সাকিব ছাড়া বাংলাদেশ চলবে না, বিষয়টা এমন নাঃ মুমিনুল

সাকিব ছাড়া বাংলাদেশ চলবে না, বিষয়টা এমন নাঃ মুমিনুল

চট্টগ্রাম টেস্ট হারের ক্ষত ঠিকঠাক শুকানোর আগেই আগামীকাল (১১ ফেব্রুয়ারি) মিরপুরে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে দ্বিতীয় ও শেষ টেস্টে খেলতে নামবে মুমিনুল হকের বাংলাদেশ। চট্টগ্রাম টেস্টেই চোট পেয়ে ছিটকে যাওয়া সাকিব আল হাসানের সাথে ওপেনার সাদমান ইসলামকেও দ্বিতীয় টেস্টে পাচ্ছেনা বাংলাদেশ। সাকিবের না থাকাটাকে আলাদা করে ক্ষতি হিসেবে দেখতে নারাজ অধিনায়ক মুমিনুল। সাকিব, সাদমানের পরিবর্তে সুযোগ পাওয়াদের ওপর রাখতে চান আস্থা।

সাকিব আল হাসানের বদলি হিসেবে ইতোমধ্যে সৌম্য সরকারকে অন্তর্ভূক্ত করেছে নির্বাচকরা। সাদমামের বিকল্প কাউকে না নিলেও স্কোয়াডে থাকা মোহাম্মদ মিঠুনের সম্ভাবনাটাই সবচেয়ে বেশি একাদশে জায়গা পাওয়ার। যেখানে সৌম্য তামিমের সাথে ওপেন করলে মিঠুন খেলবেন ৬ নম্বরে।

তবে মিরপুর টেস্টে সবচেয়ে আলোচনার বিষয় কয়জন পেসার নিয়ে খেলবে টাইগাররা? আগের ম্যাচে একমাত্র পেসার হিসেবে খেলেছেন মুস্তাফিজুর রহমান, সাথে ছিল চার স্বীকৃত স্পিনার। এমন বোলিং আক্রমণ নিয়ে হারের পর ঢাকা টেস্টে কম্বিনেশনে পরিবর্তন আসছে কিনা তা অবশ্য খোলাসা করেননি টাইগার দলপতি মুমিনুল হক।

আজ (১০ ফেব্রুয়ারি) এক ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে মুমিনুল বলেন, ‘আসলে কন্ডিশনের উপর নির্ভর করছে, উইকেট যদি ওইরকম হয় তিনটা পেস বোলার যদি না হয় তাহলে স্পিনার খেলানো হবে। আসলে কন্ডিশনের উপর নির্ভর করবে পেস অ্যাটাক হবে নাকি স্পিন অ্যাটাক হবে।’

তবে সাগরিকায় স্পিন আধিকত্য বাড়াতে গিয়ে পেসারদের বঞ্চিত করা হয়েছে। তবে ঢাকা টেস্টে সেটি যে কিছুটা হলেও পরিবর্তন হতে পারে তার আভাস অবশ্য মুমিনুলের কণ্ঠে।

টাইগার দলপতি বলেন, ‘অবশ্যই পেসারদের প্রাধান্য দেয়া হবে। আর উইকেটের ওপরই আমরা কালকে সিদ্ধান্ত নিব কয়টা পেস বোলার খেলবে কে কে খেলবে।’

এদিকে সাকিব আল হাসানের না থাকায় বদলি হিসেবে ব্যাটিংয়ের পাশাপাশি বোলিং করতে পারে সৌম্য সরকারকে দলে ভেড়ানো প্রসঙ্গে মুমিনুল যোগ করেন, ‘সাকিব ভাই যেহেতু নাই নেই কারণে হয়তো দুইটা প্লেয়ার আমাকে ইনক্লুড করতে হবে। সেই হিসেবে আমাদের দুইটা খেলোয়াড় নতুন করে খেলবে। দুই জায়গায় হয়তো দুজন খেলোয়াড় খেলবে।’

‘জিনিসটা হলো পুরোপুরি যেহেতু সাকিব ভাই নাই তখন আমার যখন আমি আরেকটা খেলোয়াড় নেব সাকিব ভাইয়ের কারণে দুইটা খেলোয়াড় নিতে হবে। যে কারণে বোলিং পারে, ব্যাটিং-বোলিং দুইটাই পারে এমন একজন খেলোয়াড় দরকার ছিল যে কারণে ওকে (সৌম্য) অন্তর্ভূক্ত করা হয়েছে।’

সাকিব না থাকার প্রভাব কতটা পড়তে পারে এমন প্রশ্নের জবাবে টাইগার কাপ্তান মুমিনুল বলেন দলে যারা আছে তাদের নিয়েই ভাবতে চান। সাকিব দলে না থাকলে বাংলাদেশ চলবে না এমন তত্বে বিশ্বাসী নন বাংলাদেশের টেস্ট অধিনায়ক।

২৯ বছর বয়সী এই বাঁহাতি ব্যাটসম্যান বলেন, ‘জিনিসটা আপনি যেভাবে নিবেন আরকি। আপনি যদি মনে করেন যে দেখেন সাকিব আল হাসান নাই টিমটা চলবে না, বাংলাদেশ চলবে না এটাও না। দেখেন যখন সাকিব ভাই ছিলেন না বাংলাদেশ টিম কিন্তু চলেছে, ভালো খেলেছে ম্যাচ জিতেছে জিনিসটা আপনি কিভাবে নিবেন। সত্যি বলতে আমি ওভাবে চিন্তা করছি না।’

‘আমার যেটা আছে সেটা নিয়ে… একটা সিরিজে সাকিব ভাই খেলেছে সেটাও হেরেছি। এই সিরিজের একটা ম্যাচ বাকি আছে সাকিব ভাই থাকা না থাকা ওইভাবে চিন্তা করছি না। মাথায় যাতে না থাকে ওইভাবে চেষ্টা করছি। যা আছে তা নিয়েই….’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

‘৩৮’ এ এসেও মুগ্ধতা ছড়িয়ে যাচ্ছেন জিমি

Read Next

দলের সঙ্গে জুমে মিটিং করবেন বিসিবি সভাপতি

Total
6
Share