তৃতীয় দিনের প্রথম সেশন বাংলাদেশের

তৃতীয় দিনের প্রথম সেশন বাংলাদেশের
Vinkmag ad

চট্টগ্রাম টেস্টের তৃতীয় দিন প্রথম সেশনেই টাইগার স্পিন ভেল্কিতে তিন উইকেট হারিয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। তবে টাইগার স্পিনারদের ভেল্কির পরও ওয়ানডে মেজাজে রান তুলেছেন ক্রেইগ ব্র্যাথওয়েট, কাইল মায়ের্স, জার্মেইন ব্ল্যাকউডরা। ৫ উইকেটে ১৮৯ রানে লাঞ্চে যায় ক্যারিবিয়ানরা। এই এক সেশনেই স্কোরবোর্ডে তোলে ১১৪ রান।

আগেরদিন ২ উইকেটে ৭৫ রানে দিন শেষ করে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। বাংলাদেশের ৪৩০ রানের জবাবে পিছিয়ে ছিল ৩৫৫ রানে। আজ প্রথম সেশনে ১১৪ রান যোগ করতে গিয়ে হারিয়েছে আরও তিন উইকেট। তবে উইকেটে স্পিন দেখে ক্যারিবিয়ানরা হয়তো রান তোলাতেই দিয়েছে বাড়তি মনযোগ। যে পথে তাইজুল, নাইম, মিরাজরা নিয়েছেন কঠিন পরীক্ষাও।

তাইজুলের করা দিনের প্রথম বল থেকেই উইকেটে স্পিন ধরতে দেখা যায়। লেংথে ফেলা অফ স্টাম্পের আশেপাশে পড়া বলটি ক্রুমাহ বোনারকে এজ করাতে যথেষ্ট ছিল। যা প্রথম স্লিপে দাঁড়ানো নাজমুল হোসেন শান্ত তালুবন্দী করতে কোন সমস্যা হয়নি। আগের দিনের ১৭ রানেই থামে অভিষিক্ত এই ব্যাটসম্যানের ইনিংস, ভাঙে অধিনায়কের সাথে ৫১ রানের জুটি।

একই ওভারের চতুর্থ বলেই ফিরতে পারতেন নতুন ব্যাটসম্যান কাইল মায়ের্সও। তবে আউটসাইড এজ হয়ে বল কিপার লিটন দাসের কনুইয়ে লেগে শান্ত পর্যন্ত পৌঁছাতে পৌঁছাতে কঠিন হয়ে যায়। মায়ের্সকে নিয়ে ১১.১ ওভারে ৫৫ রানের জুটি বাঁধেন অধিনায়ক ব্র্যাথওয়েট। দ্রুত রান তোলার পথে খেলেছেন দারুণ সব শটও।

৫৪ বলে ক্যারিয়ারের ২০তম ফিফটি ছুঁয়েছেন অধিনায়ক ক্রেইগ ব্র্যাথওয়েট। দলের রান বাড়ানোর কাজটা চালিয়ে যাচ্ছিলেন সামনে থেকে। তবে নাইম হাসানের পরিষ্কার অফ স্পিনকে আর্মার ভেবে ছেড়ে দিতে গিয়ে হয়েছেন বোল্ড। ফিরতে হয়েছে ১১১ বলে ১২ চারে ৭৬ রান করে।

ওয়ানডে মেজাজে খেলছিলেন অভিষিক্ত কাইল মায়ের্সও। তবে তার শেষ পরিণতিও হয় মিরাজের অফ স্পিনে। ৫০ তম ওভারে কিছুটা হাওয়ায় ভাসিয়ে দেওয়া মিরাজের শেষ বলটি জায়গায় দাঁড়িয়ে ডিফেন্ড করতে চান মায়ের্স। কিন্তু ফাঁদে পড়েন এলবিডব্লিউর। ৬৫ বলে ৭ চারে সাজানো অভিষেক ইনিংসটি থামে ৪০ রানে।

তার বিদায়ের পর লাঞ্চের আগ পর্যন্ত অবিচ্ছেদ্য ছিল জশুয়া ডা সিলভা ও জার্মেইন ব্ল্যাকউডের জুটি, দুজনে মিলে যগ করেন ৩৫ রান। তবে বেশ ভুগতে হয়েছে মিরাজ, নাইমদের বলে। সিলি পয়েন্ট, ফরোয়ার্ড শর্ট লেগে তৈরি হয় আউট হওয়ার বেশ কয়েকটি সুযোগও। যদিও শেষে পর্যন্ত ৩৪ রানে ব্ল্যাকউড ও ১২ রানে অপরাজিত থেকে লাঞ্চে যায় জশুয়া।

চট্টগ্রাম থেকে, ক্রিকেট৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

কোহলিকে পেছনে ফেলে আইসিসির জরিপে জিতলেন বাবর

Read Next

নতুন চোট ধরা পড়েছে সাকিবের

Total
2
Share