সাকিব নেই বলে কাজ সহজ হবে ভাবছে না ওয়েস্ট ইন্ডিজ

চট্টগ্রামে দ্বিতীয় দিন শেষে এগিয়ে বাংলাদেশ
Vinkmag ad

চট্টগ্রাম টেস্টের দ্বিতীয় দিনেই মাঠের বাইরে চলে যান সাকিব আল হাসান। উরুর চোটে ছিটকে গেলেন ঢাকা টেস্ট থেকেও। চট্টগ্রামে মাঠ ছাড়ার আগে ব্যাট হাতে ৬৮ রানের ইনিংসের পর বল হাতে কেবল ৬ ওভার করতে পারেন সাকিব। সাকিববিহীন বাংলাদেশের বিপক্ষে কাইল মায়ের্সের মহাকাব্যিক এক ইনিংসে অবিশ্বাস্য জয় পায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। তবে ঢাকা টেস্টেও সাকিবের না থাকাকে বাড়তি সুবিধা, মানতে নারাজ দলটির প্রধান কোচ ফিল সিমন্স।

খর্বশক্তির দল নিয়ে বাংলাদেশে আসা ক্যারিবিয়ানরা চট্টগ্রাম থেকে ঢাকায় ফিরেছে আত্মবিশ্বাসকে চূড়ায় তুলে। সাগরপাড়ের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে কাইল মায়ের্সের নায়ক বনে যাওয়া ম্যাচে এশিয়ার মাটিতে সর্বোচ্চ রান তাড়া করে জেতার রেকর্ড ওয়েস্ট ইন্ডিজের।

সফরকারী ব্যাটসম্যানরা ভয়ের জায়গা স্পিনেই খেলেছেন সাবলীলভাবে। তবে সাকিব আল হাসানের ছিটকে যাওয়াকে অজুহাত হিসেবে অনেকেই দাঁড় করালেও ওয়েস্ট ইন্ডিজ কোচ ভাবছেন ভিন্নভাবে। চট্টগ্রামের পর ঢাকায়ও সাকিব নেই, এতে ওয়েস্ট ইন্ডিজ খুব বেশি লাভবান হচ্ছে এমনটা মানতে নারাজ ফিল সিমন্স।

গতকাল (৮ ফেব্রুয়ারি) এক ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘এটা (সাকিবের না থাকা) আমাদের সুবিধা দেবে না। এটা ঠিক, বিশ্বের সেরা অলরাউন্ডারদের একজন সে। তবে তাদের অনেক স্পিনার এবং ব্যাটার আছে, যারা এখানে স্পিন বোলিং করতে পারে। সাকিবের অনুপস্থিতিতে দায়িত্ব পালনের মতো এমন কাউকে তারা খুঁজে নেবে।’

মূলত সাকিবের বদলি যে হবে সেও ভালোমানের কেউ হবে বলেই কাজটা কঠিনই থাকছে ক্যারিবিয়ায়নদের কাছে। এমনটাই মনে করেন সিমন্স, ‘সাকিবের মতো ভালো হয়তো হবে না, তবে টেস্টের জন্য যথেষ্টই ভালো হবে। তার অনুপস্থিতিতে আমাদের কাজ সহজ হয়ে যাবে, তেমনটা আমরা ভাবতে পারি না। এই ম্যাচ আমাদের জন্য সহজ হবে না।’

দারুণ এক জয়ের পরও নিজেদের উন্নতির অনেক জায়গা দেখেন ক্যারিবিয়ান কোচ, ‘আমি মনে করি, প্রতিটি জয়ের পর দলের কোন কোন জায়গায় উন্নতির প্রয়োজন সেটা আরও ভালো করে ভাবা উচিত। একটি দল যখন হারে, তখন তারা উন্নতির চেষ্টা করে। তাই বিজয়ীদেরও একই কাজ করা উচিত। আমাদের প্রতিটি ক্ষেত্রে উন্নতি করতে হবে। বাংলাদেশকে ৪০০ রানের পরিবর্তে ৩০০ রানে বেঁধে রাখতে আমরা আরও ভালো বল করতে পারি।’

‘আমার মনে হয় না, আমাদের স্পিনাররা তাদের সামর্থ্য অনুযায়ী ধারাবাহিক ছিল। তারা ভালো বোলিং করেছে, তবে বোলিংয়ে আমাদের উন্নতির আরও জায়গা আছে…আমাদের ধারাবাহিক থাকতে হবে। চট্টগ্রামের চেয়ে ঢাকা বেশি স্পিন সহায়ক হবে।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

বিশ্ব জয়ের এক বছর, আকবর আছেন আগের মতই

Read Next

চেন্নাইয়ে ভারতকে উড়িয়ে দিয়ে শুরু করল ইংল্যান্ড

Total
4
Share