উইকেট নয়, বোলারদের দুষলেন মুমিনুল

উইকেট নয়, বোলারদের দুষলেন মুমিনুল

জিততে হলে করতে হবে ৩৯৫। ৩ উইকেটে ১১০ রান নিয়ে চতুর্থ দিন শেষ করা ওয়েস্ট ইন্ডিজের শেষদিনে প্রয়োজন ২৮৫ রান। টেস্ট ইতিহাসের পরিসংখ্যান বিবেচনায় যা শুধু কঠিন নয়, বেশ কঠিনই বলতে হয়। বিশেষ করে যখন রান করতে হবে বাংলাদেশের স্পিনারদের বিপক্ষে বাংলাদেশের কন্ডিশনেই।

তবে কাইল মায়ের্স নামের ক্যারিবিয়ায়ন বাঁহাতি ব্যাটসম্যান আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে নিজের আগমনী বার্তা জানাতে বেছে নিলেন এই ম্যাচকেই। ম্যাচ শেষে টাইগার কাপ্তান নিজের বোলারদেরই দুষলেন।

অভিষেক ম্যাচেই রেকর্ড গড়া ডাবল সেঞ্চুরিতে কাইল মায়ের্স দলকে জেতালেন ৩ উইকেটে। চতুর্থ ইনিংসে কোন অভিষিক্ত ব্যাটসম্যানের প্রথম ডাবল সেঞ্চুরি। দল জেতানো ২১০ রানের হার না মানা ইনিংসে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে বাংলাদেশের প্রথম জয়ের অপেক্ষা বাড়ালো।

শেষদিনে বাংলাদেশের প্রয়োজন ছিল ৭ উইকেট, ক্যারিবিয়ায়নদের ২৮৫। ভক্ত সমর্থকদের সাথে টাইগাররা ক্রিকেটাররাও জয়ের ব্যাপারে ছিলেন আত্মবিশ্বাসী। বিশেষ করে প্রথম চারদিন চালকের আসনে থেকে হারের কথা মাথায় না আসাটাই স্বাভাবিক। পঞ্চম দিন প্রথম দুই সেশনেও ক্যারিবিয়ায়নদের কোন উইকেট তুলতে না পারা বাংলাদেশের অধিনায়ক মুমিনুলের কাছে এই হার অবিশ্বাস্য।

ম্যাচ শেষে ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে মুমিনুল বলেন, ‘আসলেই অবিশ্বাস্য। কিন্তু এটাই গোল বলের খেলা। ক্রিকেটে অবিশ্বাস্য অনেক কিছুই হয়ে যায়। প্রত্যাশায় ছিল না এমন কিছু হবে। আমার কাছে মনে হয় বোলাররা ভালো জায়গায় বল করতে পারেনি। ওদের দুই ব্যাটসম্যান খুব ভালো ব্যাটিং করেছে।’

‘কোনো সময়ই আমার কাছে মনে হয়নি (ম্যাচ হারব)। গত চার দিন আমরা দাপট দেখিয়েছি। আজ শেষের দিকে ম্যাচটা হেরে গেছি। আমি চিন্তাও করিনি শেষদিকে ম্যাচটা হেরে যাব।’

পঞ্চম দিন বিবেচনায় বাংলাদেশের কন্ডিশন বলে উইকেটে বাড়টি টার্নই প্রত্যাশিত ছিল। কিন্তু ক্যারিবিয়ায়ন ব্যাটসম্যানদের, বিশেষ করে কাইল মায়ের্স ও ক্রুমাহ বোনারকে খুব একটা অস্বস্তিতে ফেলতে দেখা যায়নি। উইকেট নয় ব্যর্থতা বোলারদেরই বলছেন টাইগার কাপ্তান।

উইকেট নিয়ে কোন অভিযোগ না করে মুমিনুল বলেন, ‘উইকেটে যথেষ্ট সুযোগ ছিল। আমরা আমাদের সুযোগ কাজে লাগাতে পারিনি। বোলাররাও ভালো জায়গায় বল করেছে। সুযোগগুলো যদি কাজে লাগাতে পারতাম! খেলাটা অন্যরকম হতে পারত। এই দুই ব্যাটসম্যানের দুইটা সুযোগ ছিল। কাজে লাগালে মোমেন্টাম বদলে যেত। এই উইকেটে সেট হয়ে গেলে আউট করা কঠিন।’

কাইল মায়ের্সের ব্যাটিংয়ের প্রশংসা করে টাইগার কাপ্তান যোগ করেন, ‘অসাধারন ব্যাটিং করেছে। সহজ না তো। দ্বিতীয় ইনিংসে প্রায় ৪০০ তাড়া করা, নিজে ২০০ করা। অসাধারণ।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

যেভাবে মায়ের্সদের অনুপ্রাণিত করেছেন গ্যাব্রিয়েল

Read Next

স্কোরবোর্ডের দিকে তাকানো থেকে বিরত ছিলেন মায়ের্স

Total
7
Share