ফাওয়াদের সেঞ্চুরির দিন দুই ফিফটি, পাকিস্তানের লিড

পাকিস্তানকে টানলেন ফাওয়াদ আলম

ছোট পুঁজি নিয়েও আগের দিন বিকালে লড়াই জমিয়ে দিয়েছিল প্রোটিয়া বোলাররা। তবে পাকিস্তানের মিডল অর্ডারের ব্যাটসম্যানরা রাবাদা, নরকিয়াদের পরীক্ষা নিলেন করাচি টেস্টের দ্বিতীয় দিন। ক্যারিয়ারের তৃতীয় সেঞ্চুরির দেখা পেলেন ফাওয়াদ আলম। আজহার আলি ও ফাহিম আশরাফের দুর্দান্ত অর্ধশত রান। এক সেঞ্চুরি আর দুই ফিফটিতে পাকিস্তান পেল ৮৮ রানের লিড (২ উইকেট হাতে রেখে)।

আগের দিন দক্ষিণ আফ্রিকাকে ২২০ রানে গুটিয়ে দিয়েও ৪উইকেটে ৩৩ রান নিয়ে দিন শেষ করেছিল পাকিস্তান। করাচি টেস্টের দ্বিতীয় দিন আজ ১৮৭ রানে পিছিয়ে থেকে স্বাগতিকরা ব্যাট করতে নামে। অপরাজিত থাকা আজহার আলি ও ফাওয়াদ আলম শুরু থেকেই উইকেট কামড়ে পড়ে থাকার প্রতিজ্ঞা প্রকাশিত প্রথম সেশনে। ৪২ ওভার শেষে দলীয় রান ১০০তে পৌঁছায় পাকিস্তানের।

দিনের প্রথম সেশনে আজহার আলি ও ফাওয়াদ আলম শুধু নিজেদের ধৈর্যের পরীক্ষাই দিলেন না, প্রোটিয়া বোলারদের পরীক্ষাও নিলেন। লাঞ্চ বিরতির পর আজহার আলি ফিফটি পূর্ণ করেন ১৪৬ বলে। তবে ফিফটির পর বেশিক্ষণ উইকেটে তাঁকে থাকতে দেয়নি কেশব মহারাজ। ৫৪তম ওভারে আউট হয়ে যাওয়ার আগে দুজন মিলে খেলেছেন ৩৭.৪ ওভার, রান ৯৪।

এরপর মোহাম্মদ রিজওয়ান এসে ফাওয়াদ আলমকে ভালোই সঙ্গ দেন। তাঁদের মধ্যে জুটিও হয় ৫৫ রানের। ৩৩ রান করা উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান রিজওয়ানকে ক্যাচ বানিয়ে প্যাভিলিয়েনে ফেরান লুঙ্গি এনগিডি।

এরপর ফাহিম আশরাফ আর ফাওয়াদ আলমের ব্যাটে লিডে যায় পাকিস্তান। এরমধ্যেই ২২০ বলে সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন ফাওয়াদ আলম। তবে লুঙ্গি এনগিডির বলে আউট হওয়ার আগে ফাওয়াদ আলমের ব্যাট থেকে আসে ১০৯ রানের ইনিংস। ভাঙে ফাহিম আশরাফের সঙ্গে ফাওয়াদের ১০২ রানের জুটি। ২৪৫ বলে ৯ চার ও ২ ছক্কায় ১০৯ রান করেন ফাওয়াদ।

এরপর আনরিখ নরকিয়ার বলে আউট ৬৪ রান করা ফাহিম আশরাফ। ১০৩.৩ ওভারে ৩০০ রান পার করা পাকিস্তান ৮ উইকেটে ৩০৮ রানে দিন শেষ করে। দিন শেষে হাসান আলি ১১ ও নওমান আলি ৬ রানে অপরাজিত। পাকিস্তান এগিয়ে আছে ৮৮ রানে।

বল হাতে দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে দুটি করে উইকেট নেন কাগিসো রাবাদা, লুঙ্গি এনগিডি, কেশব মহারাজ ও আনরিখ নরকিয়া।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ (দ্বিতীয় দিন শেষে)

দক্ষিণ আফ্রিকা ১ম ইনিংসঃ ২২০/১০ (৬৯.২ ওভার) এলগার ৫৮, মার্করাম ১৩, ভ্যান ডার ডাসেন ১৭, ডু প্লেসিস ২৩, ডি কক ১৫, বাভুমা ১৭, লিন্ডে ৩৫, রাবাদা ২১*; আফ্রিদি ১১.২-০-৪৯-২, হাসান আলি ১৪-৫-৬১-১, নওমান ১৭-৪-৩৮-২, ইয়াসির ২২-৬-৫৪-৩

পাকিস্তান ১ম ইনিংসঃ ৩০৮/৮ (১০৭ ওভার) ইমরান ৯, আবিদ ৪, বাবর ৭, আজহার ৫১, ফাওয়াদ ১০৯, রিজওয়ান ৩৩, ফাহিম ৬৪, হাসান ১১*; রাবাদা ২৩-৭-৪৫-২, নরকিয়া ২৪-৪-৮৪-২, লুঙ্গি ১৫-০-৫৫-২, মহারাজ ২৯-৪-৭১-২

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

বাংলাদেশ জাতীয় দলের নির্বাচক হলেন আব্দুর রাজ্জাক

Read Next

বাংলা টাইগার্সে দুই ভূমিকায় আফিফ

Total
2
Share