আবারও মেরুন জার্সিতে ফিরছেন ক্রিস গেইল

গেইল খেলবেন আরো ৫ বছর, ২ টি বিশ্বকাপ!

দুই বছর পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরার সম্ভাবনা রয়েছে ইউনিভার্স বস খ্যাত ক্রিস গেইলের। মার্চের শুরুতে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজে ফিরতে পারেন এ তারকা ক্রিকেটার। এ সপ্তাহে দল ঘোষণা করা হবে। দলে সুযোগ পেলে পাকিস্তান সুপার লিগে কোয়েটা গ্ল্যাডিয়েটর্সের হয়ে কয়েকটি ম্যাচ খেলা হবে না তার।

দল ঘোষণার আগে অন্যান্য ক্রিকেটারদের সাথে ফিটনেস পরীক্ষায় অংশ নিবেন গেইল। যদি তিনি খেলেন, তবে ২০১৯ সালের আগস্টের পর প্রথমবারের মত ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলে খেলবেন। শেষবার ভারতের বিপক্ষে ওয়ানডেতে খেলেছিলেন। শেষবার টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছিলেন ইংল্যান্ডের বিপক্ষে, ২০১৯ সালের মার্চে।

টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলে ৭ মার্চ আবারও পাকিস্তানে ফেরার কথা গেইলের। তার পরিবর্তে সাময়িকভাবে কোয়েটা গ্ল্যাডিয়েটর্স দলে যোগ দিবেন দক্ষিণ আফ্রিকার সাবেক অধিনায়ক ফাফ ডু প্লেসিস।

কাইরন পোলার্ডের অধীনে এ বছরের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের শিরোপা জিততে বদ্ধপরিকর ওয়েস্ট ইন্ডিজ। তারই পরিপ্রেক্ষিতে ক্রিস গেইলকেও প্রস্তুত রাখার জন্যই দলে নেওয়া হচ্ছে। অক্টোবর-নভেম্বরে ভারতে অনুষ্ঠিত হবে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের এবারের আসর। ক্যারিবিয়ানরা শেষবার ভারতের মাটিতেই শিরোপা জিতেছিল ২০১৬ সালে।

৪১ বছর বয়সী গেইল শেষবার ওয়ানডে বিশ্বকাপ খেলেছিলেন ইংল্যান্ডে, ২০১৯-এ। ওই বছরই ভারতের বিপক্ষে ৪১ বলে ৭২ রানের বিধ্বংসী ইনিংস খেলে সমর্থকদের জানিয়ে দেন, এটিই ছিল তার শেষ ওয়ানডে ম্যাচ।

এরপর কিছুদিন বিরতিতে যান গেইল। ২০২০ সালের জানুয়ারিতে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে ফিরে গেইল জানিয়ে দেন, তিনি আবারও ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলে ফিরতে ব্যাকুল। মজার ছলে বলেন, তিনি ৪৫ বছর বয়স পর্যন্ত দলে খেলতে চান। যদি তিনি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে খেলেন, তবে তার বয়স হবে ৪২ বছর।

১৪ বছর পর পাকিস্তানে খেলতে এসেছেন ক্রিস গেইল। শেষবার ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলের হয়ে ২০০৬-০৭ সালে খেলেছিলেন এ মারকুটে ব্যাটসম্যান। লাহোর কালান্দার্সের বিপক্ষে তার দল ৯ উইকেটে হারলেও ৪০ বলে ৬৮ রানের চমৎকার ইনিংস খেলেন তিনি। পিসিবির প্রস রিলিজে জানান, করোনা মহামারীর পর এখানে খেলতে এসে আনন্দিত তিনি।

‘এমন সময় খেলতে পারাটা আশীর্বাদস্বরুপ। আশা করি, সামনের দিনগুলো ভালো যাবে।’

‘স্টেডিয়ামে খেলা চলছে, কিন্তু গ্যালারিতে দর্শক নেই। দর্শকদের টেলিভিশনে খেলা দেখতে হচ্ছে। অথচ একটা ভালো সময় ছিল, যখন মাঠে খেলোয়াড় ও দর্শকে পরিপূর্ণ ছিল।’

‘পৃথিবীর এ থমথমে অবস্থায় সবকিছুই কঠিন যাচ্ছে। সর্বোচ্চ চেষ্টা করে জীবনে বাঁচতে হবে, পরিবার ও বন্ধুবান্ধবদের অধিক সময় দিতে হবে এবং মানুষের কাছে বেশি করে যেতে হবে।’

গেইল আশাবাদী ক্রিকেট আবারও পুরোপুরি ফিরে আসবে।

‘আমি নিশ্চিত খেলোয়াড়রা এটার জন্য অপেক্ষা করছে। এটাই আমাদের জীবিকা। এটাই আমাদের কর্মজীবন, আমাদের আয় এবং এটাই আমরা জানি।’

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

ড্রাফট শেষে যেমন হল ‘দ্য হান্ড্রেড’ এর ৮ দল

Read Next

বদলে গেল মোতেরা স্টেডিয়ামের নাম

Total
13
Share