ দিলেন সোহান। তার মতে নতুন বল কোনভাবে সামলে নিতে পারলেই পুরাতন বলে ব্যাটিং করে মজা পাবে ব্যাটসম্যানরা।

করোনা পরবর্তী প্রথম বিদেশ সফরে গেল তামিম ইকবাল, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের দল। যেখানে সমান তিনটি করে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি খেলবে সফরকারী বাংলাদেশ। কঠোর কোয়ারেন্টাইনে থাকাটা কিছুটা হলেও মানসিকভাবে পিছিয়ে দেওয়ার কথা তাদের। তবে নুরুল হাসান সোহান বলছেন আগে থেকেই এমন প্রস্তুতি থাকায় খুব বেশি সমস্যা হবেনা।

মিরপুরে গণমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে আজ (২ মার্চ) এই উইকেট রক্ষক ব্যাটসম্যান বলেন, ‘সত্যিকার অর্থে এভাবে থাকা আসলেই কঠিন। তবে আমরা যেহেতু পেশাদার ক্রিকেটার যত দ্রুত সম্ভব আমাদের এটার সাথে মানিয়ে নিতে পারলে আমাদের জন্যই ভালো। আর যেহেতু মানসিকভাবে আগেই প্রস্তুতি নিয়ে গিয়েছে, আমার মনেহয় কোয়ারেন্টাইন শেষে অনুশীলন শুরু হলে এটা কাটিয়ে উঠবে।’

‘এর আগে যতবার আমরা নিউজিল্যান্ড সফর করেছি। আমার কাছে মনে হয় এর চাইতে এবার বেটার রেজাল্ট হবে। সত্যিকার অর্থে ব্যাটসম্যানদের জন্য নতুন বলটা একটু কঠিন হয়ে থাকে। নতুন বলটা সামলে নিতে পারলে পুরাতন বলে ব্যাটিং করা সহজ হয়ে যায়। নিউজিল্যান্ডের উইকেট ট্রু উইকেট হয়ে থাকে ফলে বল পুরাতন হলে ব্যাটিং করে মজা পাওয়া যায়।’

নতুন বলটা দেখেশুনে খেলার দিকে নজর দেওয়ার পরামর্শ দিয়ে ২৭ বছর বয়সী এই ব্যাটসম্যান আরও যোগ করেন, ‘আমি যেটা বললাম নতুন বলে নিউজিল্যান্ডের ওয়েদার ও কন্ডিশনে খেলাটা আসলেই কঠিন। নতুন বলটা যদি পার করতে পারি, মানিয়ে নিতে পারি, ধরেন প্রথম ১০ ওভারে একটার বেশি উইকেট না দিই, তাহলে ব্যাটসম্যানদের জন্য রান করা অনেক সহজ হয়ে যাবে।’

‘আমার ওয়ানোডে ও টেস্ট অভিষেক নিউজিল্যান্ডেই হয়েছিল। পুরাতন বলে ব্যাটিং করে মজা পাওয়া যায়। বলটা সুন্দর দেখা যায়। আমাদের দেশে যেমন বলটা পিচে পড়লে আমরা দোমনায় থাকি যে কী হবে। আমার কাছে মনে হয় ট্রু বাউন্স থাকে (নিউজিল্যান্ডে)। অবশ্যই রান করতে হলে কষ্ট করতে হবে।’

‘টেস্ট, টি-টোয়েন্টি বা ওয়ানডে যাই বলেন নতুন বল খেলাটা চ্যালেঞ্জিং হবে আমাদের জন্য। শুরুতেই যদি আমরা উইকেট হারিয়ে ফেলি ঐ জায়গা থেকে ঘুরে দাঁড়ানো কঠিন হয়ে যায়। তাই শুরুতে যদি কম উইকেট পড়ে, অর্থাৎ বেশি উইকেট হাতে রেখে যদি পরের দিকে যাই তাহলে ব্যাটসম্যানরা শট খেলার সুযোগ পাবে।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

ইংল্যান্ডের কোচিং প্যানেলে মার্কাস-জন-জিতান

Read Next

আক্ষেপ নেই সোহানের, দুষলেন টিম কম্বিনেশনকে

Total
5
Share