টি-টোয়েন্টিতে পাকিস্তানের শততম জয়

টি-টোয়েন্টিতে পাকিস্তানের শততম জয়

টেলএন্ডারদের দৃঢ়তায় টি-টোয়েন্টিতে প্রথম দল হিসেবে ১০০ তম জয় পেল পাকিস্তান। লাহোরের গাদ্দাফি স্টেডিয়ামে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ৩য় ও শেষ টি-টোয়েন্টিতে ৪ উইকেটে জয় পেয়েছে তারা। এর ফলে ২-১ ব্যবধানে সিরিজ জিতে নিয়েছে বাবর আজমের দল।

অলরাউন্ডার মোহাম্মদ নওয়াজ ও পেসার হাসান আলির ৭ম উইকেটে অবিচ্ছিন্ন ৩২ রানের জুটিতে ৮ বল বাকি থাকতে জয় তুলে নেয় পাকিস্তান।

১৬৫ রানের টার্গেটে খেলতে নেমে উদ্বোধনী জুটিতে ৫১ রান তুলে পাকিস্তানকে শুভ সূচনা এনে দেন মোহাম্মদ রিজওয়ান ও হায়দার আলি।

তবে দক্ষিণ আফ্রিকার বামহাতি স্পিনার তাব্রাইজ শামসি বোলিংয়ে এসে ম্যাচের মোড় ঘুরিয়ে দেন। নিজের প্রথম বলে সাজঘরে ফেরান হায়দার আলিকে (১৫)। পরের ওভারে রিজওয়ান (৪২) ও হুসাইন তালাতকে (৫) বিদায় করে পাকিস্তানকে চাপে ফেলে দেন।

বাবর আজম চমৎকার ব্যাটিং করে দলীয় সর্বোচ্চ ৪৪ রান করেন। তার ইনিংসের সমাপ্তি ঘটে আগের ম্যাচের সেরা ডোয়াইন প্রিটোরিয়াসের বলে বোল্ড হয়ে।

এরপর দ্রুত আসিফ আলী ও ফাহিম আশরাফ সাজঘরে ফিরে গেলেও নওয়াজ (১৮) ও হাসান আলি (২০) দাপুটে ব্যাটিং করে দলকে জয় এনে দেন। জয়সূচক ওভারে আন্দিলে ফেলুকওয়ায়োকে ২টি বিশাল ছক্কা হাঁকান হাসান আলি।

এর আগে ডেভিড মিলারের অপরাজিত ৮৫ রানের দারুণ ইনিংসে ভর করে ২০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ১৬৪ রান করে প্রোটিয়ারা। এক পর্যায়ে ৬৫ রানে ৭ উইকেট হারিয়ে ধুঁকছিল তারা। তবে মিলারের ৪৫ বলে ৫ চার ও ৭টি বিশাল ছক্কার সাহায্যে ৮৫ রানের ইনিংসে ম্যাচে ঘুরে দাঁড়ায় হেনরিখ ক্লাসেনের দল।

পাকিস্তানের পক্ষে অভিষিক্ত মোহাম্মদ জাহিদ ৩টি এবং হাসান আলি ও নওয়াজ ২টি করে উইকেট নেন।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

দক্ষিণ আফ্রিকাঃ ১৬৪/৮ (২০), মিলার ৮৫*, মালান ২৭, ভিলজন ১৬; জাহিদ ৪-০-৪০-৩,নওয়াজ ২-০-১৩-২, হাসান আলি ৪-০-২৯-২

পাকিস্তানঃ ১৬৯/৬ (১৮.৪), বাবর ৪৪, রিজওয়ান ৪২, হাসান আলি ২০*, নওয়াজ ১৮*; শামসি ৪-০-২৫-৪, ফরটুইন ৪-০-৩০-১

ফলাফলঃ পাকিস্তান ৪ উইকেটে ম্যাচ জয়ী, ২-১ ব্যবধানে সিরিজ জয়ী

ম্যাচ সেরাঃ মোহাম্মদ নওয়াজ (পাকিস্তান)

সিরিজ সেরাঃ মোহাম্মদ রিজওয়ান (পাকিস্তান)।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

‘এরকম সারপ্রাইজ আমি পছন্দ করি না’

Read Next

‘আজকে ভেবেছি ক্রিকেট নিয়ে কথা বলব না’

Total
100
Share