মিরপুরে ধুকছে বাংলাদেশ

মিরপুরে ধুকছে বাংলাদেশ

আনুষ্ঠানিকভাবে বাংলা ক্যালেন্ডার থেকে আজ বিদায় নিচ্ছে শীতকাল। কিন্তু ঢাকা টেস্টে বাংলাদেশের ম্যাচ বাঁচানোর আকাশে যে কুয়াশার হানা তার শেষ হয়নি তৃতীয়দিন প্রথম সেশনেও। ফলো অনের শঙ্কা নিয়ে দিন শুরু করা বাংলাদেশ হারিয়েছে আশার আলো দেখানো মুশফিকুর রহিম ও মোহাম্মদ মিঠুনকে। হাতে চার উইকেট নিয়ে ফলো অন এড়াতে প্রয়োজন আরো ২৯ রান।

৭১ রানে ৪ উইকেট হারানো বাংলাদেশকে কিছুটা হলেও স্বস্তি দিয়েছিল দ্বিতীয় দিন শেষ সেশনে ৮৯ মিনিট ক্রিজে কাটিয়ে অবিচ্ছেদ্য থাকা মুশফিক-মিঠুনের জুটি। জুটিতে ৩৪ রান যোগ হলেও ধৈর্য্যের পরীক্ষা দিয়ে দুজনের ব্যাটিং ধরণেই আশা দেখে বাংলাদেশ।

আজ দিনের শুরুতে শ্যানন গ্যাব্রিয়েল মিঠুনকে শর্ট বল দিয়ে ওভার শুরু করেন। আগেরদিন ৬১ বল খেলে ফেলা মিঠুন ওভারের শেষ বলে ফ্রন্ট ফুটের নিখুঁত ব্যবহারে দারুণ এক কভার ড্রাইভে চার হাঁকিয়ে জবাবটাও দেন ভালোভাবে।

কিন্তু এই লড়াইটা বেশিক্ষণ ধরে রাখতে পারেননি। স্পিনে হয়েছেন কুপোকাত। রাখিম কর্নওয়ালের করা ইনিংসের ৪৬ তম ওভারের প্রথম বলে ফিরেছেন শর্ট মিড উইকেটে ক্যাচ দিয়ে। লেগ ও মিডল স্টাম্পে পিচ করা বলটি কব্জির ব্যবহারে ফ্লিক করার চেষ্টা করেন মিঠুন। কিন্তু কিছুটা ঝুঁকি নিয়ে খেলা আলতো শটে ক্যাচে পরিণত হন ক্রেইগ ব্র্যাথওয়েটের। ৮৬ বলে ১৫ রানেই থামতে হয়।

৪৭ তম ওভারের তৃতীয় বলে মুশফিকের বিপক্ষেও এলবিডব্লিউর জোরালো আবেদন কর্নওয়ালের। সুইপ করতে গিয়ে ব্যাট করা মুশফিককে নট আউটের সিদ্ধান্ত দেন আম্পায়ার। তবে রিভিউ নেয় ক্যারিবিয়ানরা, কিন্তু বল স্টাম্পে হিট করলে ইম্প্যাক্ট আউট সাইড হওয়াতে আম্পায়ার্স কলের বদলৌতে বেঁচে যান মিস্টা ডিপেন্ডেবল। ততক্ষণে অবশ্য তুলে নেন ফিফটি। আগেরদিন ২৭ রানে অপরাজিত থাকা মুশফিক ফিফটিতে পৌঁছান ৮৯ বলে।

কিন্তু ক্রিজে টিকেও উইকেট বিলিয়ে দিয়ে আসেন মুশফিক। কর্নওয়ালের স্পিনেই ফিরেছেন বিলাসি শট খেলতে গিয়ে। ৫৪ রানে ব্যাট করা মুশফিক দলের এমন পরিস্থিতিতেও খেলতে যান রিভার্স সুপ। ফল হিসেবে টাইমিং গড়মিলে ক্যাচে পরিণোত হন শর্ট কাভারে কাইল মায়ের্সের। কর্নওয়ালের তৃতীয় শিকার হওয়ার আগে ১০৫ বলে ৭ চারে ইনিংসটি সাজান মুশফিক।

১৫৬ রানেই ৬ উইকেট হারানো বাংলাদেশকে অবশ্য লাঞ্চের আগে আর কোন বিপদে পড়তে দেননি লিটন দাস ও মেহেদী হাসান মিরাজ। দুজনে বাকি সময় ক্রিজে কাটিয়ে অবিচ্ছেদ্য আছেন ২৫ রানের জুটিতে। লিটন ২৩ ও মিরাজ ১১ রানে অপরাজিত আছেন। দলীয় সংগ্রহ ৬ উইকেটে ১৮১।

সংক্ষিপ্ত স্কোর (৩য় দিন, লাঞ্চ বিরতি পর্যন্ত):

ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৪০৯/১০ (১৪২.২), ব্র্যাথওয়েট ৪৭, ক্যাম্পবেল ৩৬, মোসলে ৭, বোনার ৯০, মায়ের্স ৫, ব্ল্যাকউড ২৮, জশুয়া ৯২, জোসেফ ৮২, কর্নওয়াল ৪*, ওয়ারিক্যান ২, গ্যাব্রিয়েল ৮; রাহি ২৮-৬-৯৮-৪, মিরাজ ৩৩-৯-৭৫-১, তাইজুল ৪৬.২-৮-১০৮-৪, সৌম্য ১১-১-৪৮-১।

বাংলাদেশ ১৮১/৬ (৬১), তামিম ৪৪, সৌম্য ০, শান্ত ৪, মুমিনুল ২১, মুশফিক ৫৪, মিঠুন ১৫, লিটন ২৩*, মিরাজ ১১*; গ্যাব্রিয়েল ১৩-৩-৪৯-২, কর্নওয়াল ২০-৭-৪০-৩, জোসেফ ১৪-৩-৪৮-১

বাংলাদেশ ১ম ইনিংসে ২২৮ রানে পিছিয়ে।

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

পাকিস্তানের দক্ষিণ আফ্রিকা সফর সূচি ঘোষণা

Read Next

লিটন-মিরাজ জুটিতে বাংলাদেশময় এক সেশন

Total
6
Share