তামিমদের কাছে পাত্তা পেল না মাহমুদউল্লাহ একাদশ

তামিমদের কাছে পাত্তা পেল না মাহমুদউল্লাহ একাদশ

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজের আগে নিজেদের ঝালিয়ে নিতে নিজেদের মধ্যে ভাগ হয়ে প্রস্তুতি ম্যাচ খেলছে তামিম-সাকিবরা। ১ম ম্যাচে মাহমুদউল্লাহ একাদশের কাছে ৫ উইকেটে হারলেও দ্বিতীয় ম্যাচে দাপুটে ব্যাটিং পারফরম্যান্সে জয় তুলে নিয়েছে তামিম একাদশ।

এদিন আগে ব্যাট করে মাহমুদউল্লাহ একাদশ। ৪৫ ওভারের ম্যাচে ৭ উইকেটে ২২৩ রান করে তারা।

নাইম শেখ ও ইয়াসির আলি চৌধুরী রাব্বির উদ্বোধনী জুটিতে আসে ৪৫ রান। ১১.৪ ওভার স্থায়ী জুটিতে রাব্বি করেন ২৪ রান। ৩৬ বলে ২ চারে সাজানো ইনিংস থামে মেহেদী হাসানের বলে লেগ বিফোর উইকেটের ফাঁদে পড়লে।

এরপর ৫০ রানের জুটি গড়েন নাইম শেখ ও সাকিব আল হাসান। ৬৮ বলে ৪ চার ও ২ ছয়ে ঠিক ৫০ রান করে আউট হন নাইম শেখ। পরে ফিফটি পূর্ণ করেন সাকিব আল হাসানও। যদিও ধীরগতিতে রান তোলেন তিনি। ৮২ বল খেলে ১ টি করে চার ও ছয়ে ৫২ রান করেন। আউট হন নাসুম আহমেদের বলে সৌম্য সরকারকে ক্যাচ দিয়ে।

এছাড়া মুশফিকুর রহিম ২৫, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত ৩১ রান করেন। তামিম একাদশের পক্ষে ২ টি করে উইকেট নেন মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন ও মেহেদী হাসান। ১ টি করে উইকেট নেন মুস্তাফিজুর রহমান, রুবেল হোসেন ও নাসুম আহমেদ।

জবাব দিতে নেমে শুরুটা দারুণ করেন তামিম ইকবাল ও লিটন দাস। ১৪ ওভার স্থায়ী উদ্বোধনী জুটিতে ৭৭ রান তোলেন দুজন। ৫৩ বলে ৯ চারে ৪৮ রান করে হাসান মাহমুদের বলে তাকেই ক্যাচ দিয়ে লিটন ফিরলে ভাঙে জুটি।

লিটন ফিফটি হাতছাড়া করলেও তামিম তা করেননি। ৮০ বলে ৫ চার ও ৩ ছক্কায় ৮০ রান করে স্বেচ্ছা অবসরে যান তিনি। তিনে নামা নাজমুল হোসেন শান্ত দ্রুত রান তোলেন। ৫১ বলে ৭ চার ও ২ ছক্কায় ৬১ রান করে তাসকিনের বলে সাকিবকে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন তিনি।

শান্ত যখন আট হব দলের রান তখন ১৯৬। বাকি রান নির্বিঘ্নে তোলেন মোহাম্মদ মিঠুন ও সৌম্য সরকার। মিঠুন ১৭ ও সৌম্য ১২ রান করে অপরাজিত থাকেন।

৯.৪ ওভার ও ৮ উইকেট হাতে রেখেই জয় তুলে নেয় তামিম একাদশ। মাহমুদউল্লাহ একাদশের হয়ে ১ টি করে উইকেট নেন হাসান মাহমুদ ও তাসকিন আহমেদ।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

মাহমুদউল্লাহ একাদশ ২২৩/৭ (৪৫), নাইম ৫০, রাব্বি ২৪, সাকিব ৫২, মুশফিক ২৫, মোসাদ্দেক ৩১, মিরাজ ১১, তাইজুল ৪*, হাসান ২; সাইফউদ্দিন ৯-১-৬২-২, মেহেদী ৯-০-৩১-২, মুস্তাফিজ ৯-১-৩৭-১, রুবেল ৯-০-৪৪-১, নাসুম ৬-০-৩৩-১।

তামিম একাদশ ২২৪/২ (৩৫.২), লিটন ৪৮, তামিম ৮০ (স্বেচ্ছা অবসর), শান্ত ৬১, মিঠুন ১৭*, সৌম্য ১২*; তাসকিন ৭-০-৪৫-১, হাসান ৫-০-৩১-১

ফলাফলঃ তামিম একাদশ ৮ উইকেটে জয়ী।

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

বাংলাদেশের চূড়ান্ত ওয়ানডে স্কোয়াড ঘোষণা

Read Next

১৮ সদস্যের ওয়ানডে স্কোয়াড ও নির্বাচকের ব্যাখ্যা

Total
20
Share