‘আমরা চাই মুস্তাফিজ আরো ভালো করুক’

'আমরা চাই মুস্তাফিজ আরো ভালো করুক'

সদ্য সমাপ্ত ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজের পর হালনাগাদকৃত বোলারদের রাংকিংয়ে সেরা দশে সুযোগ মিলেছে বাংলাদেশের দুইজনের। চতুর্থ অবস্থানে উঠে আসা মেহেদী হাসান মিরাজ প্রথমবার সেরা দশে প্রবেশ করলেও ৮ম অবস্থানে থাকা মুস্তাফিজুর রহমান এ নিয়ে দ্বিতীয় বার সেরা দশে জায়গা পেলেন। মুস্তাফিজের সাফল্যও আনন্দিত করছে বন্ধু মিরাজকে।

কিছুটা পড়তি পারফরম্যান্স ও খুব বেশি বোলিং বৈচিত্র্য না থাকায় বাঁহাতি পেসার মুস্তাফিজের টিকে থাকা নিয়ে উঠেছিল নানা প্রশ্ন। তবে অনুধাবন করতে পারা মুস্তাফিজ পরিশ্রমের সাথে বোলিংয়ে নতুন অস্ত্র যোগ করে জবাবটা মাঠেই দিয়েছেন।

বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপে ১০ ম্যাচে ২২ উইকেট নিয়ে হয়েছেন সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজে ৩ ম্যাচে শিকার ৬ উইকেট। প্রতি ম্যাচেই শুরুতে দলকে দিয়েছেন ব্রেক থ্রু। উইকেট সংখ্যার বাইরে কাটারের সাথে তার নতুন আয়ত্ব করা ইনসুইং কারিশমা ছিল নজরকাড়া।

যার পুরষ্কার পেলেন হালনাগাদকৃত র‍্যাংকিংয়ে, ৬৫৮ রেটিং পয়েন্ট নিয়ে উঠে এসেছেন ৮ম অবস্থানে। এগিয়েছেন ১১ ধাপ। এর আগে ২০১৮ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজ শেষে ৬৯৩ রেটিং পয়েন্ট নিয়ে মুস্তাফিজ প্রথমবারের মত উঠে আসেন সেরা দশে। সেবার তার অবস্থান ছিল পঞ্চম।

তবে এবার দুই বন্ধু মিরাজ-মুস্তাফিজ একই সাথে ঢুকলেন সেরা দশে। অফ স্পিনার মেহেদী হাসান মিরাজ ও মুস্তাফিজুর রহমান বয়সভিত্তিক থেকে একে অপরের ভালো বন্ধু। নিজের প্রথম সেরা দশে প্রবেশের দিনে বন্ধু মুস্তাফিজকেও প্রশংসায় ভাসালেন মিরাজ।

আজ (২৭ জানুয়ারি) এক ভিডিও বার্তায় মিরাজ বলেন, ‘আমাদের সবার জন্য এটা অনেক ভালো জিনিস মুস্তাফিজুর টপ টেনের মধ্যে আছে। মুস্তাফিজ অনেক ওয়ার্ল্ড ক্লাস বোলার। ওয়ানডে ক্রিকেট দেশকে অনেক অনেক জয় এনে দিয়েছে মুস্তাফিজ। ওর জন্য এ রকম একটা জিনিস দরকার ছিল।’

‘লাস্ট অনেক দিন ও ছন্দে ছিল না বাট আমার কাছে মনে হয় এই সিরিজে অনেক ভালো বল করেছে এবং আমার মনে হয় যে টিম ম্যানেজমেন্ট থেকে শুরু করে প্রত্যেকটা প্লেয়ারই হ্যাপি ওর পারফরম্যান্সে। আমরা চাই মুস্তাফিজ আরো ভালো করুক এবং বাংলাদেশকে অনেক কীর্তি এনে দিক, জয় এনে দিক।’

নিজেদের বন্ধুত্বের কথা তুলে ধরে মিরাজ যোগ করেন, ‘মুস্তাফিজ তো আমার অনেক কাছের বন্ধু। আমরা ছোট বেলা থেকেই একসাথে ক্রিকেট খেলেছি অনুর্ধ ১৬, ১৭, ১৮, ১৯ সবই খেলেছি। কিন্তু ওর সাথে অনেক দুষ্টামিও করি। খুব ভালো লাগছে যে ও টপ টেনের ভিতরে আছে।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

চিন্তাও করতে পারেননি মিরাজ!

Read Next

বাংলাদেশ জাতীয় দলের নির্বাচক হলেন আব্দুর রাজ্জাক

Total
7
Share