অভিষিক্ত হাসান মাহমুদকে যেমন দেখলেন সাকিব-তামিম

হাসান মাহমুদের প্রশংসায় পঞ্চমুখ সাকিব

৩১৩ দিন পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরল বাংলাদেশ, মাঘ মাসের শুরুর সময়টায় প্রকৃতিও যেন শীতল অভ্যর্থনা জানাতে প্রস্তুত আগে থেকে। খর্ব শক্তির ওয়েস্ট ইন্ডিজের অভিষেক হয় ৬ ক্রিকেটারের। করোনা পরবর্তী টাইগার ক্রিকেটারদের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে প্রত্যাবর্তন, নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে ফিরলেন সাকিব আল হাসান। ফেরা কিংবা শুরু করার গল্পে এদিন নাম আছে আরও এক হাসানের।

তরুণ পেসার হাসান মাহমুদের ওয়ানডে ক্রিকেটে পথ চলার শুরু। দারুণ পারফরম্যান্সে অধিনায়ক তামিমের প্রশংসা কুড়িয়েছেন, সাকিব আল হাসানও করেছেন প্রশংসা।

কুয়াশার চাদরে ঢাকা মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়াম, প্রত্যাবর্তন আর নব যাত্রার এ যেন নীরব অভ্যর্থনা। ঘন্টাখানেক বৃষ্টি হয়ে ঝরেছিল দীর্ঘ বিরতি শেষে মাঠে ফেরার আনন্দ অশ্রু। তবে সফরকারী ক্যারিবিয়ানরা আঁটকে গেছেন টাইগার বোলারদের মায়াজালে। সাকিব আল হাসানের স্পিন বিষ, মুস্তাফিজুর রহমানের নতুন আয়ত্ব করা ইনসুইং আর অভিষিক্ত হাসান মাহমুদের পেস আগুন।

ম্যাচ সেরা হয়ে সাকিবে আল হাসানের নবাবের বেশে ফেরার দিনে ওয়ানডে অভিষেকটা রাঙিয়ে রাখলেন হাসান মাহমুদও। ৬ ওভারে এক মেডেনে ২৮ রান খরচায় শিকার ৩ উইকেট। ক্যারিবিয়ায়নদের আসা যাওয়ার মিছিলের ভীড়ে লড়াকু সৈনিক হয়ে যুদ্ধ করার চেষ্টা রবম্যান পাওয়েলের। দ্বিতীয় ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ ২৮ রান করা পাওয়েলকে মুশফিকুর রহিমের ক্যাচে পরিণত করে গলার কাটা হতে দেননি হাসান মাহমুদ।

পরের বলেই নতুন ব্যাটসম্যান রেইমন রেইফারকে উপহার দিলেন গোল্ডেন ডাক। হ্যাটট্রিক সম্ভাবনা জাগিয়েও আক্ষেপে পুড়েছেন, তবে পরে শিকার করেছেন আরও এক ক্যারিবিয়ান। ব্যাক অব লেংথ ও শর্ট অব গুড লেংথেই করেছেন বেশিরভাগ বল। গতির ঝড়ে কাঁপন তুলতে পারেন এমন কিছুরও নজির দেখিয়েছেন। গড়ে বল করেছেন ১৩৫ এর আশে পাশে, সর্বোচ্চ গতির বল ছিল ১৪৫ ছুঁইছুঁই।

সর্বশেষ বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপ কিংবা তারও আগে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) ছাড়াও বিভিন্ন পর্যায়ে নিজের প্রতিভার সাক্ষর রাখা ডানহাতি এই পেসারের টি-টোয়েন্টি অভিষেক হয়েছে গতবছর জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে। এবার ওয়ানডে অভিষেকটাও দারুণভাবে উদযাপন করলেন নিজের পারফরম্যান্সের সাথে দলের জয়ে।

বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপে একই দলে খেলা সাকিব আল হাসান ম্যাচ শেষে জানিয়েছেন হাসান মাহমুদের ওয়ানডে অভিষেকে ভালো করাটা আনন্দ দিচ্ছে তাকেও, ‘হাসান মাহমুদের সঙ্গে আমি এক দলে (জেমকন খুলনা) খেলেছি। তাকে আন্তর্জাতিক ওয়ানডেতে এসে ভালো করতে দেখে ভাল লাগছে।’

দেশের ক্রিকেটে তরুণ সব পেসারদের আগমনী বার্তাও আশাবাদী করছে সাকিবকে। এই টাইগার অলরাউন্ডারের উপলব্ধি হাসান মাহমুদ, শরিফুল ইসলাম, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনরা নিংড়ে দিচ্ছেন নিজেকে।

সাকিব বলেন, ‘আমাদের সিস্টেমে বেশ কিছু ফাস্ট বোলার আসছে। আমি গত টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট (বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপ) টা খেলেছি। সেখানে দেখেছি ফাস্ট বোলাররা নিজেদের নিংড়ে দিচ্ছে।’

এদিকে বোলারদের দাপটের দিনে ৬ উইকেটের জয় দিয়ে সিরিজ শুরুর পর দলের বোলারদের পারফরম্যান্সের প্রশংসা করতে গিয়ে অধিনায়ক তামিম জানিয়েছেন হাসান মাহমুদ দারুণ বোলিং করেছে।

তামিমের ভাষায়, ‘কোনো অভিযোগ নেই। আমরা দারুণ বোলিং করেছি। ফিজ যেভাবে শুরু করেছে, দুর্দান্ত ছিল। রুবেলও ভালো শুরু করেছে। নতুন ছেলে হাসান (মাহমুদ), সত্যিই দারুণ বোলিং করেছে। স্পিনাররাও ভাল ছিল। সাকিব এবং মেহেদী (মিরাজ)ভালো করেছে।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

আইপিএলের ৮ ফ্র‍্যাঞ্চাইজির ধরে রাখা ও ছেড়ে দেওয়া খেলোয়াড়ের তালিকা

Read Next

দক্ষিণ আফ্রিকার টি-টোয়েন্টি দলে চার নতুন মুখ

Total
18
Share