টেস্ট দলেই ফেরার স্বপ্ন আশরাফুলের

মোহাম্মদ আশরাফুল

বয়সটা ৩৬ চলছে, শেষবার জাতীয় দলের জার্সি গায়ে চেপে খেলেছিলেন প্রায় ৮ বছর আগে। যে পোশাকে শেষবার বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করেছিলেন সেই পোশাককেই পাখির চোখ করেছেন সর্বকণিষ্ঠ টেস্ট সেঞ্চুরিয়ান।

মিরপুরে গণমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে আশরাফুল জানান লঙ্গার ভার্সন নিয়েই ভাবছেন তিনি। লিস্ট-এ, টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট খেললেও আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে টেস্ট ফরম্যাটেই ফেরার বাসন আশরাফুলের।

তিনি বলেন, ‘আমার লঙ্গার ভার্সন নিয়েই ভাবনা। আমি পরবর্তী তিন-চার বছর খেলতে চাই, সেটা লঙ্গার ভার্সন নিয়েই। ঘরোয়া লিগে খেলবো, ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ, বিপিএল যা হবে সেগুলো খেলবো। কিন্তু আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে আমি কেবল টেস্ট ক্রিকেট নিয়েই এখন চিন্তা করছি।’

যেই ফরম্যাটে ফিরতে চান সেই ফরম্যাটে দলের অবস্থা সন্তোষজনক নয়। দেশের মাটিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে হোয়াইট ওয়াশ হয়েছে মুমিনুল হকের দল। বাংলাদেশকে টেস্ট ফরম্যাটে নেতৃত্ব দেওয়া আশরাফুল জানালেন প্রস্তুতির অভাব বড় একটা কারণ।

তিনি বলেন, ‘অবশ্যই, আপনি এক বছর খেলার বাইরে ছিলেন। দুইটা টুর্নামেন্ট খেলছেন- একটা ওয়ানডে একটা টি-টোয়েন্টি। কিন্তু চারদিনের ম্যাচ খেলেননি, এটার প্রভাব তো অবশ্যই পড়বে। কারণ এটা একটা অভ্যাসের ব্যাপার, বড় ইনিংস খেলা, বড় স্পেলে বল করা। এই অভ্যাস তো ছিল না, দুইটা টুর্নামেন্ট একটাতে ৪ ওভার, আরেকটাতে ১০ ওভার বল করার অভ্যাস ছিল।’

‘এ জন্যই টেস্ট ক্রিকেটে যত খেলবেন ততই উন্নতি করবেন। আমরা এক বছর খেলার বাইরে ছিলাম সে জন্য রেজাল্ট আমাদের ফেভারে আসেনি। আরেকটা জিনিস হল আমরা ওদেরকে হালকা করে নিয়েছি। ওয়ানডে জেতার পর সবার কাছে মনে হয়েছে এভাবেই জিতে যাবো।’

প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ রানের মালিক তুষার ইমরানও মনে করেন উইন্ডিজদের হালকা ভাবে নিয়েছিল মুমিনুলরা।

তিনি বলেন, ‘আমার কাছে মনে হয়েছে ওদেরকে (ওয়েস্ট ইন্ডিজকে) নিয়ে কোন প্ল্যান করিনি আমরা। বিশেষ করে ওয়ানডে সিরিজ আরামে জেতার পর সবাই ভেবেছে টেস্ট সিরিজও এরকম হবে। টেস্ট ম্যাচ আসলে একটু কঠিন। ওরা কিন্তু আহামরি টিম না, এর চাইতে বেটার টিম নিয়ে এসেও আমাদের কাছে নাকানি চুবানি খেয়ে গেছে।’

তুষারও জানান প্রস্তুতির অভাব ভুগিয়েছে তামিম-মুশফিকদের, ‘ আমার কাছে মনে হয় যদি দুইটা চারদিনের ম্যাচ খেলতে পারতো টেস্ট সিরিজের আগে…একটা খেলার সুযোগ ছিল কিন্তু নির্বাচক মন্ডলী জাতীয় দলের বেশি ক্রিকেটারকে খেলাতে পারেনি। ওখানে যদি আরো ৫-৬ জনকে খেলানোর সুযোগ করে দিত তখন কিন্তু খেলতে বাধ্য থাকতো। তাহলে রেজাল্টটা আমাদের দিকেই আসতো বলে মনে করি।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

স্বাভাবিক জীবনে ফেরার অপেক্ষায় আশরাফুল-তুষাররা

Read Next

বিসিবি কর্তাদের জরুরি সভায় যে আলোচনা হল

Total
10
Share