মিরপুরে ফিরছে ‘পুরনো দিন’

মিরপুরে ফিরছে 'পুরনো দিন'

গত বছর ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগের (ডিপিএল) দলবদলের সময় মিরপুরে ঘরোয়া লিগের ক্রিকেটারদের সরব উপস্থিতি ছিল। দেশের ক্রিকেটের প্রাণ ঘরোয়া ক্রিকেট, যা ঘিরে শত শত ক্রিকেটারের রুটি রুজি। জাতীয় লিগ (এনসিএল) বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগ (বিসিএল), ডিপিএলের (ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগ) মত আসরগুলো শুরুর আগে মিরপুরে ক্রিকেটারদের মধ্যে থাকে উৎসব মুখর পরিবেশ। কিন্তু করোনা প্রভাবে দীর্ঘ এক বছরের মত সময় এসব মিস করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট।

করোনা পরবর্তী সময়ে দেশের ঘরোয়া ক্রিকেট লিগ শুরু হতে যাচ্ছে আবারও। জাতীয় লিগের ২২ তম আসর দিয়ে মাঠে নামবে ক্রিকেটাররা। মার্চের দ্বিতীয় সপ্তাহে মাঠে গড়াবে লঙ্গার ভার্সনের টুর্নামেন্টটি। আর তা সামনে রেখে গতকাল (১৬ ফেব্রুয়ারি) থেকে শুরু হয়েছে বিভাগীয় দলগুলোর ফিটনেস টেস্ট।

আজ (১৭ ফেব্রুয়ারি) মিরপুর ইনডোর সেন্টারে ফিটনেস টেস্ট দেন ঢাকা, খুলনা ও বরিশাল বিভাগের ক্রিকেটাররা। এর আগে জাতীয় লিগে ফিটনেস টেস্টের ক্ষেত্রে বিপ টেস্ট নেওয়া হলেও এবারই প্রথম ইয়ো ইয়ো টেস্ট দিল ক্রিকেটাররা। যদিও জাতীয় দলে এর প্রয়োগ হয়েছে আরও আগেই। ইয়ো ইয়ো টেস্টের তত্বাবধানে ছিলেন বিসিবির হেড অব ফিজিক্যাল পারফরম্যসান্স নিকোলাস ট্রেভর লি।

ফিটনেস টেস্ট শেষে ক্রিকেটারদের ভ্যাকসিনের আওতায় এনে তবে জাতীয় লিগ আয়োজন করা হবে বলে জানা যায়। ক্রিকেট কমিটি অব ঢাকা মেট্রোপলিস (সিসিডিএম) সদস্য সচিব আলী হোসেন এমনটাই জানিয়েছেন গণমাধ্যমকে।

এদিকে লম্বা বিরতির পর ঘরোয়া ক্রিকেট সরব হওয়াতে আনন্দিত ঘরোয়া ক্রিকেটের নিয়মিত মুখ তুষার ইমরান, মোহাম্মদ আশরাফুল, কামরুল সিওলাম রাব্বি সহ অন্যান্য ক্রিকেটাররা। আজ (১৭ ফেব্রুয়ারি) ফিটনেস টেস্ট শেষে মিরপুর ইনডোর সেন্টারে গণমাধ্যমের সাথে আলাপে জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক আশরাফুল বলেন অপেক্ষায় ছিলেন এমন কিছুর।

আশরাফুল জানান, ‘আমাদের ক্রিকেট মৌসুম শুরু হয় এটা দিয়ে, প্রায় ৬ মাস পর শুরু হচ্ছে। সবাই আসলে এটার জন্য অপেক্ষা করছিল, বিশেষ করে আমি। যেহেতু আমার স্বপ্ন এখনো বাংলাদেশ দলে খেলা, টেস্ট দলে। আমি চাচ্ছিলাম যেন লঙ্গার ভার্সনের ক্রিকেট টা যেন পাই, যেখানে আমি নিজেকে প্রমাণ করতে পারবো। কোন চাপ থাকবেনা বল খেলার, বড় ইনিংস খেলার। ভালো লাগছে যে সামনের মাসে শুরু হবে। প্রস্তুতিটা সেভাবে নিব যেন এখানে ভালো কিছু করতে পারি।’

বাংলাদেশের ঘরোয়া ক্রিকেটের কিংবদন্তী ব্যাটসম্যান তুষার ইমরান বলেন, ‘আমাদের জন্য খুশির সংবাদ। আমরা অপেক্ষা করছিলাম কখন শুরু করবে। ভ্যাকসিন আসার পর যেহেতু খেলাটা শুরু করতে যাচ্ছে আমার মনে হয় এটা চলতে থাকবে যে এখন খেলার মধ্যেই থাকবে। এনসিএলের পর ধাপে ধাপে বিসিএল, প্রিমিয়ার লিগ শুরু হবে বলে আমার কাছে মনে হয়।’

জাতীয় দলের পেসার কামরুল ইসলাম রাব্বি খেলবেন বরিশাল বিভাগের হয়ে। ডানহাতি এই পেসার দ্রুত ঘরোয়া ক্রিকেটে মনযোগ দেওয়াতে ধন্যবাদ দিয়েছেন বিসিবিকেও।

রাব্বি বলেন, ‘দীর্ঘদিন পর এরকম একটা টুর্নামেন্ট, প্রথম শ্রেণির ক্রিকেট। আসলে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেট খেললেই বোঝা যায় নিজের অবস্থা, খেলার অবস্থা। অনেক ভালো লাগছে। বিসিবিকে ধন্যবাদ করোনার ঝামেলার মাঝেও আমাদেরকে একোটা অবস্থানে নিয়ে আসছে। এর আগেও বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপ হল, ইন শা আল্লাহ ভালো হবে।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

শেষ দুই টেস্টের জন্য ভারতের স্কোয়াড ঘোষণা

Read Next

স্বাভাবিক জীবনে ফেরার অপেক্ষায় আশরাফুল-তুষাররা

Total
1
Share