‘ভাগ্য ভাল টিম পেইন পাকিস্তানি উইকেটরক্ষক না’

ভাগ্য ভাল টিম পেইন পাকিস্তানি উইকেটরক্ষক না- কামরান আকমল

সিডনি টেস্টে জয়ের পথে থাকা অস্ট্রেলিয়াকে ডুবিয়েছে মূলত উইকেটের পিছনে টিম পেইনের ক্যাচ মিস। শেষদিনে মোট ৩টি ক্যাচ মিস করেছেন অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক-উইকেটরক্ষক টিম পেইন। আর তাতেই নিজের মনের কথা আরও একবার প্রকাশ করতে পারলেন পাকিস্তানের অবহেলিত উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান কামরান আকমল। তার মতে, টিম পেইনের সৌভাগ্য তিনি পাকিস্তানের মতো দলের হয়ে ক্রিকেট খেলেন না। নইলে তাঁর মতোই যে পেইনের অবস্থা হত। 

সিডনি টেস্টের পঞ্চম দিনে চতুর্থ সেশনের গুরুত্বপূর্ণ সময়ে ১২৩তম ওভারে মিচেল স্টার্কের বলে হনুমা বিহারির ক্যাচ ছাড়লেন টিম পেইন। শুধু তাই-ই নয়। শেষ দিনের প্রথম সেশনেও মারমুখী রিশাব পান্টের ক্যাচ দুবার ফেলেন টিম পেইন। এই নিয়ে ইনিংসে তিনটি ক্যাচ মিস করলেন অজি দলনায়ক।

একটা বা দুটো নয় – সিডনিতে পঞ্চম দিনে তিন-তিনটি ক্যাচ ফেললেন অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক টিম পেইন। বিশেষত হনুমা বিহারির ক্যাচটা অস্ট্রেলিয়ার জয় এবং ড্রয়ের মধ্যে পার্থক্য গড়ে দিতে পারত।

নিজের সাথে টিম পেইনের অবস্থা মিলিয়েছেন কামরান আকমল। অস্ট্রেলিয়া-ভারত ম্যাচ শেষে এক ইউটিউব ভিডিওতে পাকিস্তানের উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান কামরান আকমল টিম পেইনের জন্য স্বস্তি প্রকাশ করেছেন, ইঙ্গিত করেন যে পাকিস্তানের লোকেরা তার সম্পর্কে ভয়াবহ কথা বলতে পারত যদি পেইন পাকিস্তানের হয়ে খেলত।

‘যদি ক্যাচগুলো নিতে পারত অস্ট্রেলিয়া একটি জয় উদযাপন করত। তবে এটি ঘটেনি। তাদের ফিল্ডিং তা হতে দেয়নি। মাঠে ভালো এবং খারাপ দিন থাকতে পারে। অস্ট্রেলিয়ান দলের বিশেষত্ব হল তারা মাঠে খুব বেশি ভুল করে না। তবে তারা আজ একদিনেই তাদের সমস্ত ভুল করেছে। টিম পেইন খুব খারাপ করেছে আজ। প্রতিটি উইকেটরক্ষকই ক্যাচ ফেলে দেয় তবে আমরা কী বলতে পারি।’

পাকিস্তান ক্রিকেটের অন্যতম বিতর্কিত চরিত্র তিনি। কামরান আকমল তার প্রতিভার প্রতি সুবিচার করতে পারেননি। উইকেটের পিছনে ফেলেছেন অনেক সহজ ক্যাচ। মিস করেছেন স্টাম্পিং। ফলে ভুগতে হয়েছে পাকিস্তানকে। এরপর ঘরোয়া ক্রিকেট কিংবা পিএসএলে দুর্দান্ত পারফর্ম করার পরও ফিরতে পারেননি পাকিস্তানের সবুজ জার্সিতে।

পাকিস্তান জাতীয় দলে উপেক্ষিত কামরান টিম পেইনকে সৌভাগ্যভান হিসাবেই দেখছেন। কারণ তিনি পাকিস্তান দলের কেউ না। যদি পাকিস্তানের ক্রিকেটার হতেন কামরানের মতো তারও এমন অবস্থা হত।

‘আমি আনন্দিত যে পাকিস্তান সেখানে খেলছে না এবং টিম পেইন পাকিস্তান দলে ছিলেন না। নইলে পাকিস্তানের সমর্থকরা তাঁর সম্পর্কে অনেক কিছুই বলত। এখন আমি দেখব যে লোকেরা আমার সম্পর্কে দীর্ঘদিন যে কথা বলেছিল তারা এখন কী বলবে। এটি একটি আকর্ষণীয় টেস্ট ছিল এবং অস্ট্রেলিয়ান দল অনেক চেষ্টা করেছিল। তারা জিততে পারেনি তবে ম্যাচে কখনও আশা হারায়নি। লড়াইয়ের মনোভাব ছিল, যা তাদের সবচেয়ে বড় সম্পদ।’

চতুর্থ ইনিংসে ৪০৭ রান তাড়া করতে গিয়ে পঞ্চম দিনে দুর্দান্ত চরিত্র দেখায় ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা। শেষ অবধি ৩৩৪/৫ স্কোরে তারা খেলা শেষ করে। প্রায় হেরে যাওয়া টেস্ট ম্যাচ ড্র করতে সক্ষম হয়েছে হনুমা বিহারি আর রবিচন্দ্রন অশ্বিনের সৌজন্যে। আপাতত সিরিজ ১-১ অমীমাংসিত।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

বোর্ডার-গাভাস্কার সিরিজ শেষ রবীন্দ্র জাদেজার

Read Next

আর নয় বিপ টেস্ট, এবার ফিটনেস টেস্টে ইয়ো-ইয়ো

Total
1
Share