কোচের দেওয়া চ্যালেঞ্জ জিতে বিবেচনায় মুস্তাফিজ

কোচের দেওয়া চ্যালেঞ্জ জিতে বিবেচনায় মুস্তাফিজ

মুস্তাফিজুর রহমানের মায়াবী কাটারে কত কত তারকা ব্যাটসম্যানের উঠেছিল নাভিশ্বাস। অথচ এই কাটারেই একটা সময় মুস্তাফিজ নিজে ছেড়েছেন দীর্ঘশ্বাস। প্রযুক্তির এই যুগে আধুনিক ক্রিকেটে এক অস্ত্র দিয়ে টিকে থাকা দায়। পড়তি ফর্মে নানা প্রশ্নের ভীড়ে একটা সময় টেস্ট স্কোয়াডেও জায়গা হারান ফিজ।

স্বল্পভাষী মুস্তাফিজ করেছেন অনুধাবন, সঙ্গী হিসেবে নতুন শুরুর যাত্রায় ওটিস গিবসনকে পেয়েছেন। টিকে থাকার লড়াইয়ে টাইগার পেস বোলিং কোচের মেধা, মনন; মুস্তাফিজের ছিল পরিশ্রম। বোলিং বৈচিত্র‍্যে যোগ করেছেন ইনসুইং, লক্ষ্য শুধু কাটার নয়, বল ভেতরেও ঢোকাবেন।

বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপের পর ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজেও মিলেছে তার প্রমাণ। তিন ম্যাচে শিকার ৬ উইকেট, তবে উইকেট সংখ্যার চেয়ে ডানহাতি ব্যাটসম্যানের ক্ষেত্রে তার বল ভেতরে ধোকানোর কারিশমা নজর কেড়েছে। শুধু কাটার মাস্টার খ্যাতি নয় বাঁহাতি এই পেসার পরিপূর্ণ পেসার হতে চান। বেলা গড়ালে বোঝা যাবে কতটা পেরেছেন, তবে পরিশ্রম ফল যে পাওয়া তার ছাপই রেখেছেন।

টেস্ট ক্রিকেটে টিকে থাকতে বৈচিত্র্য বাড়াতে হবে প্রধান কোচ রাসেল ডোমিঙ্গো বার্তা দিয়ে রেখেছিলেন আগেই। গত বছর পাকিস্তানের বিপক্ষে টেস্টের স্কোয়াড থেকে বাদও দেওয়া হয়। যদিও পরের সিরিজেই জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ফেরানো হয় কিন্তু সেটি একাদশে জায়গা দিতে নয়, ওটিস গিবসনের সান্নিধ্যে কাজ করানোর জন্য।

সর্বশেষ কয়েক মাসে মুস্তাফিজ যে উন্নতি করেছেন সেটা বলাই বাহুল্য। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টেস্ট স্কোয়াডে তাকে এবার বিবেচনা করা হয়েছে খেলানোর ভাবনা থেকেই। বাঁহাতি এই পেসারের উন্নতিতে মুগ্ধ কোচ রাসেল ডোমিঙ্গো। ২৫ বছর বয়সী এই পেসার সর্বশেষ টেস্ট খেলেছেন ২০১৯ সালের মার্চে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে।

আগামী ৩ ফেব্রুয়ারি চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে শুরু হবে দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজের প্রথমটি। প্রায় ২ বছর পর টেস্ট খেলার অপেক্ষায় থাকা মুস্তাফিজ প্রসঙ্গে এক ভিডিও বার্তায় গণমাধ্যমের প্রশ্নের জবাবে মুস্তাফিজকে প্রশংসাইয় ভাসান টাইগারদের প্রধান কোচ।

তিনি বলেন, ‘দেখুন আমার মনে হয় আমি বেশ আগেই বলেছিলাম যে মুস্তাফিজ বল ভেতরে না সুইং করাতে পারলে টেস্ট ম্যাচে সমস্যায় পড়বে। সে আমাদের বোলিং কোচের সঙ্গে গত ৮-৯ মাস কঠোর পরিশ্রম করেছে এই বিষয়টি ভালোভাবে আয়ত্ত করতে। এবং আপনারা ওয়ানডেতে দেখেছেন যে সে সেটি করতে পেরেছে। এখনও শতভাগ ধারাবাহিক না হলেও ইনসুইং করানোর ক্ষেত্রে তার বেশ উন্নতি হয়েছে। সে একজন কোয়ালিটি পারফরমার, অভিজ্ঞ, সে একজন বাঁহাতি যা একটু ভিন্ন (বাকি পেসারদের থেকে)।’

প্রথম টেস্টের একাদশে বাঁহাতি এই পেসার বেশ ভালোভাবেই বিবেচনায় আছেন ডোমিঙ্গো দিলেন সেই আভাসও, ‘সে ডানহাতি ব্যাটসম্যানের অফ সাইডে রাফ তৈরি করতে পারবে যা আমাদের অফ স্পিনারদের সাহায্য করবে। সুতরাং সে অবশ্যই এই টেস্টে একজন অপশন। সে খুবই ভালো অনুশীলন করেছে, সে ফিট এবং তার এনার্জিও দারুণ ছিল এবং তার স্কিলও আগের চেয়ে বেড়েছে। এবং গত ৮-৯ মাসের উন্নতির ভিত্তিতে আমি তাকে সামনে আমাদের টেস্ট স্কোয়াডের অংশ হিসেবে দেখি।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

অনভিজ্ঞদের কঠিন চ্যালেঞ্জ থেকে দূরে রাখতে চান ডোমিঙ্গো

Read Next

অধিনায়ক মুমিনুলের উন্নতিতে সাকিব-তামিমদের পাশে চান কোচ

Total
38
Share