জন লুইসের জন্য সরকারের কাছে বিসিবির আবেদন

নিজামউদ্দিন চৌধুরী বিসিবি সিইও

আজ (৭ জানুয়ারি) সকালে বাংলাদেশে পৌঁছেছেন টাইগারদের নবনিযুক্ত ব্যাটিং কোচ জন লুইস। তবে বর্তমানে করোনার প্রকোপের দিক থেকে শীর্ষে থাকা ইংল্যান্ড থেকে আসা যে কারও জন্য বাংলাদেশ সরকারের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের ১৪ দিনের বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টাইন ভোগান্তিতে ফেলার সমূহ সম্ভাবনা তৈরি করেছে। আর এমনটি হলে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজ সামনে রেখে টাইগার ব্যাটসম্যানদের নিয়ে কাজ করতে বড্ড দেরিই হয়ে যাবে।

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) অবশ্য ইতোমধ্যে সরকারের কাছ থেকে বিশেষে ছাড়ের আবেদন করেছে। এর আগেও বিদেশি কোচিং স্টাফদের ক্ষেত্রে সরকারী অনুমতির মিলেছে বলে এবারও আশাবাদী দেশের ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা। তারা শুধু জন লুইস নয় বোর্ডের ব্রিটিশ সকল স্টাফের জন্যই এমন আবেদন করে রেখেছে। সেক্ষেত্রে চলতি মাসের শেষদিকে নারী দলের কোচ হয়ে আসতে যাওয়া মার্ক রবিনসনের জন্যও আগাম অনুমতি নেওয়া হয়ে যাবে।

আজ (৭ জানুয়ারি) মিরপুরে গণমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজাম উদ্দিন চৌধুরী সুজন বলেন, ‘ ব্রিটিশ নাগরিকদের ক্ষেত্রে ১৪ দিনের বিধিনিষেধ রয়েছে। আমরা সে ব্যাপারে সরকারের সঙ্গে কথা বলেছি। সংশ্লিষ্ট অধিদপ্তরের সঙ্গে কথা বলেছি । বিশেষ অনুমতির জন্য আবেদন করা হয়েছে।’

‘শুধু জন লুইস নন আরো যেকজন ব্রিটিশ স্টাফ রয়েছেন তাদের মওকুফের জন্য আবেদন করা হয়েছে। এটি ইতোপূর্বেও সরকার আমাদের দিয়েছিলেন সেটা প্রক্রিয়াধীন আছে। সেটি হলে আর পরপর দুইটি পরীক্ষায় নেগেটিভ প্রমাণিত হলেই তারা দলের সঙ্গে যোগ দিবেন।’

মার্ক রবিনসনের সাথে চুক্তির বিষয় চূড়ান্ত পর্যায়ে আছে উল্লেখ করে তিনি আরও যোগ করেন, ‘আমাদের সব কিছুই চূড়ান্ত পর্যায়ে আছে। আমরা আশা করছি কিছু প্রশাসনিক কার্যাবলি এখন শেষ করতে হবে এবং ফ্লাইট ও অন্যান্য আনুষাঙ্গিক বিষয়গুলো সম্পন্ন হলেও অতি শীঘ্রই যোগ দিবেন।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

ডিসেম্বরে বাংলাদেশে মেয়েদের অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ

Read Next

জৈব সুরক্ষিত বলয়ে প্রবেশের আগেই কোয়ারেন্টাইনে সাকিব-তামিমরা

Total
4
Share