দারুণ শুরুর পর ছন্দপতন

নিজেদের ব্যাটিংয়ের সাথে উইকেটকেও দুষলেন তামিম

প্রথম দুইদিন ম্যাচের বাইরে থাকা বাংলাদেশ বেশ ভালোভাবে ঘুরে দাঁড়ায়। বোলারদের কল্যাণে জয়ের জন্য লক্ষ্যটা ২৩১ এ থামে। তবে মিরপুরের উইকেটে এ রান তাড়া করে জিততে হলেও রেকর্ড গড়ে জিততে হবে বাংলাদেশকে। দারুণ শুরুর পরও দ্রুত তিন উইকেট হারিয়ে আবারও শঙ্কায় টাইগাররা।

আজ (১৪ ফেব্রুয়ারি)চতুর্থ দিন চ বিরতির আগে ২১.৩ ওভার ব্যাট করে তিন উইকেত হারিয়ে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৭৮। ক্যারিবিয়ানদের হয়ে ৫ ওভারের এক স্পেলেই দুই টাইগার ওপেনারকে সাঝঘরের পথ দেখান অধিনায়ক ক্রেইগ ব্র্যাথওয়েট। ক্যারিয়ারের ২৮ তম ফিফটি তুলে তামিম ফিরেছেন ঠিক ৫০ রানে।

জিততে হলে ১৪৬ ওভারে (চতুর্থ দিন ৫৬ ও পঞ্চম দিন ৯০ ওভার) করতে হবে ২৩১। এমন সমীকরণে ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকেই ওয়ানডে মেজাজে তামিম ইকবাল। প্রায় প্রতি ওভারেই বাউন্ডারি হাঁকান দুই ওপেনার তামিম ইকবাল ও সৌম্য সরকার। দুজনের ব্যাটে ১০.৩ ওভারেই দলীয় সংগ্রহ ৫০ পার করেন দুজনে।

১২.১ ওভার স্থায়ী ৫৯ রানের উদ্বোধনী জুটি ভাঙে খন্ডকালীন বোলার হিসেবে আক্রমণে আসা ক্রেইগ ব্র্যাথওয়েটের প্রথম বলেই সৌম্য কাট খেলতে গিয়ে ক্যাচ দেয় প্রথম স্লিপে দাঁড়ানো কর্নওয়ালকে। উইকেট রক্ষক জশুয়া ডা সিলভার গ্লাভসে লেগে প্রথম স্লিপের দিকে গেলে ডাইভ দিয়ে তালুবন্দী করেন কর্নওয়াল। তবে সৌম্য ও আম্পায়ার দুজনেই ক্যাচ হয়নি বলে ধারণা করেন। আম্পায়ার আউট না দিলেও ওয়েস্ট ইন্ডিজ রিভিউ নিলে দেখা যায় ক্যাচই ছিল। প্রথম ইনিংসে খালি হাতে ফেরা এই বাঁহাতি করতে পেরেছেন ১৩ রান।

এরপর নিজের তৃতীয় ওভারে তামিমকেও ফেরান ব্র্যাথওয়েট। অফ স্টাম্পের বাইরে পড়া বল ড্রাইভ করার লোভ সামলাতে পারেননি তামিম। কিন্তু ফিরতে হয়েছে শেইন মোসেলের হাতে ক্যাচ দিয়ে। ৪৪ বলে ২৮ তম টেস্ট ফিফটি হাঁকানো তামিম ফিরেছেন ৫০ রানেই। ৯ চারে ইনিংসটি সাজান এই বাঁহাতি।

৮ রানের ব্যবধানে তিন নম্বরে নামা নাজমুল হোসেন শান্তকে ফেরান প্রথম ইনিংসে পাঁচ উইকেট শিকার করা রাখিম কর্নওয়াল। ৩১ বলে ১১ রানেই সমাপ্তি ঘটে শান্তের ইনিংসের। ক্যাচ দিয়েছেন শর্ট লেগে শেইন মোসেলের হাতে। তার আউটের পরই চা বিরতির ঘোষণা দেয় আম্পায়ার। জয়ের জন্য বাংলাদেশকে করতে হবে আরও ১৫৩, হাতে ৭ উইকেট।

সংক্ষিপ্ত স্কোর (৪র্থ দিন চা বিরতি পর্যন্ত):

ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১ম ইনিংসে ৪০৯/১০ (১৪২.২), ব্র্যাথওয়েট ৪৭, ক্যাম্পবেল ৩৬, মোসলে ৭, বোনার ৯০, মায়ের্স ৫, ব্ল্যাকউড ২৮, জশুয়া ৯২, জোসেফ ৮২, কর্নওয়াল ৪*, ওয়ারিক্যান ২, গ্যাব্রিয়েল ৮; রাহি ২৮-৬-৯৮-৪, মিরাজ ৩৩-৯-৭৫-১, তাইজুল ৪৬.২-৮-১০৮-৪, সৌম্য ১১-১-৪৮-১।

বাংলাদেশ ১ম ইনিংসে ২৯৬/১০ (৯৬.৫), তামিম ৪৪, সৌম্য ০, শান্ত ৪, মুমিনুল ২১, মুশফিক ৫৪, মিঠুন ১৫, লিটন ৭১, মিরাজ ৫৭; গ্যাব্রিয়েল ২১-৩-৭০-৩, কর্নওয়াল ৩২-৮-৭৪-৫, জোসেফ ১৭.৫-৩-৬০-২

ওয়েস্ট ইন্ডিজ ২য় ইনিংসে ১১৭/১০ (৪৮), ব্র্যাথওয়েট ৬, ক্যাম্পবেল ১৮, মোসলে ৭, বোনার ৩৮, ওয়ারিক্যান ২, মায়ের্স ৬, ব্ল্যাকউড ৯, জশুয়া ২০, জোসেফ ৯, কর্নওয়াল ১, গ্যাব্রিয়েল ১*; তাইজুল ২১-৪-৩৬-৪, নাইম ১৫.৫-৫-৩৪-৩, মিরাজ ৬-১-১৫-১, রাহি ১০-৪-৩২-২

বাংলাদেশ ই২য় ইনিংসে ৭৮/৩ (২১.৩), তামিম ৫০, সৌম্য ১৩, শান্ত ১১, মুমিনুল ২*, ব্র্যাথওয়েট ২১/২

দ্বিতীয় ইনিংসে বাংলাদেশের জয়ের জন্য আরো দরকার ১৫৩ রান।

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে নিউজিল্যান্ডের টি-টোয়েন্টি দলে স্ট্যান্ডবাই অ্যালেন

Read Next

বাংলাদেশকে ধবলধোলাই করল ওয়েস্ট ইন্ডিজ

Total
3
Share