সাকিবের ছুটি ‘একের ভেতর দুই’

যেমন হবে সাকিবদের ফিটনেস টেস্ট

সন্তান সম্ভাবা স্ত্রীর পাশে থাকতে নিউজিল্যান্ড সফর থেকে ছুটি নিয়েছেন টাইগার অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। যদিও ছুটি না নিলেও সফরের শেষ ভাগ ছাড়া দলের সাথে যোগ দিতে পারতেন না। মূলত চোটের কারণেই আরও ৬-৮ সপ্তাহ থাকতে হচ্ছে মাঠের বাইরে।

নিউজিল্যান্ড সফরের দল থেকে নিজেকে সরিয়ে নেওয়ায় সাকিবের পক্ষে বিপক্ষে হচ্ছে আলোচনা সমালোচনা। তবে সাকিব নিজে দিয়েছেন এর সুস্পষ্ট ব্যাখ্যা। বিশেষ করে স্ত্রীর সাথে থাকার প্রয়োজনীয়তার বিষয়টি তুলে ধরেছেন।

টাইগার অলরাউন্ডার জানিয়েছেন দুই ধরণের ছুটিতে যেতে হচ্ছে তাকে। চোটের কারণে দেড় থেকে দুই মাস মাঠের বাইরে থাকার পাশাপাশি স্ত্রীর পাশে থাকাটাও গুরুত্ব পেয়েছে। গতকাল (১৫ ফেব্রুয়ারি) একটি স্বেচ্ছাসেবী প্রতিষ্ঠানের অনলাইন ক্যাম্পেইনে অংশ নিয়ে ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে এমনটাই জানান।

সাকিব বলেন, ‘ছুটিটা হচ্ছে দুই ধরণের। একটা ছুটি হচ্ছে বাধ্য হয়ে নেয়া, আরেকটা ব্যক্তিগত। যেই চোটটা আছে, সেটি সারতে ছয় থেকে আট সপ্তাহ লাগবে। আমার এমনিতেই নিউজিল্যান্ড সিরিজ মিস করার যথেষ্ট সম্ভাবনা ছিল। ছয় সপ্তাহ হিসেব করলে আমি হয়তো টি-টোয়েন্টিতে দলের সঙ্গে যোগ দিতে পারতাম।’

‘আরেকটা হচ্ছে অবশ্যই ব্যক্তিগত কারণ। আমরা দুইজন তৃতীয় সন্তানের অপেক্ষায় আছি। এটা আমাদের জন্য রোমাঞ্চকর একটা বিষয়। এমন একটা অবস্থায় স্ত্রীর পাশে থাকা অনেক গুরুত্বপূর্ণ। তার চেয়ে বড় কথা হচ্ছে, কোভিডের অবস্থা যুক্তরাষ্ট্রে অনেক খারাপ। সেখানে হাসপাতালগুলোতে স্বামী ছাড়া কাউকে সঙ্গে থাকতে দেয় না। তাই আমার থাকাটা খুবই জরুরী এই সময়ে।’

উল্লেখ্য, চট্টগ্রাম টেস্টের দ্বিতীয় দিন উরুর চোট পেয়ে মাঠ ছাড়েন সাকিব। পরে ম্যাচের সাথে সিরিজ থেকেও ছিটকে যান। তার আগে তৃতীয় ওয়ানডেতে চোট পান কুঁচকিতে। যদিও সেই চোট থেকে সেরে উঠেই নেমেছিলেন চট্টগ্রাম টেস্ট খেলতে।

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

অন্ধকার জীবনের অলিগলি পেরিয়ে কাজী অনিক দিচ্ছেন বন্ধু চেনার বার্তা

Read Next

কাঁদা ছোড়াছুড়ি না করে এক হবার বার্তা দিলেন সাকিব

Total
1
Share