সাকিব-রিয়াদের যে টোটকায় সফল মিরাজ

সাকিব-রিয়াদের যে টোটকায় সফল মিরাজ

সিরিজ নিশ্চিত করা ম্যাচে মিরপুরে স্পিন ভেল্কি দেখিয়েছেন মেহেদী হাসান মিরাজ। ওয়েস্ট ইন্ডিজ ব্যাটসম্যানদের স্পিন মায়াজালে আঁটকে দিয়ে করেছেন ক্যারিয়ার সেরা বোলিং, জিতেছেন ম্যাচ সেরার পুরস্কার। দুই ম্যাচেই ধারাবাহিক ভালো বোলিং করেছেন সাকিব আল হাসানও। ম্যাচ শেষে মিরাজ জানিয়েছেন সাকিব আল হাসান ও মাহমুদউল্লাহর পরামর্শ কাজে লাগিয়ে কিভাবে সফল হয়েছেন।

৯.৪ ওভারের স্পেলে ২৫ রান খরচায় মিরাজের শিকার ৪ উইকেট। ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ১৪৮ রানে গুটিয়ে দেওয়ার পথে বেশ বড় ভূমিকা রেখেছে এই অফ স্পিনার। আগের ম্যাচ ৪ উইকেট নেওয়া সাকিব এদিন নিয়েছেন দুই উইকেট। নিজে ধারাবাহিকভাবে সফল হওয়ার পাশাপাশি পরামর্শ দিয়েছেন মিরাজকে।

ম্যাচ শেষে ভার্চুয়া প্রেস কনফারেন্সে মিরাজ বলেন, ‘আসলে আমাদের একটা জিনিস দেখেন, আমরা তো সব সময় স্পিনাররা খুব ভালো জায়গায় বোলিং করেছি। বিশেষ করে সাকিব ভাই, আমরা তো জানি সাকিব ভাইয়ের অভিজ্ঞতা। সে সব সময় ভালো বোলিং করে এবং ভালো জায়গায় পরিস্থিতি অনুযায়ী বল করে। আমি জুনিয়র প্লেয়ার হিসেবে অনেক কিছু শিখি সাকিব ভাইয়ের কাছে থেকে। তিনি আমাকে বিভিন্ন রকম টিপস দেন এবং পরিস্থিতি অনুযায়ী বিভিন্ন কথা বলে।’

প্রথম ম্যাচে এক উইকেট পাওয়া মিরাজ খুব একটা স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করেননি। সাকিবের পরামর্শে দ্বিতীয় ম্যাচে জ্বলে উঠা মিরাজ যোগ করেন, ‘প্রথম ম্যাচে আমি কিন্তু ওই রকম স্বাচ্ছন্দ্যে ছিলাম না। সাকিব ভাই হয়ত দুইটা কথা বলেছে ওই দুইটা কথাই আমার অনেক কাজে লেগেছে। যেমন বাঁহাতি ব্যাটসম্যান যখন ব্যাটিং করছিল আমাকে সাবলীলভাবে ব্যাটিং করছিল।’

‘আমাকে বলছিল যে হয়ত তুই লেগ মিডলে বল করলে ভালো হবে। তখন কিন্তু হঠাৎ করে আমার চিন্তা হয়ে গেছে যে না আমি ওইখানে বল করলে হয়ত সমস্যায় পড়বে। কিছুক্ষণ পর এক ওভার বোলিং করে মেইডেনও নিয়েছি। ছোট ছোট ভাবনা এবং পরিবর্তনগুলো কিন্তু অনেক সাহায্য করে।’

সাকিবের সাথে রিয়াদও পরামর্শ দিয়ে ভূমিকা রেখেছেন উল্লেখ করে মিরাজ বলেন, ‘আজকের ম্যাচে দেখেন রিয়াদ ভাই আমি যখন বল করেছিলাম তিন ওভারের পর আমি উইকেট পাচ্ছিলাম না ভালো জায়গায় বল করছিলাম। রিয়াদ ভাই হয়ত ফিল্ডিংয়ে একটা পরিবর্তন করেছে আমার সাথে কথা বলে। আমাকে বললো যে তুই ক্যাপ্টেনের সঙ্গে আলোচনা করতে পারিস। তার পরের বলেই কিন্তু উইকেটটা পেয়েছি। এটা আমার জন্য অনেক স্পেশাল ছিল, রিয়াদ ভাইয়ের ওই ছোট্ট পরিবর্তনটা’। আমি হয়ত ক্যাপ্টেনের সঙ্গে আলোচনা না করে যদি করতাম তাহলে হয়ত উইকেটটা পেতাম না, নিজের আত্মবিশ্বাসটা তৈরি হত না।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

সিনিয়রদের পরামর্শে এমন ক্ষুরধার মিরাজ

Read Next

যে ভাবনায় আগে ব্যাটিং নেয় ওয়েস্ট ইন্ডিজ

Total
4
Share