বাংলাদেশে এসে স্মৃতির ঝাপি খুলে দিলেন রোচ

বাংলাদেশে এসে স্মৃতির ঝাপি খুলে দিলেন রোচ

জীবন বড় বিচিত্র, একই দৃশ্যপটে ভিন্ন ভূমিকায় কতজনই করে গেছেন অভিনয়। জীবনের পরতে পরতে নাকি লুকিয়ে থাকে রঙের ছড়াছড়ি। আর সেই রঙ দিয়ে বলকে তুলি বানিয়ে আঁচড় বসাচ্ছেন ক্যারিবিয়ায়ন পেসার কেমার রোচ। ২০০৯ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে যাওয়া বাংলাদেশে দলের বিপক্ষে সিরিজের আগেই বোর্ডের সাথে দ্বন্দ্বে সিরিজ বয়কট করে প্রায় সব সিনিয়র ক্রিকেটার। বাধ্য হয়ে দ্বিতীয় সারির দল নিয়েই মাঠে নামতে হয় ক্যারিবিয়ানদের। যে দলের সদস্য ছিলেন কেমার রোচ।

দল সিরিজ হারলেও তরুণ কেমার রোচ ২ টেস্টে ১৩ উইকেট নিয়ে নিজের আগমনী বার্তাটা দিয়েছেন ঠিকভাবেই। সময়ের বিবর্তনে ১১ বছর পর একই দৃশ্যপট ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলে। তবে এবার আর বিদ্রোহ নয় করোনা শঙ্কায় বাংলাদেশে আসেনি বেশিরভাগ অভিজ্ঞ ও সিনিয়র ক্যারিবিয়ান ক্রিকেটার। কিন্তু ঠিকই এসেছেন কেমার রোচ। ২০০৯ সালে সবার মত তার জন্য শিক্ষণীয় সিরিজ ছিল, এবার দলে সুযোগ পাওয়া বেশিরভাগ তরুণের ভীড়ে তিনিই অভিজ্ঞদের একজন।

খর্ব শক্তির ওয়েস্ট ইন্ডিজ দল ঘরের মাঠে ভয়ঙ্কর বাংলাদেশের বিপক্ষে খেলবে তিন ওয়ানডে ও দুই টেস্ট। কেমার রোচ ছাড়াও টেস্ট স্কোয়াডে আছেন অভিজ্ঞ পেসার শ্যানন গ্যাব্রিয়েল, তবে দলটির স্পিন ও ব্যাটিং বিভাগে তরুণ ও অনিভিজ্ঞদের আধিপত্য। ২০০৯ সালের সাথে প্রেক্ষাপ্ট মিলিয়ে কেমার রোচ স্মৃতিচারণ করলেন বাংলাদেশের কাছে ধরাশয়ী হওয়া সিরিজের।

আজ (১৫ জানুয়ারি) মিরপুর একাডেমি মাঠে অনুশীলন শেষে গণমাধ্যমের উদ্দেশ্যে পাঠানো এক ভিডিও বার্তায় তিনি বলেন, ‘তখন (২০০৯ সালে) আমিও বেশ অনভিজ্ঞ ছিলাম। আমি মনে করি ছেলেরা তখন বেশ চাপে ছিল ভালো করার জন্য কিন্তু তারা পারেনি। তবে আমি মনে করি লোকজন সবসময় খুশি ছিল এবং আমাদের বেশিরভাগের জন্যই বড় একটা শিক্ষা ছিল।’

‘আর এবার এটা আমাদের জন্য দ্বিতীয়বার একই পরিস্থিতি হয়েছে। যেটা বললাম আমরা ভালো পরিকল্পনা করছি গ্রুপ হিসেবে দল হিসেবে আমাদের কি করতে হবে। ব্যাটসম্যানদের মধ্যে ভালো আলাপ হচ্ছে, আজকে এবং গতকালকে তাদের দেখে ভালোই মনে হচ্ছে। আশা করছি অনুশীলন ও প্রস্তুতি ম্যাচে ভালো প্রস্তুতি নিয়েই আমরা টেস্ট সিরিজ শুরু করবো।’

তামিম ইকবাল, মুশফিকুর রহিম, সাকিব আল হাসানদের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজটা কঠিন হবে উল্লেখ করে নিজেদের কাজোটা ঠিকঠাক করতে চান বলে জানান ৩২ বছর বয়সী এই পেসার।

তিনি বলেন, ‘আমি মনে করি তারা বেশ ভালো দল। তামিম ইকবাল তাদের অন্যতম অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান, সাকিব ফিরেছে, মুশফিকুর রহিম আছে, তাদের অধিনায়কও ভালো ব্যাটসম্যান, মাহমুদউল্লাহ আছে… বেশ কিছু ভালো নাম আছে তাদের। যেটা বলেছি আমরা আসলে আমাদের দিকে ফোকাস রাখছি।’

‘আমাদের কাজটা ঠিকঠাক করতে হবে। যদি ভালো প্ল্যান করতে পারি, ভালো জায়গায় বল করতে পারি তা আমাদের জন্য সহায়ক হবে। এসব ঠিকমত করতে পারলে আমি মনে করি আমরা সিরিজে ভালো করতে পারবো।’

৬০ ম্যাচের টেস্ট ক্যারিয়ারে শিকার করেছেন ২০৪ উইকেট। বাংলাদেশের বিপক্ষে ৮ ম্যাচে নিয়েছেন ৩৩ উইকেট। যদিও বাংলাদেশের কন্ডিশনে খুব একটা কার্যকারিতা দেখাতে পারেননি। তবে বাংলাদেশের বিপক্ষে অভিষেক, ভালো পরিসংখ্যান বাড়তি বিশ্বাস জোগায় বলে জানান রোচ।

তার ভাষ্যমতে, ‘বাংলাদেশের বিপক্ষেই আমার শুরু হয়েছিল, অবশ্য সেটা ঘরের মাঠে ছিল। কিন্তু বেশ কয়েকবারই বাংলাদেশে আসা হয়েছে, ওয়ানডে ও টেস্ট খেলেছি এখানে। এটা সবসময় আমাকে বিশ্বাস জোগায় মানসিকভাবে। তারা খুব কঠিন প্রতিপক্ষ, আমি মনে করি এটা সঠিক। যেহেতু দল হিসেবে তারা এখানে গড়ে উঠেছে। আপনি আপনার সেরাটা দিন এবং যা করতে চান তাতে ফোকাস রাখুন যতটা সম্ভব আপনি পারেন।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

রোচ-গ্যাব্রিয়েলরা অভিজ্ঞতার ভেলায় ভাসাতে চান ওয়েস্ট ইন্ডিজকে

Read Next

সাকিবের একাডেমিতে ভর্তি হতে খরচ হবে কত?

Total
8
Share