কেন্দ্রীয় চুক্তির তালিকা তৈরিতে বিপাকে বিসিবি

বাংলাদেশ বিশ্বকাপ ২০১৯

করোনার ভয়াল থাবাকে পাশ কাটিয়ে ২০২১ সালে নতুন শুরুর অপেক্ষায় বিশ্ব। ২০২০ সালে আঁটকে পড়া ব্যস্ত ক্রিকেট সূচীও হালনাগাদ হতে চলেছে। তবে গত বছর খুব বেশি খেলা মাঠে না গড়ানোয় বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবির) জন্য কঠিন হয়ে পড়েছে চলতি বছর কেন্দ্রীয় চুক্তির তালিকা তৈরি করা। তাই এ বছরও গতবারের চুক্তিবদ্ধ ক্রিকেটারের তালিকা বহাল রেখে অন্তত দুই তিনটি সিরিজ দেখতে চায় বিসিবি।

দুই তিনটি সিরিজের পারফরম্যান্স মূল্যায়ণ করে পুনরায় হালনাগাদ করা হবে কেন্দ্রীয় চুক্তির তালিকা। এমনটাই জানিয়েছেন বিসিবির ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের প্রধান আকরাম খান।

আজ (১৬ জানুয়ারি) মিরপুরে গণমাধ্যমকে আকরাম খান বলেন, ‘প্রতিবছর কিন্তু আমরা পারফরম্যান্স দেখে চুক্তির তালিকা তৈরী করি। কিন্তু এবছর যেহেতু আমরা ওই ধরণের পারফরম্যান্স দেখতে পারছি না বিধায় যারা চুক্তিতে আছেন তাদের রেখে দুইটা সিরিজ দেখে তারপরে হয়ত আমরা সিদ্ধান্ত নিব। বোর্ডের সবার সঙ্গে আলাপ আলোচনা করে তারপরে সিদ্ধান্ত নিব।’

সাদা ও লাল বল বিবেচনায় নিয়ে ২০২০ সালে মোট ১৬ জন ক্রিকেটারকে চারটি ক্যাটাগরিতে কেন্দ্রীয় চুক্তিতে রাখা হয়। যাদের মধ্যে টেস্ট ও সীমিত ওভারের ক্রিকেট উভয়ের জন্য চুক্তিবদ্ধ ক্রিকেটারের সংখ্যা ৭, শুধু টেস্টের জন্য চুক্তিবদ্ধ ক্রিকেটারের সংখ্যা ৪। বাকি ৫ জন কেবলই সীমিত ওভারের ক্রিকেটের জন্য চুক্তিবদ্ধ।

তবে আইসিসির নিষেধাজ্ঞার কারণে গতবারের চুক্তিতে ছিলেন না টাইগার অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। গত নভেম্বরে নিষেধাজ্ঞা মুক্ত হওয়া সাকিব হালনাগাদ হতে যাওয়া কেন্দ্রীয় চুক্তিতে ফিরবেন অনুমেয়ই। কিন্তু তার আগে বহাল থাকা চুক্তিবদ্ধ ক্রিকেটারের তালিকায় তার নাম যোগ হবে কিনা তা অবশ্য নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

যদিও গত মাসে আকরাম খান জানিয়েছেন সাকিব জাতীয় দলের জার্সি গায়ে চাপালেই সাকিবের নাম অন্তর্ভূক্ত হয়ে যাবে কেন্দ্রীয় চুক্তির তালিকায়।

আকরাম খান জানিয়েছেন, ‘সে (সাকিব) যখন থেকে জাতীয় দলের হয়ে খেলা শুরু করবে, তখন থেকেই তাকে চুক্তিতে অন্তর্ভুক্ত করা হবে। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে আসন্ন ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজেই জাতীয় দলে ফিরবে সে।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

অধিনায়ক তামিমের ‘ডেপুটি’ ইস্যুতে বিসিবির ভাষ্য

Read Next

সাকিব-মুস্তাফিজদের সাথে পথ চলাটা দীর্ঘ করতে চান শরিফুল

Total
4
Share