পাকিস্তানের ৭ উইকেটের জয়, নওমানের ৭

পাকিস্তানের ৭ উইকেটের জয়, নওমানের ৭

করাচি টেস্টে পাকিস্তানি স্পিনারদের ঘূর্ণিজাদুতে চারদিনেই হার দেখল সফরকারী দক্ষিণ আফ্রিকা। ঘরের মাঠে সিরিজের প্রথম টেস্টেই ৭ উইকেটের বড় জয় পাকিস্তানের। অভিষেক টেস্টে ৭ উইকেট নিয়ে দলকে জেতালেন স্পিনার নওমান আলি। তবে ম্যাচের সেরা নির্বাচিত হন প্রথম ইনিংসে শতরান করা ফাওয়াদ আলম।

করাচি টেস্টে ৭ উইকেটে জয়ের সুবাদে ২ ম্যাচের সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে যায় পাকিস্তান। দেশের বাইরে খেলা শেষ ৮ টেস্টে ধরেই পরাজিত প্রোটিয়ারা।

জয়ের জন্য শেষ ইনিংসে পাকিস্তানের সামনে লক্ষ্যমাত্র দাঁড়ায় ৮৮ রানের। পাকিস্তান ৩ উইকেটের বিনিময়ে ৯০ রান তুলে ম্যাচ জিতে যায়। ইমরান বাট ১২, আবিদ আলি ১০ ও বাবর আজম ৩০ রান করে আউট হন। আজহার আলি ৩১ ও ফাওয়াদ আলম ৪ রানে অপরাজিত থাকেন।

বল হাতে আনরিখ নরকিয়া ২টি ও মহারাজ ১টি উইকেট দখল করেন।

করাচি টেস্টে দক্ষিণ আফ্রিকা প্রথম ইনিংসে অলআউট হয়ে যায় ২২০ রানে। জবাবে ব্যাট করতে নেমে পাকিস্তান তাদের প্রথম ইনিংসে তোলে ৩৭৮ রান। ফাওয়াদ আলম ১০৯ রানের অনবদ্য ইনিংস খেলেন।

প্রথম ইনিংসে ১৫৮ রানে পিছিয়ে থাকা দক্ষিণ আফ্রিকা তৃতীয় দিনের শেষে তাদের দ্বিতীয় ইনিংসে ৪ উইকেটের বিনিময়ে ১৮৭ রান তুলেছিল। আজ ম্যাচের চতুর্থ দিনে খেলতে নেমে দক্ষিণ আফ্রিকা দ্বিতীয় ইনিংসে অলআউট হয়ে যায় ২৪৫ রানে। টেম্বা বাভুমার ৪০ রান ছাড়া চতুর্থ দিনে বলার মতো রান করতে পারেননি আর কেউই। কুইন্টন ডি কক ২, কেশব মহারাজ ২, জর্জ লিন্ডে ১১, কাগিসো রাবাদা ১ ও আনরিখ নরকিয়া শূন্য রানে আউট হন।

নওমান আলি অভিষেক টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসে ৩৫ রানের বিনিময়ে ৫ উইকেট দখল করেন। প্রথম ইনিংসে তিনি ৩৮ রানে ২ উইকেট নিয়েছিলেন। এছাড়া পাকিস্তানের হয়ে দ্বিতীয় ইনিংসে ইয়াসির শাহ ৪টি উইকেট শিকার করেন।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

দক্ষিণ আফ্রিকা ১ম ইনিংসঃ ২২০/১০ (৬৯.২ ওভার) এলগার ৫৮, মার্করাম ১৩, ভ্যান ডার ডুসেন ১৭, ডু প্লেসিস ২৩, ডি কক ১৫, বাভুমা ১৭, লিন্ডে ৩৫, রাবাদা ২১*; আফ্রিদি ১১.২-০-৪৯-২, হাসান আলি ১৪-৫-৬১-১, নওমান ১৭-৪-৩৮-২, ইয়াসির ২২-৬-৫৪-৩

পাকিস্তান ১ম ইনিংসঃ ৩৭৮/১০ (১১৯.২ ওভার) ইমরান ৯, আবিদ ৪, বাবর ৭, আজহার ৫১, ফাওয়াদ ১০৯, রিজওয়ান ৩৩, ফাহিম ৬৪, হাসান ২১, নওমান ২৪, ইয়াসির ৩৮*; রাবাদা ২৭-৭-৭০-৩, নরকিয়া ২৭-৪-১০৫-২, লুঙ্গি ১৭-১-৫৭-২, মহারাজ ৩২.২-৪-৯০-৩

দক্ষিণ আফ্রিকা ২য় ইনিংসঃ ২৪৫/১০ (১০০.৩ ওভার) মার্করাম ৭৪, এলগার ২৯, ডুসেন ৬৪, ডু প্লেসিস ১০, ডি কক ২, মহারাজ ২, বাভুমা ৪০, লিন্ডে ১১; ইয়াসির ৩৩-৭-৭৯-৪, নওমান ২৫.৩-৮-৩৫-৫, হাসান ১৬-১-৬১-১

পাকিস্তান ২য় ইনিংসঃ ৯০/৩ (২২.৫ ওভার) ইমরান ১২, আবিদ ১০, বাবর ৩০, আজহার ৩১*, ফাওয়াদ ৪*; নরকিয়া ৭-১-২৪-২, মহারাজ ১.৫-০-১২-১

ফলাফলঃ পাকিস্তান ৭ উইকেটে জয়ী

ম্যাচ সেরাঃ ফাওয়াদ আলম (পাকিস্তান)

সিরিজঃ পাকিস্তান ১-০’তে এগিয়ে।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

রিশাদের পাঁচ উইকেটে শুরু আর শেষের অমিল দেখলো ক্যারিবিয়ানরা

Read Next

ক্রিজে থেকে রিশাদের বোলিং যেমন দেখলেন ব্র্যাথওয়েট

Total
15
Share