ভারতীয় আম্পায়ারদের নিয়ে অসন্তোষ, ম্যাচ রেফারির শরণাপন্ন রুটরা

ভারতীয় আম্পায়ারদের নিয়ে ইংল্যান্ডের অসন্তোষ, ম্যাচ রেফারির শরণাপন্ন রুটরা

আহমেদাবাদে গোলাপি বলের টেস্টের প্রথম দিনেই ৩য় আম্পায়ারের কার্যক্রম নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেছে ইংল্যান্ড। ম্যাচ পরিচালনায় যেন আরও দৃঢ়তা দেখানো হয়, এ নিয়ে ম্যাচ রেফারি জাভাগাল শ্রীনাথের সাথে কথাও বলেছেন ইংলিশ অধিনায়ক জো রুট এবং কোচ ক্রিস সিলভারউড।

এ ম্যাচের ৩য় আম্পায়ার হচ্ছেন ভারতের চেট্টিথোদি শামসুদ্দিন। ভারতের ইনিংসের ২টি ঘটনাই তিনি নিজের দেশের পক্ষে টেনেছেন। প্রথমটি ইনিংসের ২য় ওভারে বেন স্টোকস কর্তৃক শুবমান গিলের নিচু স্লিপ ক্যাচ নেওয়া এবং দ্বিতীয়টি রোহিত শর্মার বিপক্ষে উইকেটরক্ষক বেন ফোকসের স্টাম্পিংয়ের আবেদন। রোহিত তখন ৫৩ রানে অপরাজিত ছিলেন।

ক্যামেরার একটি জায়গা দেখেই ২টি ঘটনাকে নটআউটের সিদ্ধান্ত দিয়েছিলেন শামসুদ্দিন। বল মাটি স্পর্শ করেছে, এমনটা ধরে নিয়ে স্টোকসের ক্যাচ বাতিল করা হয়। অন্যদিকে ফোকসের স্টাম্পিংয়ের আবেদনটি ক্লোজ কল ছিল। বেল উপড়ে ফেলার সময় রোহিতের পা মাটি থেকে একটু উপরে ছিল।

২টি সিদ্ধান্তে শামসুদ্দিন অন্য ক্যামেরার সাহায্য নেননি। ৩য় আম্পায়ারের এমন কার্যক্রমে বেশ নাখোশ সফরকারীরা।

স্টাম্পিংয়ের আবেদন নাকোচ করার পর মাঠের আম্পায়ারদের সামঞ্জস্যপূর্ণ মনোভাবে দেখাতে বলেছেন রুট। স্টাম্পের মাইক্রোফোনে শোনা যায়। যদিও দিনের শুরুতে ইংল্যান্ডের ইনিংসে ৩য় আম্পায়ারের সিদ্ধান্তের ক্ষেত্রে ক্যামেরার বিভিন্ন দিক পর্যালোচনা করে তবেই সিদ্ধান্ত দিয়েছিলেন শামসুদ্দিন। জ্যাক লিচের ক্যাচে অনেকক্ষণ সময় নিয়ে তবেই তাকে আউট দিয়েছিলেন।

ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডের একজন প্রতিনিধি জানান, ‘দিনের খেলা শেষে ম্যাচ রেফারির সাথে কথা বলেছেন অধিনায়ক ও কোচ। আম্পায়ারদের বিভিন্ন চ্যালেঞ্জ নিয়ে অবগত আছেন তারা। তবে যেকোন সিদ্ধান্তের আগে যেন আরও দৃঢ়তা প্রদর্শন করা হয়, সে ব্যাপারে সম্মানের সাথে অনুরোধ করেন তারা। ম্যাচ রেফারি বলেন আম্পায়ারদের নিয়ে সঠিক প্রশ্নই করেছেন অধিনায়ক।’

প্রথম ইনিংসে ইংলিশদের সর্বোচ্চ সংগ্রাহক ওপেনার জ্যাক ক্রলি বলেন, ‘ আমরা যখন ব্যাট করছিলাম, জ্যাক লিচেরও এমন একটি সিদ্ধান্ত এসেছিল। মনে হচ্ছিল তার ক্যাচটি ঠিকভাবে ধরা হয়নি। তবে ৩য় আম্পায়ার ক্যামেরার ৫-৬টি দৃষ্টিকোণ থেকে দেখেছিলেন।’

‘আমরা যখন ফিল্ডিং করছিলাম, তিনি শুধু একটি জায়গা দেখেই সিদ্ধান্ত দিয়েছিলেন। এমন অবস্থায় আমরা বেশ হতাশ। আমি বলতে পারিনা সেগুলো আউট বা নট আউট কীনা। তবে হতাশাটা এখানে, সেগুলো ৪-৫ বার করে পর্যবেক্ষণ না করায়,’ ক্রলি বলেন।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

বাংলাদেশ লেজেন্ডসের হয়ে খেলবেন যারা

Read Next

রাশিদ খানের টেস্ট খেলা নিয়ে শঙ্কা

Total
6
Share