টেস্টে তাইজুলের লক্ষ্য ‘৩০০’ উইকেট

টেস্টে তাইজুলের লক্ষ্য '৩০০' উইকেট

২০১৪ সালে টেস্ট অভিষেকের পর থেকেই বাংলাদেশ দলে জায়গাটা পাকা বাঁহাতি অর্থোডক্স তাইজুল ইসলামের। ইতোমধ্যে বাংলাদেশের টেস্ট ইতিহাসের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি বনে গেছেন। ২৯ ম্যাচে ১১৪ উইকেট নিয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে চট্টগ্রাম টেস্ট শুরু করা তাইজুলের ঝুলিতে প্রথম ইনিংসে দুই উইকেট। বর্তমানে নামের পাশে ১১৬ উইকেট থাকা তাইজুল ক্যারিয়ার শেষ করতে চান অন্তত ৩০০ উইকেটের মালিক হয়ে।

চট্টগ্রাম টেস্টের আগে ২৯ ম্যাচে ৫০ ইনিংস বল করেই বাঁহাতি এই স্পিনারের শিকার ১১৪ উইকেট। ইনিংসে ৫ উইকেট নেওয়ার ঘটনা ৭ বার, ম্যাচে ১০ উইকেট আছে একবার। সাকিব আল হাসান দলে থাকা সত্বেও পারফরম্যান্স দিয়ে জায়গা করেছেন পাকা। ৬ বছরের আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ার, ফলে তরুণদের জন্য অভিজ্ঞদের একজন হয়ে উঠেছেন। কিছুদিন আগে নিজেই জানিয়েছেন সাকিবের সাথে খেলার ফলে অর্জন করেছেন বেশ অভিজ্ঞতা, তরুণদের করতে চান সাহায্যও।

ক্যারিবিয়ায়নদের বিপক্ষে প্রথম ইনিংসে অবশ্য খুব একটা ভালো করেননি তাইজুল। বিশেষ করে দলের স্ট্রাইক বোলার সাকিব চোটের কারণে মাঠের বাইরে যাওয়ায় তার উপর বর্তানো দায়িত্ব ঠিকঠাক পালন করতে পারেননি। ৩৩.১ ওভার বল করে ৮৪ রান খরচায় নিয়েছেন ২ উইকেট।

দিনশেষে ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে ক্যারিয়ারের লক্ষ্য সম্পর্কে জানাতে গিয়ে এই বাঁহাতি বলেন, ‘একজন খেলোয়াড়ের ভালো করার কোনো শেষ নেই। প্রতিদিনই মন চায় দশটা করে উইকেট নেই, একশ রান করি। সবকিছু তো কপালে থাকে না। টেস্ট ক্রিকেটে যেন ৩০০ উইকেট পেতে পারি, এই লক্ষ্য।’

২৯ টেস্টের বিপরীতে জাতীয় দলের হয়ে ওয়ানডে খেলেছেন মাত্র ৯ টি, টি-টোয়েন্টি সংখ্যা মাত্র দুইটি। গায়ে টেস্ট ক্রিকেটার তকমা লেগে যাওয়া ২৮ বছর বয়সী এই বাঁহাতি স্পিনার খেলতে চান তিন ফরম্যাটেই। যে কারণে স্পিন বোলিং কোচ ড্যানিয়েল ভেট্টোরির পরামর্শে বদলেছেন অ্যাকশনও। বাড়তি সুবিধার লক্ষ্যে সাম্প্রতিক সময়ে বেশ কয়েকবারই অ্যাকশন বদলাতে দেখা যায় তাইজুলকে।

তবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজ শুরুর আগেই ফিরে এসেছেন পুরোনো অ্যাকশনে। বারবার অ্যাকশন বদলানো ও ব্যর্থ হয়ে পুরোনো অ্যাকশনে ফেরা সম্পর্কে ব্যাখ্যা দিয়েছেন তাইজুল নিজেই।

তাইজুল বলেন, ‘বদলেছিলাম (অ্যাকশন) কিছু কারণে, আবার আগের অ্যাকশনে ফেরারও কিছু কারণ আছে। নিজের উন্নতির জন্য কয়েকদিন অনুশীলন করেছি (পরিবর্তিত অ্যাকশনে)। আসলে স্বাভাবিক অ্যাকশন এক জিনিস, আরেক অ্যাকশন তৈরি করা আলাদা জিনিস।’

‘যখন দেখেছি অনুশীলন করে বা ম্যাচে বোলিং করে পক্ষে আসছে না… আর আমার পুরনো অ্যাকশন তো আয়ত্ত্বে আছেই। যখন দেখলাম পক্ষে আসছে না, তখন পুরনো অ্যাকশনে ফিরে গেছি।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

‘২৫০’ ই যথেষ্ট বলছেন তাইজুল, তবে…

Read Next

সাকিব সর্বোচ্চ ভিত্তিমূল্যে আইপিএলের নিলামে

Total
2
Share